ঢাবির ডিন নির্বাচনে চলছে ভোটগ্রহণ

du

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) অভ্যন্তরীণ অনুষদগুলোর ডিন নির্বাচন শুরু হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে সকাল ৯টা থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে, চলবে দুপুর ১টা পর্যন্ত।

সরেজমিনে দেখা যায়, সকাল থেকেই ভোটাররা ভোটকেন্দ্রে আসতে শুরু করেছেন। তারা পছন্দের প্রার্থীদের ভোট দিচ্ছেন। প্রার্থীরাও ভোটারদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করছেন। উৎসব মুখর পরিবেশে চলছে ভোটগ্রহণ।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো. মমতাজ উদ্দিন আহমেদ এই নির্বাচন পরিচালনা করছেন। ভোট গণনা শেষে আজ বিকেল ৩টার দিকে নির্বাচনের ফল ঘোষণা করা হবে বলে জানান তিনি।

ঢাবিতে মোট ১৩টি অনুষদ রয়েছে। এর মধ্যে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় ১০ অনুষদে। বাকি ৩ অনুষদ- শিক্ষা অনুষদ, চিকিৎসা অনুষদ এবং স্নাতকোত্তর চিকিৎসা বিজ্ঞান ও গবেষণা অনুষদে সরকারের পক্ষ থেকে ডিন মনোনীত করা হয়। ঢাবির আইন অনুযায়ী, ডিনরা ২টি একাডেমিক শিক্ষাবর্ষের জন্য নির্বাচিত হবেন।

এবারের নির্বাচনে ১০টি অনুষদের মধ্যে ৮টি অনুষদের ডিন পদে আওয়ামীপন্থী শিক্ষকদের প্যানেল নীল দল ও বিএনপিপন্থী শিক্ষকদের প্যানেল সাদা দলের প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে বলে জানা গেছে।

বাকি ২টি অনুষদে সাদা দলের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী না থাকায় নীল দলের প্যানেলের প্রার্থীরা জয়ী হয়েছেন। তারা হলেন আর্থ অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল সায়েন্সেস অনুষদে ডিজাস্টার সায়েন্স অ্যান্ড ক্লাইমেট রেজিলিয়েন্স বিভাগের অধ্যাপক মো. জিল্লুর রহমান এবং আইন অনুষদের আইন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রহমত উল্লাহ।

সাদা দলের পক্ষ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন যারা

কলা অনুষদের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক মোহাম্মদ ছিদ্দিকুর রহমান খান, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এ এস এম আমানউল্লাহ, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের ফিন্যান্স বিভাগের অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম চৌধুরী, বিজ্ঞান অনুষদের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ইমরান কাইয়ুম, জীববিজ্ঞান অনুষদের মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিভাগের অধ্যাপক আখতার হোসেন খান, ফার্মেসি অনুষদের ফার্মাসিউটিক্যাল কেমিস্ট্রি বিভাগের অধ্যাপক মো. শাহ এমরান, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক মো. হায়দার আলী এবং চারুকলা অনুষদের গ্রাফিক ডিজাইন বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক মো. ইসরাফিল রতন।

নীল দলের পক্ষ থেকে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন যারা

কলা অনুষদের ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক আবদুল বাছির, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের অপরাধ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. জিয়া রহমান, ব্যবসায় শিক্ষা অনুষদের অর্গানাইজেশন স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড লিডারশিপ বিভাগের অধ্যাপক মুহাম্মাদ আবদুল মঈন, বিজ্ঞান অনুষদের ফলিত গণিত বিভাগের অধ্যাপক আবদুস সামাদ, জীববিজ্ঞান অনুষদের প্রাণরসায়ন ও অনুপ্রাণ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক এ কে এম মাহবুব হাসান, ফার্মেসি অনুষদের অধ্যাপক সীতেশ চন্দ্র বাছার, ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টেকনোলজি অনুষদের কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের অধ্যাপক হাফিজ মো. হাসান বাবু, চারুকলা অনুষদের অঙ্কন ও চিত্রায়ণ বিভাগের অধ্যাপক নিসার হোসেন।

আমারসংবাদ/এডি