মিরপুর চিড়িয়াখানায় মাছির কামড়ে বাঘের মৃত্যু

রাজধানীর মিরপুরে জাতীয় চিড়িয়াখানায় জন্ম হয়েছিল বাঘ শাবক দুর্জয় ও অবন্তিকার। ২৬ মে জন্মের পর  গত ১৬ আগস্ট জন্ম নিবন্ধন করে শাবক দুটির নাম রেখেছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

রয়েল বেঙ্গল দম্পতি টগর ও বেলির ঘরে জন্ম হয়েছিল ছেলে শাবক দুর্জয় আর মেয়ে শাবক অবন্তিকার। কিন্তু মাত্র ছয় মাসের মধ্যেই মাছির কামড়ে মারা গেছে দুর্জয়-অবন্তিকা।

দেশের একটি শীর্ষস্থানীয় জাতীয় দৈনিকের এক প্রতিবেদনে এ কথা বলা হয়েছে।

শনিবার (২৭ নভেম্বর) জাতীয় চিড়িয়াখানার পরিচালক ডা. আব্দুল লতিফ  জানান, ১৫ নভেম্বর হঠাৎ করেই অসুস্থতা ধরা পড়ে রয়েল বেঙ্গলের শাবক দুটির। শাবক দুটি কিছুটা খুঁড়িয়ে হাটছিল। এ অবস্থায় চিড়িয়াখানা মেডিকেল বোর্ড তাদের রক্ত পরীক্ষা করে রক্তে একধরনের মাছিবাহিত পরজীবীর উপস্থিতি ধরা পড়ে। সে অনুযায়ী চিকিৎসাধীন ছিল দুর্জয়-অবন্তিকা। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। গত ২১ নভেম্বর মারা গেছে শাবক দুটি।

ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন অনুযায়ী, সেটসি ফ্লাই (Tsetse Fly) নামে এক ধরনের মাছির কামড়ে ট্রাইপেনোসোমা রোগে আক্রান্ত হয়েছিল শাবকগুলো।

এদিকে, গবেষকদের ধারণা, অদক্ষ চিকিৎসকের দ্বারা চিকিৎসা ও অবহেলা এবং অযত্নের কারণেই শাবক দুটির মৃত্যু হয়েছে।

চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ শাবক দুটির অসুস্থতার সংবাদ বা কোনো ছবি প্রকাশ না করলেও, শাবক দুটিকে হাসপাতালে না নিয়ে খাঁচায় রেখেই চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন অনেকেই।

এ ব্যাপারে, প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর এ ঘটনায় একটি তদন্ত কমিটিও গঠন করেছে।

এর আগে ২০১৬ সালে একই রোগে আরেকটি বাঘ শাবক মারা গিয়েছিল বলে চিড়িয়াখানা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

আমারসংবাদ/জেআই