Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২২, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯

বৈরি আবহাওয়া: হাজার হাজার মাছ ধরার ট্রলার উপকূলে

সফিউল  আলম, কক্সবাজার

সফিউল আলম, কক্সবাজার

আগস্ট ১১, ২০২২, ০৮:১৭ পিএম


বৈরি আবহাওয়া: হাজার হাজার মাছ ধরার ট্রলার উপকূলে

বৈরি আবহাওয়ার কারণে কক্সবাজার সমুদ্র উপকূলে ইলিশ ধরতে যেতে পারছে না জেলেরা। তাই হাজার হাজার ট্রলার কক্সবাজার উপকূলের বিভিন্ন ঘাটে নোঙর করে রয়েছে।

গত ২৩ জুলাই সামুদ্রিক মাছের প্রজনন মৌসুমের ৬৫ দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে বঙ্গোপসাগরে ইলিশসহ অন্যান্য মাছ ধরতে যায় কয়েক হাজার ট্রলার। প্রথম সপ্তায় ভালো ইলিশ ধরা পড়লেও গত দু সপ্তাহ ধরে আশানুরূপ ইলিশ জালে ধরা পড়েনি।

মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তারা বলেছেন, কয়েকদিনের প্রচণ্ড দাবদাহের কারণে ইলিশ গভীর সাগরের দিকে ফিরে গেছে। বৃষ্টিপাত শুরু হলেই উপকূলের কাছাকাছি ইলিশ আবার ছুটে আসবে।

গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে গভীর সাগরে থাকা শত শত মাছ ধরার ট্রলার কক্সবাজার শহরের। নুনিয়ারছড়া, চৌফলদণ্ডী ,চকরিয়া,মহেশখালী,কুতুবদিয়া,পেকুয়া, টেকনাফ ও সেন্ট মার্টিনের বিভিন্ন ঘাটে ফিরে আসছে। বৃহস্পতিবার ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরে ৩ নং সর্তকতা সংকেত রয়েছে বলে জানিয়েছে কক্সবাজার আবহাওয়া অফিস।

দেশের অন্যতম মৎস্য অবতরণকেন্দ্র কক্সবাজার শহরের নুনিয়ারছড়া ঘাটে গিয়ে দেখা যায়, সেখানে অন্তত দুই হাজার মাছ ধরার ট্রলার ভেড়ানো রয়েছে। এসব ট্রলারে মাঝি-মাল্লারা আবহাওয়া পরিস্থিতি ভালো হলে সাগরে যাওয়ার জন্যে অপেক্ষা করছে।

ট্রলারের মাঝি সিরাজ মিয়া বলেন, নিষেধাজ্ঞা শেষে ৭-৮দিনের রসত নিয়ে ২০ জন জেলে নিয়ে তাদের ট্রলারটি ইলিশ ধরার জন্যে সাগরে যায়। এই যাত্রায় তাদের জ্বালানি খরচও উঠে আসেনি। এখন ১০দিন ধরে ঘাটে অপেক্ষায় আছেন।

কক্সবাজার মৎস্য ব্যবসায়ী সমিতির নেতা ও আড়তদার জয়নাল আবেদীন জানান, গত এক সপ্তাহ ধরে ঘাটে মাছ নেই বলে চলে। সাগর উত্তাল থাকায় জেলেরাও মাছ ধরতে যেতে পারছে না।

জেলা ফিশিং বোট মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন বলেন, কক্সবাজার সমুদ্র উপকূলে প্রায় ৬ হাজার মাছ ধরার ছোট-বড় ট্রলার রয়েছে। বৈরি আবহাওয়ার কারণে প্রায় ট্রলার এখন উপকূলের ঘাটগুলোতে নোঙর করে আছে।

জেলা মৎস্য কর্মকর্তা মোহাম্মদ বদরুজ্জামান বলেন, সামুদ্রিক মাছের প্রজননের ৬৫দিনের নিষেধাজ্ঞা শেষে জেলেরা প্রথম এক সপ্তায় আশানুরূপ মাছ পেয়েছিল। কয়েকদিন ধরে প্রচণ্ড গরম ও বৈরি আবহাওয়ায় জেলেরা সাগরে যেতে পারছে না। আবহাওয়া পরিস্থিতি উন্নতি না হওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি সব ধরণের নৌযান অবস্থান করতে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। 

এআই

Link copied!