Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ০৬ অক্টোবর, ২০২২, ২১ আশ্বিন ১৪২৯

কোরিয়ায় ইপিএস বাংলার অ্যাওয়ার্ড ও উদ্যোক্তা প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

অসীম বিকাশ বড়ুয়া, দক্ষিণ কোরিয়া থেকে

নভেম্বর ২৪, ২০২১, ০২:৫০ পিএম


কোরিয়ায় ইপিএস বাংলার অ্যাওয়ার্ড ও উদ্যোক্তা প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত

২১ নভেম্বর দক্ষিণ কোরিয়াতে অবস্থানরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের জনপ্রিয় সংগঠন ইপিএস বাংলা কমিউনিটির উদ্যোগে রাজধানী সিউলের অন্তর্গত কোরিয়া ফরেন ওয়ার্কার্স সাপোর্ট সেন্টারে ইপিএস অ্যাওয়ার্ড ও উদ্যোক্তা প্রোগ্রাম ২০২১ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

স্থানীয় সময় সকাল ১১ টার দিকে আগত অতিথিদের করোনাকালীন সমস্ত বিধিনিষেধ মেনে পবিত্র ধর্মগ্রন্থ থেকে পাঠ করার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের শুভ সূচনা করা হয়। পরে বাংলাদেশ এবং কোরিয়ার জাতীয় সংগীত গাওয়ার মাধ্যমে দুই দেশের প্রতি সম্মান প্রদর্শন করা হয়।

[media type="image" fid="151316" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

অনুষ্ঠানের প্রথম পর্বের সঞ্চালনা করেন-মোঃ নুর আলম মোল্লা ও জয় জাহাঙ্গীর। 

ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার সভাপতি ফারুক আহমেদ এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন-উপদেষ্টা আমিনুল ইসলাম,ফরহাদ হোসেন এবং সিউল ফরেন সাপোর্ট সেন্টারের প্রতিনিধি লি ইয়ং হুন খোয়াজাং। 

অনুষ্ঠানে উদ্যোক্তা বিষয়ক প্রেজেন্টেশন করেন-সালেহ আকরাম এবং কমিউনিটির ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা নিয়ে প্রেজেন্টেশন করেন নুর আলম মোল্লা। 

পরে ফরেন সাপোর্ট সেন্টারের পক্ষ থেকে অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবার জন্য ফ্রি মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় পর্বে অ্যাওয়ার্ড প্রদান প্রোগ্রাম পরিচালনা করেন-নয়ন কুমার দে।

ইপিএস বাংলা কমিউনিটির পক্ষ থেকে এবারের অনুষ্ঠানে বেস্ট ইপিএস পারসন, বেস্ট রেমিটেন্স সেন্ডার, উদ্যোক্তা সহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে মোট ১১ জনকে সম্মাননা প্রদান করা হয়।

২০২১-এর সেরা ইপিএস কর্মী ক্যাটাগরিতে মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন, মোঃ রাসেল, মোঃ দেলোয়ার হোসেন মোট তিন জন বিজয়ী হিসেবে সম্মাননা গ্রহণ করেন।

সর্বোচ্চ পরিমাণে রেমিটেন্স প্রেরণের জন্য ২০২১-এর বেস্ট রেমিটেন্স সেন্ডার ক্যাটাগরিতে আমির হামজা, শেখ টিটুল ও মোঃ মেহেরাব হোসেন মোট তিন জন বিজয়ী হিসেবে সম্মাননা গ্রহণ করেন।

সকল আবেদনকারীদের মধ্য থেকে ব্যবসায়ের আওতা ও পরিধি বিবেচনা করে ২০২১-এর বেস্ট ইপিএস উদ্যোক্তা ক্যাটাগরিতে মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান,মোঃ মাজহারুল ইসলাম ও মেহেদী হাসান মোট তিনজন বিজয়ী হিসেবে সম্মাননা গ্রহণ করেন।

এছাড়াও ২০২১-এর বিশেষ সম্মাননায় কোরিয়ান নাগরিকত্ব অর্জনকারী হিসেবে কামরুল হাসান রাজ এবং সেরা সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিডি হাউজের স্বত্বাধিকারী রাসেল বিন সোলায়মান বিজয়ী হিসেবে সম্মাননা গ্রহণ করেন।

অনুষ্ঠানে সিউলের বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রতিনিধি ফাহাদ আব্দুল্লাহ,  আনসান ফরেন সাপোর্ট সেন্টারের বাংলাদেশী প্রতিনিধি সুমি বড়ুয়া সহ কোরিয়ায় অবস্থানরত বাংলাদেশী ব্যবসায়ী বৃন্দ ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং কোরিয়ার বিভিন্ন এলাকা থেকে নিবন্ধনকৃত সর্বমোট ১১০ জন বাংলাদেশি তরুণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। 

অনুষ্ঠানে বক্তারা নতুন উদ্যোক্তা তৈরীর লক্ষ্যে এজেন্ট ব্যাংকিং সম্পর্কিত প্রেজেন্টেশন, অনলাইন ব্যবসা সম্পর্কিত প্রেজেন্টেশন, সেইসাথে কোরিয়ায় বিজনেস ভিসা অর্জনের যোগ্যতা ও নিয়ম-নীতি সংক্রান্ত বিষয়ে আলোচনা করেন।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়ার উদ্যোগে উদ্যোক্তা বিষয়ক ট্রেনিং কার্যক্রম চালু করার বিষয়ে তথ্য ও উপাত্ত তুলে ধরা হয়। পরে উপস্থিত সবাইকে ইপিএস বাংলার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। 

ইপিএসে আসা সকল বাংলাদেশীদেরকে অনুষ্ঠানে যারা বিজয়ী হয়েছেন তাঁদেরকে অনুসরণ করতে পরামর্শ দিয়ে ইপিএস বাংলা নেতৃবৃন্দ বলেন, সফল উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেকে গড়ে তুলতে তাঁদের অনুষ্ঠান যদি সামান্য অবদান রাখতে পারে তবে সেটাই হবে ইপিএস বাংলা কমিউনিটি ইন কোরিয়া'র স্বার্থকতা। 

[media type="image" fid="151317" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

উক্ত অনুষ্ঠান আয়োজনের স্পন্সর হিসেবে সহযোগিতায় ছিল জি-মানি ট্রান্স, বিডি হাউস, এস এন ফুড, মাই ট্রিপ কে আর, অলটপ শিপিং ও কোরিয়া ফরেন ওয়ার্কার্স সাপোর্ট সেন্টার।

এরপর কমিউনিটির সভাপতি ফারুক আহমেদের সমাপনী বক্তব্য এবং সকল অতিথিদের দেশীয় স্বাদের সুস্বাদু মধ্যাহ্নভোজন পরিবেশনের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

আমারসংবাদ/এআই