সংকট নিরসনে খালেদা জিয়ার তিন দফা

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া চলমান সংকট নিরসনের লক্ষ্যে গ্রহণযোগ্য সরকারের অধীনে সংসদ নির্বাচনসহ তিন দফা দাবি পেশ করেছেন।

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানে নিজের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব দাবি জানান তিনি।

বিএনপি চেয়ারপারসনের দাবি তিনটি হলো-
ক.  জনগণের গণতান্ত্রিক আন্দোলন দমনের উদ্দেশ্যে সারা দেশে যেসব নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের অবিলম্বে মুক্তি দিতে হবে। গুম, খুন ও বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড বন্ধ করতে হবে। পুলিশি ও যৌথ বাহিনীর হয়রানি বন্ধ করতে হবে, নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে দায়ের করা হয়রানিমূলক সব মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করতে হবে। বিচারবহির্ভূত প্রতিটি হত্যাকাণ্ডের সুষ্ঠু ও বিশ্বাসযোগ্য তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তিদের শাস্তি দিতে হবে।

খ. সভা-সমাবেশ-মিছিলসহ রাজনৈতিক কর্মকাণ্ডের ওপর আরোপিত সব প্রকার বিধিনিষেধ অবিলম্বে প্রত্যাহার করতে হবে।

গ. সবার কাছে গ্রহণযোগ্য সরকারের অধীনে সবার অংশগ্রহণে অনতিবিলম্বে জাতীয় সংসদের অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য সুনির্দিষ্ট তারিখের মধ্যে সংলাপের আয়োজন করতে হবে।

খালেদা জিয়া বলেন, ‘আমাদের বিশ্বাস, এই প্রক্রিয়াতেই আমরা সমস্যা সমাধানের পথে এগিয়ে যেতে পারব। আন্দোলনকে দ্রুত নিয়ে আসতে পারব শান্তিপূর্ণ সমঝোতার পথে।’

বিএনপি চেয়ারপারসন আরো বলেন, ‘জীবনের এই প্রান্তে ক্ষমতা আমার কাছে বড় কিছু নয়। দেশবাসীর ভালোবাসায় সিক্ত হয়ে আমি অতীতে কয়েকবার দেশ পরিচালনার সুযোগ পেয়েছি। প্রিয় সেই দেশবাসীর জন্য তাদের ভোটাধিকার ও গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনতেই আমরা লড়াই করছি। এই আন্দোলন কোনো ব্যক্তির বিরুদ্ধে কোনো ব্যক্তির নয়। কোনো দলের বিরুদ্ধে কোনো দলের নয়। এ আন্দোলন আদর্শের, এ আন্দোলন মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠার।’