‘নির্বাচনের আগে একটু সমস্যা হতেই পারে’

‘নির্বাচনের আগে একটু সমস্যা হতেই পারে’

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভি বলেছেন, আগামী ১৬ জানুয়ারি মানুষ ভোট দেবে। আর মাত্র ২ দিন বাকি। নির্বাচনের আগে একটু সমস্যা হতেই পারে। আমি মনে করি এজন্য প্রশাসন অত্যন্ত সচেতন। তারা এগুলো দেখাশোনা করবে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) সকালে শহরের পশ্চিম দেওভোগ এলাকায় গণসংযোগ চালানোর সময় সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

ভোটের মাঠে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির বিষয়ে আইভি বক্তব্য, 'আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি যদি অবনতির দিকে যায় তাহলে প্রশাসনতো আছেই। এখানে যৌথ প্রশাসন কাজ করছে, এটা তারা দেখবে। আমার এটা দেখার সময় নেই। আমার এখন জনগণের কাছে যেতে হবে। জনতার ভোট চাইতে হবে।

তিনি বলেন, আমার ভোটাররা উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে যাবে। এর আগেও তিনটা নির্বাচন হয়েছে। সেখানেও টানটান উত্তেজনা ছিলো। কিন্তু দিন শেষে,  রাত শেষে সবাই ভোট দিতে গেছে। পরিবেশ খুব সুন্দর ছিলো।

এবারের নির্বাচনে নতুন ভোটারদের ভোট পাওয়ার প্রত্যাশা করে আইভি বলেন, নতুন প্রজন্ম মনে করে আমি সততা দিয়ে, ইমানের সহিত, নিষ্ঠা দিয়ে, দলের কর্মী হিসাবে দায়িত্ব পালন করেছি। তদ্রুপ দল-মতের ঊর্ধ্বে উঠে নারায়ণগঞ্জবাসীর সেবা করেছি। নতুন ভোটাররা এগুলো পছন্দ করে। আমি পরিষ্কারভাবে, স্বচ্ছভাবে কথা বলি।  মিথ্যার আশ্রয় কখনো নেই না। এজন্য নতুন ভোটারা আমাকেই ভোট দেবে।

নেতা-কর্মীদের ধড়-পাকড়ের বিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকারের অভিযোগ প্রসঙ্গে আইভির বক্তব্য, 'কাকে গ্রেপ্তার করছে আমি জানি না। সেটা আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানে। আমি সহিংসতা করি না। কাউকে কিছু করতে নির্দেশও দেই না।

তিনি আরও বলেন, বিএনপির এক নেতাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে এটা শুনেছি। উনার নামে হেফাজতের মামলা ছিল। আমি তো সারাদিন ব্যস্ত। আমি কোনো সহিংসতার সঙ্গে জড়িত না। কখনো কাউকে বলিনি ওকে ধরেন, ওইটা করেন। আমি চাই ভোট কেন্দ্র যেন পরিষ্কার থাকে, কোনো সন্ত্রাসী যেন ঝামেলা লাগাতে না পারে। ভোটাররা যেন ঠিকমত ভোট দিতে যেতে পারে।

নতুন ভোটাররা তাকে কেন ভোট দিবে এমন প্রশ্নের উত্তরে আইভী বলেন, নতুন ভোটাররা অনেক সচেতন। ওরা যেমনটা চায়, আধুনিক নগরী, খোলা ময়দান, খেলার মাঠ। আমি এ ব্যাপারে অনেক কাজ করেছি। ভবিষ্যতেও করবো। আমি সততা, নিষ্ঠার সঙ্গে যেমন আমার দলের কাজ করেছি তেমনি দলমতের ঊর্ধ্বে উঠে নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য কাজ করেছি। এগুলা নতুন ভোটাররা পছন্দ যে, আমি পরিষ্কারভাবে কথা বলি, আমার মধ্যে স্বচ্ছতা আছে, মিথ্যার আশ্রয় নেই না। এজন্য নতুন ভোটাররা আমাকে ভোট দিবে।

তিনি বলেন, সরকারদলীয় প্রার্থী হিসাবে বেশি সুবিধা কখনো পাইনি, এবারও পাচ্ছি না।

আমারসংবাদ/এআই