Amar Sangbad
ঢাকা মঙ্গলবার, ২৪ মে, ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

প্রকল্পগুলোর গতি বাড়াতে হবে

জানুয়ারি ১৯, ২০২২, ০৮:৩০ পিএম


 প্রকল্পগুলোর গতি বাড়াতে হবে

গত অর্থবছরের তুলনায় কম ব্যয় হয়েছে চলতি অর্থবছরের এডিপিতে। চলতি অর্থবছর এডিপি ধরা হয়েছে দুই লাখ ২৫ হাজার ৩২৪ কোটি টাকা। ছয় মাসে এডিপি ব্যয় হয়েছে মাত্র ৩৪ হাজার ২৪৯ কোটি টাকা। 

গত অর্থবছরের একই সময়ে এডিপিতে ব্যয় হয়েছিল ৩৬ হাজার ২১৯ কোটি টাকা। ২০২১-২২ অর্থবছরের মাঝামাঝি এসে অগ্রগতির হার নিয়ে অর্থ বিভাগ যে প্রতিবেদন তৈরি করেছে, তাতে দেখা যায়, অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে সরকার ব্যয় করতে পেরেছে মাত্র এক লাখ ৪৯ হাজার ৮১৬ কোটি টাকা। 

সেই হিসাবে বাজেট বাস্তবায়িত হয়েছে মাত্র ২৫ শতাংশ, যা গত অর্থবছর ছিল ২৭ শতাংশ। বাজেট বাস্তবায়ন করতে হলে সরকারকে অর্থবছরের বাকি ছয় মাসে ৭৫ শতাংশ বা চার লাখ ৫২ হাজার ৯৫১ কোটি টাকা ব্যয় করতে হবে। এ অবস্থায় বাজেট বাস্তবায়নে গতি বাড়নো ছাড়া উপায় নেই। 

মূলত, বাজেট হচ্ছে সরকারের এক বছরের আয়-ব্যয়ের আগাম হিসাব। সেবা থেকে শুরু করে বিভিন্ন খাতে রাষ্ট্রের নাগরিকরা যে সেবা ও উন্নয়ন পেতে চায় বা রাষ্ট্র যে সেবা নিশ্চিত করতে চায়, তা এই বাজেটের মধ্য দিয়ে নির্ধারিত হয়। বাজেটে যে বরাদ্দ দেয়া হয়, তার ওপর নির্ভর করে দেশের উন্নয়ন কর্মকাণ্ড। 

শুধু অবকাঠামোগত নয়, সব ধরনের উন্নয়নই বাজেটের ওপর নির্ভরশীল। দেশের শিল্প, বাণিজ্য, শিক্ষা, স্বাস্থ্যসহ সব খাতেই বরাদ্দ থাকে বাজেটে। বাজেট বাস্তবায়নের ওপর নির্ভর করে দেশের অর্থনীতির ভালো-মন্দ। আর বাস্তবায়ন নির্ভর করে সুশাসন ও দক্ষ ব্যবস্থাপনার ওপর। 

অবশ্য গত দুই বছর করোনার অভিঘাতে অনেক প্রকল্পই বাধাগ্রস্ত হয়েছে। ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণার আগে মার্চে দেশে করোনার প্রাদুর্ভাব শুরু হয়। ফলে উন্নয়নকাজ অনেকটাই স্থবির ছিল। চলতি ২০২১-২২ অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে করোনা নিয়ন্ত্রণে ছিল। ব্যবসা-বাণিজ্যও ধীরে ধীরে ঘুরে দাঁড়িয়েছে। 

তারপরও আগের অর্থবছরের তুলনায় চলতি অর্থবছরের বাজেট বাস্তবায়নে ২ শতাংশ পিছিয়ে আছে অর্থ মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশ এখন সত্যিকার অর্থেই এক ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছে। অর্থনীতিতে করোনার বিরূপ প্রভাব পড়েছে। জীবনযাত্রার ব্যয় অনেক বেড়ে গেছে। বাজার ঊর্ধ্বমুখী। কারণে-অকারণে বাড়ছে জিনিসপত্রের দাম। নতুন কর্মসংস্থান নেই। করোনাকালে বেড়েছে বেকারত্ব।

 এ দেশের মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত উভয় শ্রেণির মানুষের আয় কমেছে। এ অবস্থায় দেশের বেশির ভাগ মানুষের জীবনে কিছুটা স্বাচ্ছন্দ্য দেয়াই এখন সরকারের জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বাজেট বাস্তবায়নে সরকারকে দক্ষতার পরিচয় দিতে হবে। গতি আনতে হবে উন্নয়ন প্রকল্পগুলোতে। তা নাহলে মূল্যস্ফীতি নাগালের বাইরে চলে যাবে এবং অর্থনীতির চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় বেগ পেতে হবে।