রোগী দেখতে যাওয়ার ফজিলত ও সুন্নাহ

অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে যাওয়ার অনেক ফজিলত রয়েছে। হজরত আলী রা. বর্ণনা করেন, আমি রাসুলকে সা. বলতে শুনেছি, যে ব্যক্তি সকালবেলা কোনো অসুস্থ মুসলমানকে দেখতে যায়, সত্তর হাজার ফেরেশতা বিকাল পর্যন্ত তার জন্য দোয়া করতে থাকে। আর বিকালে রোগী দেখতে গেলে সকাল পর্যন্ত সত্তর হাজার ফেরেশতা দোয়া করে। তিরমিজি : ৯৬৭

তিরমিজির অপর হাদিসে এসেছে, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, যে কোনো অসুস্থ ব্যক্তি কিংবা কোনো মুসলমান ভাইকে দেখতে যায়, তখন একজন ঘোষক তার জন্য ঘোষণা করতে থাকে, হে আল্লাহর বান্দা! তুমি আনন্দিত হও। তোমার পদবিক্ষেপ বরকতময় হোক। জান্নাতে তুমি একটি মর্যাদাপূর্ণ স্থান লাভ করো।

নিচে অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে যাওয়ার কতিপয় সুন্নাহ উল্লেখ করা হলো-

১. অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে গিয়ে প্রথমে তাকে সালাম দিতে হবে অতঃপর তার শরীর সম্পর্কে জানতে চাইতে হবে।

২. অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে গিয়ে অনেকক্ষণ সেখানে অবস্থান করা যাবে না। বায়হাকি

৩. অসুস্থ ব্যক্তিকে অনুপ্রাণিত করতে হবে যাতে করে সে নিজের ব্যাপারে হতাশ ও নিরাশ হয়ে না যায়। তিরমিজি
৪. অসুস্থ ব্যক্তির কাছে গিয়ে নিম্নোক্ত দোয়া পাঠ করতে হবে- لا بأس طهور إن شاء الله অর্থ: ভয় করো না; আল্লাহ চান তো এই অসুস্থতা তোমার গুনাহের কাফফারা হবে। বুখারি।

৫. অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে গিয়ে নিম্নোক্ত দোয়া সাতবার পাঠ করতে হবে-

أسأل الله العظيم رب العرش العظيم أن يشفيك অর্থ: আমি আরশের মালিক মহান আল্লাহর নিকট প্রার্থনা করছি তিনি যেনো তোমাকে সুস্থ করে দেন। আবু দাউদ

ইবনু আব্বাস রা. থেকে বর্ণিত, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, যে ব্যক্তি এমন রোগীকে দেখতে গেলো যার অন্তিম সময় আসেনি, সে যেনো তার সামনে সাতবার উপরোক্ত দোয়াটি পাঠ করে; তাহলে তাকে নিশ্চয়ই রোগমুক্তি দেয়া হবে। আবু দাউদ: ৩১০৬

৬. সম্ভব হলে অসুস্থ ব্যক্তির জন্য উপহারস্বরূপ কিছু নিয়ে যেতে হবে। আর যদি প্রয়োজন হয়, তাকে অর্থনৈতিকভাবে সহযোগিতা করতে হবে; কেননা রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, সর্বোত্তম ব্যক্তি সে, যে মানুষের উপকার করে।

৭. অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে যাওয়ার পেছনে একমাত্র আল্লাহকে খুশি করার উদ্দেশ্য থাকতে হবে। এতে রাজনৈতিক, সামাজিক কিংবা অন্য কোনো উদ্দেশ্য হাসিলের ইচ্ছা থাকা যাবে না।

৮. অসুস্থ ব্যক্তিকে পানাহার করানোর জন্য জোর করা যাবেনা। মিশকাত।

৯. অসুস্থ ব্যক্তির কাছ থেকে দোয়া চাইতে হবে, কেননা হাদীসে এসেছে, অসুস্থ ব্যক্তির দোয়া খুব দ্রুত কবুল হয়। বায়হাকী

১০. অসুস্থ ব্যক্তিকে দেখতে গিয়ে নিজের জন্য দোয়া করতে হবে। হাদিসে এসেছে, যে ব্যক্তি কোনো রোগীকে দেখে নিম্নোক্ত দোয়া পাঠ করবে, তাকে আল্লাহ তায়ালা ওই অসুস্থতা থেকে নিরাপদ রাখবেন-

الحمد لله الذي عافاني مما ابتلاك به وفضلني على كثير ممن خلق تفضيلا অর্থ: সকল প্রশংসা আল্লাহ তায়ালার যিনি আমাকে তোমার অসুস্থতা থেকে নিরাপদ রেখেছেন, এবং তাঁর অনেক সৃষ্টির ওপর আমাকে শ্রেষ্ঠত্ব দান করেছেন। মিশকাত

আমারসংবাদ/আরএইচ