ওসমানীনগরে গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

সিলেটের ওসমানীনগরে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় সাজনা বেগম (২৭) নামের এক গৃহবধূর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সাজনা উপজেলার গোয়ালাবাজার ইউনিয়নের ব্রাহ্মনগ্রামের অটোরিকশা চালক মিজানুর রহমানের স্ত্রী ও একই উপজেলার তাজপুর ইউনিয়নের ষাইটদা গ্রামের মৃত আছন আলীর মেয়ে। 

একাধিক সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৩ মাস আগে সাজনা বেগম সিজারের মাধ্যমে এক পুত্র সন্তানের জন্ম দেন। পুত্রের জন্মের পর থেকে তার মানসিক সমস্যা দেখা দিলে তিনি স্থানীয় এক ডাক্তারের চিকিৎসাধীন ছিলেন। 

বুধবার (১২ মে) সকাল ৭টার দিকে মিজানুর রহমান গ্যাস আনতে অটোরিকশা নিয়ে বাড়ি থেকে বেরিয়ে গেলে সাজনা ঘরের দরজা বন্ধ করে নবজাতককে নিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে শিশুটির কান্না শোনে বাড়ির অন্যরা দরজায় ডাকাডাকি করেও কোন সাড়া পাচ্ছিলেন না। পরে দেওয়ালের ফাঁক দিয়ে তারা ঘরের তীরের সাথে সাজনার ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে দরজা ভেঙ্গে সাজনার লাশ উদ্ধার করে।

সাজনার স্বামী মিজানুর রহমান বলেন, প্রায় আড়াই বছর আগে সাজনার সাথে আমার বিয়ে হয়। তিনমাস পূর্বে একমাত্র সন্তানের জন্মের পর সাজনার মধ্যে মানসিক সমস্যা দেখা দেয়। এজন্য তিনি ডাক্তারের চিকিৎসাধীন ছিলেন। বুধবার আমি অটোরিকশার জন্য গ্যাস আনতে গেলে সাজনা ঘরের দরজা বন্ধ করে গলায় ফাঁস দেন। এখন মাতৃহীন ৩ মাসের শিশুকে কীভাবে বাঁচাবো বুঝতে পারছি না।

ওসমানীনগর থানার ওসি শ্যামল বণিক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এটি আত্মহত্যা বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। পোস্টমর্টেম রিপোর্ট হাতে আসার পর বিস্তারিত জানা যাবে।

আমারসংবাদ/কেএস