Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১১ আগস্ট, ২০২২, ২৬ শ্রাবণ ১৪২৯

‘জীবন দিবো তবুও ভোট ডাকাতি হতে দেবো না’

মির্জাগঞ্জ (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি

নভেম্বর ২৭, ২০২১, ০২:৪৫ পিএম


‘জীবন দিবো তবুও ভোট ডাকাতি হতে দেবো না’

পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায় তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিতব্য ইউপি নির্বাচনে মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নে কেন্দ্র দখল করে ভোট ডাকাতির চেষ্টা রুখে দিতে কাফনের কাপড় পড়ে কর্মী-সমর্থকদেরকে কেন্দ্রে অবস্থান নেয়ার নির্দেশ দিয়ে ঘোষণা দিয়েছেন উপজেলার ২নং মির্জাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী অ্যাডভোকেট মোঃ আবুল বাসার নাসির হাওলাদার। 

কর্মী-সমর্থকদের শরীরে “কাফনের কাপড়” পরিধান করা এমন একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করার পর উপজেলাজুড়ে আলোচনার ঝড় উঠেছে।

২ নং মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ মনোনীত ২ ও ৩ জন স্বতন্ত্র সহ ৫জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বীতা  করছেন। 

এরমধ্যে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মনিরুল হক লিটন (নৌকা) ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক স্বতন্ত্র প্রার্থী এডভোকেট মোঃ আবুল বাসার নাসির হাওলাদার (আনারস) এর মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে। 

এরই ধারাবাহিকতায় আগামীকাল অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে ভোট কেন্দ্র দখল করে ব্যালটে সিল মেরে জয় ছিনিয়ে নেয়ার শংকা প্রকাশ করেন স্বতন্ত্র প্রার্থী।

চেয়ারম্যান পদে স্বতন্ত্র প্রার্থী অ্যাডভোকেট মোঃ আবুল বাসার নাসির হাওলাদার বলেন, রোববার (২৮ নভেম্বর) অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী ক্ষমতার প্রভাবে খাটিয়ে কেন্দ্র দখল করে জয় ছিনিয়ে নেয়ার পায়তারা করছে। কেন্দ্র দখল করে ভোট ডাকাতি রুখতে আমি ও আমার কর্মী-সমর্থকরা কাফনের কাপড় পড়ে ভোট কেন্দ্রে অবস্থান করবো। জীবন দেবো তবুও কেন্দ্র দখল করে ভোট ডাকাতি হতে দেবো না।

উল্লেখ্য, মির্জাগঞ্জ ইউনিয়নে ১০টি ভোট কেন্দ্রে ভোট গ্রহন করা হবে। মোট ভোটর সংখ্যা ১৮ হাজার ৯৫৫ জন। এরমধ্যে নারী ভোটার ৯ হাজার ৩৮৪জন এবং পুরুষ ভোটার ৯ হাজার ৫৭১ জন। 

আমারসংবাদ/এআই