ভারতকে ১১০ রানে থামিয়ে দিল নিউজিল্যান্ড

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুপার টুয়েলভে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষেও বড় সংগ্রহ করতে পারেনি ভারত। কিউইদের বোলিং তোপে ধুঁকতে থাকা ভারত নির্ধারিত ওভার শেষে ১১০ রান সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়।

রোববার (৩১ অক্টোবর) দুবাই ক্রিকেট গ্রাউন্ডে কিউইদের বিপক্ষে বাঁচা-মরার ম্যাচে টস হেরে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুতেই চরম বিপর্যয়ে পড়ে ভারত। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ব্যাট হাতে ব্যর্থ টিম ইন্ডিয়ার ব্যাটাররা। শুরুর ধাক্কা শেষ পর্যন্ত আর কাটিয়ে উঠতে পারেনি বিরাট কোহলিরা। 

শেষ পর্যন্ত নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে তাদের ইনিংস থেমেছে ৭ উইকেট হারিয়ে মাত্র ১১০ রানে। অর্থাৎ কেন উইলিয়ামসনদের জিততে হলে করতে হবে ১১১ রান।

বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে উদ্বোধনী জুটি ব্যর্থ হওয়ায় এদিন কিছুটা রদবদল ছিল ওপেনিং জুটিতে। চিরাচরিত ওপেনার রোহিত শর্মার জায়গায় শুরুতে সুযোগ দেওয়া হয় তরুণ ইশান কিশানকে। তবে বিশ্বমঞ্চে হতাশই করলেন তিনি।

ট্রেন্ট বোল্টের বলে ড্যারেল মিচেলের কাছে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন ইশান। আউট হওয়ার আগে করেছেন ৮ বলে ৪ রান। তবে ইশানের বিদায়ের পর আরেকটা উইকেট পেতে পারতো বোল্ট। ব্যাট করতে নামা রোহিত প্রথম বলেই উড়িয়ে মারতে গিয়ে অ্যাডাম মিলানের ভুলের খেসারতে অল্পের জন্য বেঁচে গেছেন।

পরে ঝড় তোলার আভাস দিয়ে ক্যাচের ফাঁদে পড়েছেন কেএল রাহুল। টিম সাউদির বলে ড্যারেল মিচেলের হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেছেন রাহুল। করেছেন ১৬ বলে ১৮ রান। সবচেয়ে মজার ব্যাপার হচ্ছে, ভারতের প্রথম দুটি ক্যাচের দুটিই তালুবন্দি করেছেন ড্যারেল মিচেল।

৮ম ওভারে রোহিত শর্মাকে ফেরান ইশ সোধি। ১টি চার ও ১টি ছক্কার সাহায্যে ১৪ বলে ১৪ রান করে গাপটিলের হাতে ধরা পড়েন ‘হিটম্যান’। পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচের পর আজকের ম্যাচেও ব্যর্থ এই ওপেনার ।

নিউজিল্যান্ডের বোলারদের আঁটসাট বোলিংয়ে ১০ ওভারেও দলগত ৫০ রান টপকাতে পারেনি ভারত। আগের ম্যাচে পাকিস্তানের বিপক্ষে দুর্দান্ত হাফসেঞ্চুরি হাঁকালেও এদিন ব্যর্থ দলীয় কাপ্তান বিরাট কোহলি।

ইশ সোধির দ্বিতীয় শিকারে পরিণত হন তিনি। ১৭ বলে ৯ রান করে বোল্টের হাতে ধরা পড়েন ভারত অধিনায়ক। সবচেয়ে অবাক করা বিষয় গোটা ইনিংসে তিনি কোনো বাউন্ডারি মারতে পারেননি।

কোহলির পর একই পথ ধরলেন রিশভ পন্তও। অ্যাডাম মিলানের বলে সরাসরি বোল্ড আউট হন তিনি। সাজঘরে ফেরার আগে ১৯ বলে করেছেন ১২ রান।

রিশভের পর হার্দিক পাণ্ডিয়া এবং শার্দুল ঠাকুররাও দলের বিপর্যয়ে হাল ধরতে ব্যর্থ। 

আমারসংবাদ/জেআই