Amar Sangbad
ঢাকা বুধবার, ০৬ জুলাই, ২০২২, ২২ আষাঢ় ১৪২৯

যেমন হবে বিশ্বকাপে পাকিস্তানের তৈরি বল

নিজস্ব প্রতিবেদক

জুন ২৩, ২০২২, ০৬:৪৬ পিএম


যেমন হবে বিশ্বকাপে পাকিস্তানের তৈরি বল

ফুটবলের মহাযজ্ঞ বিশ্বকাপ শুরু হচ্ছে নভেম্বরে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশ কাতার ইতোমধ্যে মাঠের প্রস্তুতি, মাসকট উন্মোচনসহ সব আয়োজন সেরে রেখেছে 

ম্যাচের জন্য বলগুলোও তৈরি করে ফেলা হয়েছে।

জানা গেছে, এবারের বিশ্বকাপে যে বল দিয়ে খেলবেন লিওনেল মেসি, নেইমার, ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর সেগুলো তৈরি করেছে পাকিস্তান। এ বলের নাম দেওয়া হয়েছে - ‘আল রিহলা’। 

সম্প্রতি পাকিস্তানের শিয়ালকোট চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (এসসিসিআই)- এর সিনিয়র সহসভাপতি শেখ জোহাইব রফিক শেঠি জানিয়েছেন বিষয়টি। 

বলগুলো তৈরি হয়েছে শিয়ালকোটের একটি কারখানায়। 

সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে এসসিসিআই নেতা রফিক বলেন, এবারের ফিফা বিশ্বকাপে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যবহার করা হবে পাকিস্তানের তৈরি বল। এ খবরে বিশ্বজুড়ে পাকিস্তানের এই শহরের মর্যাদা বহুগুণে বেড়ে যাবে। 

আল রিহলা বলের বৈশিষ্ট্যগুলোর কথাও জানান শেখ জোহাইব রফিক শেঠি। 

তিনি বলেন, বলটি পরিবেশবান্ধব।এই বল বানাতে ব্যবহার করা হয়েছে জৈব ও পুনর্ব্যবহৃত উপাদান। এতে কোনো দ্রাবক রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়নি। বরং পানিভিত্তিক এমন রাসায়নিক ব্যবহার করা হয়েছে, যা পরিবেশ দূষিত করবে না। ২০ প্যানেল বিশিষ্ট এই বল ইতোমধ্যে বিশ্বসেরা হিসেবে ঘোষিত হয়েছে।

বলের সেলাইয়ে গত বিশ্বকাপের টেকনলজির সহায়তা নেওয়া হয়েছে বলেন জানান রফিক।

তিনি বলেন, ঐতিহ্যগতভাবে বিশ্বকাপের ফুটবল হাতে সেলাই করা হতো। তবে ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে থার্মোস বাইন্ডিংয়ের বল ব্যবহার করা হয়। এরপর রাশিয়া বিশ্বকাপেও একই ধরনের বল ব্যবহার করা হয়। এবারের বিশ্বকাপ বলগুলোও একইভাবে তৈরি। 

কাতার বিশ্বকাপের অল রিহালা বল শিয়ালকোটে তৈরি করেছে ফরওয়ার্ড স্পোর্টস নামের প্রতিষ্ঠান। প্রতি মাসে এই কোম্পানি বানায় ৭ লাখ ফুটবল। 

ফরোয়ার্ড  স্পোর্টসের ক্রীড়া ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাসান মাসুদ বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের গণমাধ্যম দ্য নিউজকে বলেন, অল রিহালা বল যা কাতার বিশ্বকাপে ব্যবহার করা হবে খুবই বেশি প্রতিক্রিয়াশীল এবং দ্রুতগামী। এই বলে ব্যবহৃত ২৫ শতাংশ উপাদান টেকসই এবং রি-সাইকেল করা উপাদান দিয়ে তৈরি। কাতারে বিশ্বকাপে ৩০০০ ফুটবল ব্যবহার করা হবে, যার মূল্য ৮ মিলিয়ন ডলার। বলটির ওজন ৪২৫-৪৪৫ গ্রাম, এটি আকারে ৬৮.৮ সেমি থেকে ৬৯.৩ সেমি পর্যন্ত। 

জানা গেছে, রাশিয়া বিশ্বকাপের ‘টেলস্টার ১৮’ বলও তৈরির স্বত্বও পেয়েছিল পাকিস্তানের এই প্রতিষ্ঠান।

ক্রিকেটে পরাশক্তি হলেও ফুটবলে পাকিস্তান অনেক পিছিয়ে। ফিফা র্যাংকিংয়ে এই মুহূর্তে ২০১ নম্বরে আছে পাকিস্তান। খেলায় না পারলেও তবে দেশটির তৈরি বল এখন বিশ্বসেরা।

তথ্যসূত্র: দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল।