দুর্বলচিত্তের মানুষ দূরে থাকুন!

বলিউড গতানুগতিকভাবে বিভিন্ন জনরার সিনেমা নির্মাণে মুন্সিয়ানা দেখিয়ে এলেও, হরর ঘরানার ছবিতে তেমন ভিন্নতার স্বাদ পাওয়া যেত না। ঘুরিয়ে ফিরিয়ে সেই একই মাপের কাহিনী, পুরোটা জুড়ে যৌনতা ও অশ্লীলতা, খাপছাড়া গল্প, বাজে পরিচালনা ইত্যাদি সমস্যায় জর্জরিত বলিউডের হরর জনরা হাতেগোনা কয়েকটা সিনেমা বাদে মনে রাখার মতো কিছু উপহার দিতে পারেনি। প্রায় সময়ই হরর সিনেমার মোড়কে উপহার দেয়া হয়েছে বস্তাপচা কন্টেন্ট, যা নিয়ে সমালোচনার কোনো অন্ত ছিল না।

২০১৮ সালে মুক্তি প্রাপ্ত দুই সিনেমা 'পরী' ও 'তুম্বাড়' একশো আশি ডিগ্রি পাল্টে দিয়েছিল বলিউডের হরর ঘরানার চিরাচরিত চিত্রপট। পরী সিনেমার টিজার বের হবার পরই অনেকে আন্দাজ করতে পেরেছিল, এ ছবির গল্প অতিপ্রাকৃত রূপকথার আদলে আর দশটা হরর মুভির মতো সাজানো নয়। নতুন কিছু আসতে যাচ্ছে, নতুনত্বের স্বাদ পেতে যাচ্ছে সিনেপ্রেমীরা। এবং সত্যিই তাই ঘটেছিল। এরপর আবার হরর মুভিপ্রেমীদের দীর্ঘ অপেক্ষা। কিন্তু সবুরকা ফল মিঠাই হল। সদ্য মুক্তি পাওয়া ইমরান হাশমির ডেবুক দেখে যখন হতাশ দর্শক সেই সময় আশা জাগালো ছোরি। 

আপনি যদি দুর্বলচিত্তের মানুষ হয়ে থাকেন তাহলে ছোরি দেখার সাহস না করাই ভালো। আর যদি খুব ইচ্ছে করে তাহলে আপনার পুরো পরিবারকে নিয়ে দেখতে পারেন। বলে রাখা ভালো এইটা একটা ফ্যামিলি মুভি।