মালয়েশিয়ায় প্রথম ওমিক্রন রোগী

মালয়েশিয়ায় কোভিড-১৯ ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রনের প্রথম রোগী শনাক্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশিটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী- খায়েরি জামালউদ্দিন।

শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) এক বিশেষ সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

প্রথম ধাপে, ওমিক্রন ভেরিয়েন্টের সাথে জড়িত কেস সনাক্তকরণের পরে, বেশ কয়েকটি দেশের ভ্রমণকারীদের ল্যাংকাউই আন্তর্জাতিক ভ্রমণে অস্থায়ীভাবে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

দেশগুলো হলো যুক্তরাজ্য, পর্তুগাল, নেদারল্যান্ডস, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, দক্ষিণ কোরিয়া, হংকং, ইসরায়েল, ইতালি, জার্মানি, ডেনমার্ক, সুইডেন, নাইজেরিয়া, বেলজিয়াম, জাপান, ব্রাজিল, নরওয়ে, চেক প্রজাতন্ত্র, ফ্রান্স বা রিইউনিয়ন দ্বীপ, অস্ট্রিয়া, স্পেন, সৌদি আরব, ঘানা, আয়ারল্যান্ড, সংযুক্ত আরব আমিরাত এবং যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া। এই নিষেধাজ্ঞাটি তাদের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য যারা ১৪ দিনের মধ্যে এই দেশগুলিতে ভ্রমণ করেছে।

দ্বিতীয় ধাপের অধীনে থাকা দেশগুলি, যে দেশগুলি ওমিক্রন বৈকল্পিকের উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে, কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোনও মামলার রিপোর্ট করতে পারেনি তারা হল রাশিয়া, জর্জিয়া, পোল্যান্ড, ইউক্রেন, রোমানিয়া, স্লোভাকিয়া, উত্তর মেসিডোনিয়া, গার্নসি, ক্রোয়েশিয়া, ফ্রেঞ্চ গুয়ানা, ফিলিপাইন, লিবিয়া, জর্ডান, বাংলাদেশ, অ্যাঙ্গোলা, এসওয়াতিনি, লেসোথো, মালাউই, মোজাম্বিক, নামিবিয়া, জাম্বিয়া এবং জিম্বাবুয়ে।

উচ্চ ঝুঁকিতে থাকা দেশ গুলোর নাগরিকদের মালয়েশিয়া প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা করা হয়েছে। 

আমরসংবাদ/কেএস