মালয়েশিয়া প্রবাসীদের সর্বনিম্ন মজুরি কত জানালেন মন্ত্রী 

মালয়েশিয়া প্রবাসীদের সর্বনিম্ন মজুরি কত জানালেন মন্ত্রী 

রোববার (১৯ ডিসেম্বর) বাংলাদেশ থেকে আবারও কর্মী নিতে সমঝোতা স্মারকে সই করেছে মালয়েশিয়া। কুয়ালালামপুরে এই স্মারকে স্বাক্ষর করেন বাংলাদেশের প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ এবং দেশটির মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান। 

প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রী ইমরান আহমদ জানিয়েছেন, মালয়েশিয়ায় সর্বনিম্ন মজুরি ১ হাজার ২০০ রিঙ্গিত হবে, যা বাংলাদেশের টাকায় প্রায় ২৫ হাজার টাকার মতো। দেশটিতে নেয়ার সব খরচ বহন করবেন নিয়োগকর্তা। এছাড়া আরও কিছু সুবিধা পাবেন কর্মীরা। যেমন- 

রিক্রুটমেন্ট এজেন্সি নিয়োগ, মালয়েশিয়ায় নিয়ে যাওয়া ও তাদের আবাসন, কর্মে নিয়োজিত করা, কর্মীর নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর খরচ বহন করবে নিয়োগকর্তা , নিয়োগকর্তা নিজ খরচে মালয়েশিয়ান রিক্রুটিং এজেন্ট নিযুক্ত করতে পারবেন, মালয়েশিয়ায় আসার পর বাংলাদেশি কর্মীর ইমিগ্রেশন ফি, ভিসা ফি, স্বাস্থ্য পরীক্ষার খরচ, ইনস্যুরেন্স–সংক্রান্ত খরচ, করোনা পরীক্ষার খরচ, কোয়ারেন্টিন–সংক্রান্ত খরচসহ সব ব্যয় মালয়েশিয়ার নিয়োগকর্তা বা কোম্পানি বহন করবে, নিয়োগকর্তা কর্মীর মানসম্মত আবাসন, বিমা, চিকিৎসা ও কল্যাণ নিশ্চিত করবেন।

বৃক্ষরোপণ, বাগান, কৃষি, উৎপাদন, পরিষেবা, খনি ও খনন, নির্মাণ এবং গৃহকর্মী নিয়োগের জন্য উন্মুক্ত হবে বলে জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী। 

উল্লেখ্য, দুর্নীতিসহ নানা অভিযোগ তুলে ২০০৯ সালে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নেয়া বন্ধ করে দেয় মালয়েশিয়া। এরপর ২০১৮ সালে প্রবাসী এক বাংলাদেশি ব্যবসায়ীর নেতৃত্বে মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগসাজশে একটি চক্র ১০ এজেন্সিকে নিয়ে সিন্ডিকেট করে শ্রমিকদের কাছ থেকে দুই বছরে ২০০ কোটি রিঙ্গিত হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে। আবারও বন্ধ হয়ে যায় জনশক্তি রপ্তানি। গত সপ্তাহে মালয়েশিয়ার মন্ত্রিসভার বৈঠকে বাংলাদেশ থেকে আবারও শ্রমিক নেওয়ার সিদ্ধান্তে অনুমোদন দেয়া হয়।

আমারসংবাদ/এআই