Amar Sangbad
ঢাকা বুধবার, ২৫ মে, ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

অন্য দেশের হয়ে বিশ্বকাপ খেলেছেন যে তারকারা

নভেম্বর ২৩, ২০২০, ০৯:৪৫ এএম


অন্য দেশের হয়ে বিশ্বকাপ খেলেছেন যে তারকারা

অনেক ক্রিকেট তারকা রয়েছেন যাদের জন্ম এক দেশে অথচ খেলছেন অন্য দেশের জার্সিতে। দুই দেশে ছিল তাদের ভালো শুরু। আমার সংবাদের পাঠকদের পরিচয় করিয়ে দেই সেসব তারকাদের।

[media type="image" fid="98480" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

ইয়ন মরগান: দুইটি দেশের হয়ে সর্বোচ্চ পর্যায়ের ক্রিকেট খেলেছেন ইংল্যান্ডের অধিনায়ক। প্রথমে আয়ারল্যান্ড ও পরে ইংল্যান্ডের জার্সিতে। জন্ম আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনে। সে দেশের হয়ে ২৩টি ওয়ানডেতে ৭৪৪ রান করেছেন। ২০০৯ বিশ্ব টি-টোয়েন্টিতে ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার ডাক মেলে। তখন থেকে ইংল্যান্ডের জার্সিতে খেলে যাচ্ছেন। এখন পর্যন্ত ইংল্যান্ডের জার্সিতে ২২৭ ওডিআইতে ৭দ২২৬ রান করেছেন মরগান।

[media type="image" fid="98482" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

বেন স্টোকস: অলরাউন্ডার হিসাবে বিশ্বের অন্যতম সেরাদের তালিকায় রয়েছেন বেন স্টোকস। অথচ এই অলরাউন্ডারের জন্ম কিন্তু নিউজিল্যান্ডেই। বাবা জেরাল্ড স্টোকস রাগবি খেলেছেন সে দেশের হয়ে। বাবার সঙ্গে খুব ছোটবেলায় ইংল্যান্ডে পাড়ি দেন বেন। এরপর সে দেশের জার্সিতে ১৯ বছর বয়সেই ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে দেয়ার সুযোগ মিলে তার। 

[media type="image" fid="98479" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

জেসন রয়: ইংলিশ ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ওডিআই রান কে করেছেন জেসন রয়। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ১৮০ রান। তবে ইংল্যান্ডে নয়, জেসনের জন্ম দক্ষিণ আফ্রিকার ডারবানে। ১০ বছর বয়সে ইংল্যান্ডে চলে আসে তার পরিবার। ৮০টি ওডিআইতে এই মারকাটারি ব্যাটসম্যানের রয়েছে ৩১৫৩ রান।

[media type="image" fid="98481" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

টম কুরান: বাবা খেলেছেন এক দেশের জার্সিতে। ছেলে খেলছেন অন্য দেশের হয়ে। এমন প্রোফাইল রয়েছে ইংল্যান্ডের অলরাউন্ডার টম কুরানের। টমের বাবা কেভিন কুরান খেলেছিলেন জিম্বাবোয়ের হয়ে।২৪ বছরের অলরাউন্ডার টম ১৭টি ওডিআইতে ১৭৮ রান করেছেন। উইকেট-সংখ্যা ২৭। দক্ষিণ আফ্রিকার কেপটাউনে জন্মানো টম এখন বিশ্বের অন্যতম তরুণ প্রতিভা।

[media type="image" fid="98487" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

জোফরা আর্চার: বিশ্বের নানা প্রান্তের টি-২০ লিগে খেলেছেন জোফরা আর্চার। ইংল্যান্ডের জার্সি গায়ে দিলেও জোফরার জন্ম বার্বাডোজের ব্রিজটাউনে। ইংল্যান্ডের সাসেক্সের হয়ে খেলে সাড়া ফেলে দিয়েছিলেন। এরপর বিবিএল-এ হোবার্ট হ্যারিকেনের হয়ে মাঠে নামেন। আইপিএল খেলেন রাজস্থান রয়্যালসের হয়ে। ৮ ওডিআইতে ১৫ উইকেট নিয়েছেন তিনি।

[media type="image" fid="98486" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

ইমাদ ওয়াসিম: ছোটবেলায় হাত পাকিয়েছিলেন পেসার হিসাবে। তবে এখন স্পিন বোলিংয়ে নাম করেছেন পাকিস্তানের ইমাদ ওয়াসিম। ব্যাট হাতেও কম যান না। তবে পাকিস্তানের হয়ে খেললেও ইমাদের জন্ম হয়েছিল ওয়েলসের সোয়ানসিতে। জন্মসূত্রে ব্রিটিশ ইমাদ ৪৮টি ওডিআইতে ৮২৫ রান ছাড়াও তুলে নিয়েছেন ৩৯ উইকেট।

[media type="image" fid="98483" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

কলিন ডে গ্র্যান্ডহোম: লোয়ার অর্ডারে নেমে মারকাটারি ব্যাট করতে পারেন। সঙ্গে ফাস্ট বোলিংয়ের হাতটাও বেশ ভাল। অলরাউন্ডার হিসাবে নিউজিল্যান্ডের বড় ভরসা কলিন ডে গ্র্যান্ডহোম। তবে কিউইদের হয়ে খেললেও কলিনের জন্ম জিম্বাবুয়েতে। ২০০৪-এ সে দেশের হয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপও খেলেছিলেন। ৩১টি ওডিআইতে ৪৫৮ রান ছাড়াও রয়েছে ২১ উইকেট।

[media type="image" fid="98485" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

উসমান খাঁজা: অস্ট্রেলিয়ার হয়ে খেললেও উসমান খাঁজার জন্ম হয়েছিল পাকিস্তানের ইসলামাবাদে। নিউ সাউথ ওয়েলসের হয়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে কেরিয়ারের শুরু। অস্ট্রেলিয়ার জাতীয় দলে ডাক পেয়েছিলেন ২০১১-তে। অজি দলে তিনি মুসলিম সম্প্রদায়ের প্রথম ক্রিকেটার। ৩৬টি ওডিআইতে ১৩৩৬ রান করেছেন তিনি।

[media type="image" fid="98484" layout="normal" caption="1" infograph="0" parallax="0" popup="1"][/media]

ইমরান তাহির: বিপক্ষ রানের পাহাড় গড়ে ফেলেছে। উইকেট প্রয়োজন! এমন বহু সময় দক্ষিণ আফ্রিকার ক্যাপ্টেন বল তুলে দিয়েছেন ইমরান তাহিরের হাতে। প্রায় সঙ্গে সঙ্গে উইকেটও উপহার দিয়েছেন তিনি। ৪০ বছর বয়সেও ভেলকি দেখাচ্ছেন তার গুগলি দিয়ে। তবে প্রোটিয়াদের হয়ে খেললেও তার জন্ম লাহৌরে। পাকিস্তানের যুব দলের হয়েও খেলেছেন ইমরান। ১০৩ ওডিআইতে নিয়েছেন ১৭০ উইকেট। সঙ্গে রয়েছে ১৫৬ রান।

আমারসংবাদ/এমআর