গুজব ও অপপ্রচার ভাইরাসের চেয়েও ভয়ংকর

গুজব ও অপপ্রচার ভাইরাসের চেয়েও ভয়ংকর বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শনিবার (৯ মে) তার সরকারি বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলন এ কথা বলেন তিনি।

এ সময় ওবায়দুল কাদের বলেন, গুজব ও অপপ্রচারকারীরা কোনো ঘটনা না ঘটলেও তাও রটাচ্ছে।

সেতুমন্ত্রী বলেন, আমরা উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, এক শ্রেণির মানুষ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যম এবং অনলাইনে প্রতিনিয়ত গুজব ছড়িয়ে যাচ্ছেন।

তিনি বলেন, এবার ঈদ এসেছে ভিন্ন প্রেক্ষাপট, ভিন্ন বাস্তবতায়। দেশ পার করছে এক সংকটময় সময়। এই পরিস্থিতিতে আওয়ামী লীগের সব পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ঈদের শপিং না করে এর অর্থ অসহায়, গরীব ও খেটে খাওয়া কর্মহীন মানুষের মাঝে বিতরণ করতে বলবো। এভাবেই এবার আমরা এই ঈদ উদযাপন করতে চাই। চাই ত্যাগের মহিমায় জনগণের সঙ্গে একাত্মতা বোধ করতে।

পাশাপাশি ঈদের কেনাকাটায় সংযম ও পরিমিত হার বজায় রাখতে বিত্তবান ব্যক্তিদের আহ্বান করি। এসময় করোনায় পারিবারিক সহিংসতা উদ্বেগজনক হারে বেড়ে চলেছে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের। এ ধরনের সহিংসতা করোনা বিস্তারে হতে পারে। এজন্য সবাইকে ধৈর্য ধরার আহ্বানও করেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিধি-নিষেধ মেনে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা করার জন্য সবাই ঘরে অবস্থান করছেন, এজন্য ধন্যবাদ জানাই। এই পরিস্থিতিতে মনোবল হারালে চলবে না। করোনা প্রতিরোধের বিষয়গুলো আরো কঠোরভাবে মেনে চলতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতে করোনা পরিস্থিতি আমাদের চেয়েও খারাপ। তারপরও কিছু কিছু ক্ষেত্রে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাওয়ার জন্য লকডাউন শিথিল করছে।

আমেরিকার ৪৭টি অঙ্গরাজ্যের লকডাউন তুলে নিচ্ছে। স্পেন, ইতালিসহ অনেক দেশ অর্থনীতি সচল রাখবে লকডাউন শিথিল করছে। তাই আমাদের সরকার কিছু কিছু ক্ষেত্রে সাধারণ ছুটি শিথিল করেছে, শপিংমল খোলার অনুমতি দিয়েছে। শপিংমলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। সেক্ষেত্রে প্রশাসনের নজরদারি থাকবে।

আমারসংবাদ/জেডআই