নান্দাইলে প্রকাশ্যে মোবাইলে চলছে জুয়া খেলা 

সারাদেশে ক্যাসিনো ও জুয়ার বিরদ্ধে চলমান অভিযানের মধ্যেও চুনোপুটি জুয়াড়িরা অবলম্বন করছে নতুন কৌশল। আড়ালে নয় প্রকাশ্যে মোবাইলে চালাচ্ছে রমরমা লুডু জুয়া। এই ধরনের লুডু জুয়ায় জড়িতেদের বেশির ভাগই ছাত্র ও যুবক। এর প্রভাব বেশ লক্ষণীয়। এর ফলে বিপথগামী হচ্ছে ছাত্র ও যুবসমাজ। জুয়ার টাকা সংগ্রহ করতে জড়াচ্ছে বিভিন্ন অপকর্মে।

নান্দাইল উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের হাট-বাজারের ছোটবড় দোকানে, খেলার মাঠে বা গোপন কোনো ঘরে সকাল থেকে শুরু করে রাত পর্যন্ত চলছে এসব লুডু জুয়া। যার ফলে ছাত্ররা ধাবিত হচ্ছে জুয়া খেলায়। অন্যদিকে সারাদিনের উপার্জিত অর্থ সন্ধ্যার সময় জুয়ার পেছনে ব্যয় করছে যুবকরা।

এই লডু জুয়াসহ বাজিমাতধারী অন্যান্য খেলার মাধ্যমে ছাত্র ও যুবসমাজ নষ্টের পথে যাচ্ছে। মোবাইলে এসব জুয়া খেলাকে বন্ধ করতে না পারলে যুবসমাজ ক্রমান্বয়ে ধ্বংস হয়ে যাবে। একই সাথে পরিবারের মধ্যে কলহ বাড়বে।

মোবাইলে জুয়া খেলার প্রবণতা বেড়েই চলেছে। শুধু লুডু খেলা নয়, বিপিএল ক্রিকেট খেলায় ৩৬৫ বিট নামক জুয়ায় ছাত্র ও যুবসমাজ ঝুঁকে পড়ছে। এমতাবস্থায় বিপথগামী ছাত্র, যুবসমাজকে রক্ষা করতে হলে আমাদের সবাইকে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। সবাই যার যার জায়গা থেকে এর বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুললে এই খেলা নির্মূল করা সম্ভব।

আমারসংবাদ/কেএস