নান্দাইলে লাইসেন্স ছাড়াই বিক্রি হচ্ছে গ্যাস সিলিন্ডার

ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় নীতিমালা লঙ্ঘন করে যত্রতত্র বিক্রি হচ্ছে তরলীকৃত পেট্রোলিয়াম গ্যাসের (এলপিজি) সিলিন্ডার। অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান ছাড়া পেট্রোল জাতীয় দাহ্য পদার্থ বিক্রির বিধান নেই। কিন্তু নীতিমালা উপেক্ষা করেই লাইসেন্স তথা ছাড়পত্র না নিয়েই উপজেলা সদর বাজার সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের হাট-বাজারের অবাধে ও অরক্ষিত এলপিজি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করা হচ্ছে। 

স্থানীয়দের আশঙ্কা, যত্রতত্র এভাবে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রির কারণে যেকোনো মুহূর্তে বিস্ফোরণ ঘটে প্রাণহানির ঘটনা ঘটতে পারে। একই আশঙ্কা সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদেরও। 

সরেজমিনে দেখা গেছে, নান্দাইল উপজেলার পৌর শহর ছাড়াও উপজেলার নান্দাইল চৌরাস্তা বাজার, বনগ্রাম চৌরাস্তা, কানারামপুর, চন্ডিপাশা মোড়, বাশঁহাটি, সিডস্টোর, নান্দাইল রোড, গাংগাইল, পূর্বদরিল্লা, শিমুলতলা, তারেরঘাট ও মুশুল্লী চৌরাস্তা বাজার সহ বিভিন্ন বাজারের বিভিন্ন ধরনের দোকানে বিক্রির জন্য এলপিজি সিলিন্ডার অরক্ষিতভাবে রাখা হয়েছে। এ সব দোকানে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রির লাইসেন্স নেই। 

স্থানীয় ব্যবসায়ী ও সচেতন মহলা জানান, অধিকাংশ দোকানেই গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রির লাইসেন্স নেই। লোকজনের চাহিদা থাকায় ডিলারদের কাছ থেকে তারা গ্যাস সিলিন্ডার এনে বিক্রি করেন। তবে গ্যাস কোম্পানি এ বিষয়ে তাদের কিছু জানায়নি। 

নান্দাইল ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন অফিসার মো. আব্দুল মালেক বলেন, ‘বিস্ফোরক অধিদফতর ও ফায়ার সার্ভিস থেকে লাইসেন্স নিয়ে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করতে হয়। যারা লাইসেন্স নেয় তাদের ঝুঁকি সম্পর্কে সম্যক ধারণা নিয়ে অগ্নিনির্বাপক বোতল রাখার ব্যবস্থা করা হয় দোকানে। তবে অনেকে নিয়ম মানছে না।’ 

এ বিষয়ে অভিযান পরিচালনা করার জন্য উপজেলা প্রশাসন সহ সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থা গ্রহণ করার আহ্বান জানান সুশীল সমাজের লোকজন। 

আমারসংবাদ/কেএস