রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বর-কনে পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আটক ২

রোহিঙ্গা ক্যাম্পে বর-কনে পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আটক ২

কক্সবাজারের উখিয়ায় শরণার্থী ক্যাম্পে বিয়ের আসরে বর ও কনে পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় একজন নিহত হয়েছে। নিহত মোহাম্মদ বেলাল (৪০) উখিয়ার বালুখালী ৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি-১৯ ব্লকের বাসিন্দা আবু বক্করের ছেলে। 

এ ঘটনায় জড়িত সন্দেহে দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ। আটকেরা হলেন- কনের ভাই হারেসুর রহমান ও চাচাতো ভাই আনোয়ার সাদেক।

শনিবার রাতে উখিয়া উপজেলার বালুখালী ৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি-১৯ ব্লকে এ ঘটনা ঘটে। 

আহতরা হলেন- উখিয়ার বালুখালী ৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের বিভিন্ন ব্লকের বাসিন্দা মো. ইউনুস (৪৫), মো. আইয়ুব (৩৫), মো. উমর (৯), সিরাজুল ইসলাম (৩৫), মোহাম্মদ আইয়ুব (২৭), আব্দুর রহমান (৫২), হারেসুর রহমান (২০) ও আনোয়ার সাদেক (২১)।

৮ আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) অধিনায়ক পুলিশ সুপার মো. শিহাব কায়সার খান বিষয়টি গণমাধ্যমকে নিশ্চিত করেছেন। 

তিনি বলেন, উখিয়ার বালুখালী ৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সি-১৯ ব্লকের বাসিন্দা মো. ইউনুসের ছেলে মো. ইদ্রিসের সঙ্গে একই ক্যাম্পের আব্দুর রহমানের মেয়ে খালেদা বিবির মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। তারা বিয়ে করার সম্মতি জানালে মেয়েটির পরিবার রাজি হয়নি।

এ নিয়ে গত ৫ দিন আগে খালেদা বিবি প্রেমিকের বাতিতে চলে আসেন। শনিবার রাতে প্রেমিক মো. ইউনুসের বাড়িতে তাদের বিয়ে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

‘বিয়েতে অসম্মতি থাকায় কনে খালেদার স্বজনরা অনুষ্ঠান আয়োজন নিয়ে ক্ষিপ্ত হয়ে উঠে। এ নিয়ে শনিবার রাত ১০টায় অনুষ্ঠানস্থলে বর পক্ষের লোকজনের উপর হামলা চালায় কনের স্বজনরা। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। এতে দুপক্ষের ৯ জন আহত হয়।’

এপিবিএন এর অধিনায়ক বলেন, ‘আহতদের উদ্ধার করে উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মোহাম্মদ বেলাল নামের একজনকে মৃত ঘোষণা করেন। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে বলে জানান তিনি।’

আমারসংবাদ/এআই