সখীপুরে নারীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা: ইউপি সচিবকে এক বছরের কারাদণ্ড

নারীকে উত্ত্যক্ত ও শ্লীলতাহানির চেষ্টা করার অভিযোগে টাঙ্গাইলের সখীপুর উপজেলার কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সচিবকে এক বছরের কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 

মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট চিত্রা শিকারী এ দণ্ড দেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত ওই ইউপি সচিবের নাম মো. মোশারফ হোসেন (৪২)। তিনি ইউনিয়ন পরিষদ সচিব সমিতির জেলা কমিটির যুগ্মসাধারণ সম্পাদক। তিনি বর্তমানে উপজেলার কালিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সচিব পদে কর্মরত। তাঁর বাড়ি মির্জাপুরে।

উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর ) দুপুরের দিকে মোশারফ এক নারীকে ইউনিয়ন পরিষদের দোতলায় এক কক্ষে ডেকে নেন। ডেকে নিয়ে সেখানে তাঁকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন। 

পরে মেয়েটি তাঁর কক্ষ থেকে বের হয়ে নিচ তলায় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের কাছে ঘটনার বিবরণ তুলে ধরে বিচার চান। চেয়ারম্যান তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি ইউএনওকে জানালে ইউএনও ঘটনাস্থলে এসে সত্যতা পান। 

মোশাররফ মেয়েটিকে নানা সময়ে উত্ত্যক্ত করেছেন ও তাঁকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন বলে আদালতের কাছে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট চিত্রা শিকারী সন্ধ্যায় আমার সংবাদকে বলেন, দোষ স্বীকার করায় ওই ইউপি সচিবকে ৩৫৪ ধারায় এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আমারসংবাদ/এআই