Amar Sangbad
ঢাকা বুধবার, ১৮ মে, ২০২২, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

দলীয় সমর্থনে আইভী, কৌশলে এগিয়ে তৈমুর

 জসিম উদ্দিন, নারায়ণগঞ্জ 

জানুয়ারি ১৩, ২০২২, ১২:২০ পিএম


নারায়ণগঞ্জ সিটি কপোরেশন নাসিক নির্বাচন আর মাএ দুই দিন বাকি। এই নির্বাচন এখন টক-অফ-টাউন। তবে এ নির্বাচনে এখনও সাতজন মেয়র প্রার্থী নির্বাচনী প্রতিদ্বন্দ্বিতার লড়াইয়ে মাঠে রয়েছেন। 

তবে এ সাতজন প্রার্থীর মধ্যে একদিকে নৌকার প্রতীক ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী এড. তৈমুর আলম খন্দকার সর্বমহলে আলোচিত। তাদের ঘিরেই সরব হয়ে উঠেছে নারায়ণগঞ্জ নগরী। 

তবে এ নির্বাচনে আইভী দলীয় প্রতীক নৌকা পাওয়ায় প্রথম থেকেই নিজেরা নিজেদের দ্বিধা বিভক্তিতে জড়িয়ে পরেছিলেন। তবে সকল জটিলতার অবসান ঘটিয়ে কেন্দ্রীয় নেতারা শেখ হাসিনার নৌকা বিজয়ের জন্য এখনও আইভীকে আগলে রেখেছেন। 

অপরদিকে নির্বাচনের শুরুতে তৈমুর বিএনপির সমর্থন আশা করলেও জেলা বিএনপির আহ্বায়ক পদ থেকে তাকে অপসারণ করা হয়। পরবর্তী সময়ে তাকে বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টার দায়িত্ব থেকেও প্রত্যাহার করা হয়। সর্বশেষ আইনজীবী ফোরামের পদ থেকে ও তাকে বহিষ্কার করা হয়।  

তাই এই নির্বাচনে আইভী সমর্থন নিয়ে পথ চললেও স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর এখন জনগণের উপর ভর করেই এগিয়ে যাচ্ছেন। 

জানা যায়, নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীকে দলীয় প্রতীক নৌকার মনোনয়ন দেওয়ার পর থেকেই কেন্দ্রীয় নেতারা মাঠে কাজ করছেন। 

এছাড়া ও আইভীকে পুনরায় নির্বাচিত করতে কেন্দ্রীয় নেতাদের সমন্বয়ে নির্বাচন পরিচালনা কমিটি গঠন করা হয়। আর এ কমিটির দায়িত্বে রয়েছেন আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক। 

এছাড়াও প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান,যুগ্ম সাধারন সম্পাদক বাহাউদ্দীন নাছিম ও সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজমকে রাখা হয়েছে। সেই সাথে সিটি কপোরেশনের ২৭ টি ওয়ার্ডে কেন্দ্রীয় একজন নেতার নেতৃত্বে কমিটি গঠন করা হয়েছে, যারা সার্বাক্ষণিক প্রচার-প্রচারণা পর্যবেক্ষণ করবেন। 

এছাড়াও স্থানীয় নেতৃবৃন্দের সমন্বয়ে কেন্দ্রীয় নেতারা প্রতিদিন কোনো না কোনো ওয়ার্ডে নির্বাচনী সভা চালিয়ে যাচ্ছেন। এসভায় তারা নৌকার প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে ভোট চাইছেন। 

শুধু এখানেই সীমাবদ্ধ নয় বিগত দিনে আইভী যে উন্নয়ন করেছেন তার চিএ সকলের সামনে তুলে ধরছেন। অপরদিকে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমুর আলম খন্দকার নিজ দলীয় সমর্থন না পেয়ে জনতার উপর ভর করে চলেছেন। এখন জনতাই তার একমাত্র ভরসা।

তবে হাতির পিঠে সওয়াল হওয়ায় তৈমুরের সামনে একের পর এক বাধা আসছে। তারপরও সকল বাধা উপেক্ষা করে তৈমুর জনসাধারণকে সাথে নিয়ে ভোট যুদ্ধে এগিয়ে চলছেন।