Amar Sangbad
ঢাকা বুধবার, ২৫ মে, ২০২২, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

নাসিক নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে

নিজস্ব প্রতিবেদক

জানুয়ারি ১৬, ২০২২, ০২:৩৫ এএম


নাসিক নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। রোববার (১৬ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে এর কার্যক্রম শুরু হয়েছে। বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ১৯২টি কেন্দ্রে চলবে ভোটগ্রহণ।

নির্বাচনে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই হবে বলে অভিজ্ঞমহল মনে করছে। মোট সাতজন মেয়রপ্রার্থী ও ২৭টি ওয়ার্ডে ১৪৮ জন সাধারণ কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৩৮ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। 

ভোটের মাঠ আওয়ামী লীগ দলীয় মেয়রপ্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী বিএনপি নেতা তৈমূর আলম খন্দকারের দখলে।  নির্বাচনে জয়লাভ করার ব্যাপারে শতভাগ আশাবাদী দুই প্রার্থীই। 

নানা শঙ্কার মধ্যে ভোটগ্রহণ সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে চ্যালেঞ্জে পড়েছে নির্বাচন কমিশন

ইতোমধ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা জানিয়েছেন, এই নির্বাচন অবাধ ও নিরপেক্ষ হবে। কারণ ভোটগ্রহণের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও স্থানীয় প্রশাসন নিষ্ঠার সঙ্গে কাজ করছে। দেশে করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় মাস্ক ছাড়া কোনো ভোটারকে ভোটকেন্দ্রে প্রবেশ করতে না দিতে এবং এটা নিশ্চিত করতে যে, সবাই সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখছেন। 

২৭টি ওয়ার্ডের ১৯২টি ভোটকেন্দ্রে ও কেন্দ্রের বাইরে নিরাপত্তা নিশ্চিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পাঁচ হাজারের বেশি সদস্য নিয়োজিত রয়েছে। প্রতি কেন্দ্রে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ২৬ সদস্য। থাকবে পুলিশ ও র্যাবের স্ট্রাইকিং ফোর্স। বিজিবিও মোতায়েন করা হয়েছে। 

নাসিক নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহফুজা আক্তার জানান, আদালাভাবে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র নেই, সবগুলো কেন্দ্রকেই বিশেষ বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। পুলিশের ২৭টি ইউনিট স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে থাকবে। 

এছাড়াও পুলিশের মোবাইল টিম থাকবে ৬৪টি, প্রতি টিমে সদস্য থাকবেন পাঁচজন। বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) ১৪ প্লাটুন সদস্য থাকবে। র্যাবের স্ট্রাইকিং ফোর্স থাকবে তিনটি, চেকপোস্ট থাকবে ছয়টি, টহল টিম থাকবে সাতটি ও স্ট্যাটিক টিম থাকবে দুটি।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, আমরা সবাইকে আশ্বস্ত করতে চাই আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করছে। আমাদের গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত আছে। ইলেকশন শান্তিপূর্ণভাবে হবে। 

তিনি বলেন, আমরা ভোটের সব সরঞ্জাম পৌঁছে দিয়েছি। আমাদের ম্যাজিস্ট্রেটরা কাজ করছেন।  আরও ৩০ জন ম্যাজিস্ট্রেট কাজ করবেন। পুলিশের ৭৫টি ও র্যাবের ৬৫টি টিম মাঠে থাকবে। বিজিবিও আমাদের সঙ্গে কাজ করবে। আমাদের গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত আছে। নির্বাচনের জন্য যারা থ্রেট হতে পারেন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আশা করি সুষ্ঠু পরিবেশে ভোটাররা ভোট দিতে পারবেন।