Amar Sangbad
ঢাকা মঙ্গলবার, ২৪ মে, ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু, সাড়ে চার লাখ টাকায় আপোষ

মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

জানুয়ারি ১৮, ২০২২, ০৬:১৫ এএম


ভুল চিকিৎসায় রোগীর মৃত্যু, সাড়ে চার লাখ টাকায় আপোষ

এসএসসি পাশ করেও কলেজে পড়া হলোনা মেধাবি ছাত্র সাগরের। সাগর মানিকগঞ্জ পৌরসভার জয়নগর মাঝি পাড়া গ্রামের হারুন মিয়ার ছেলে। সে মানিকগঞ্জের ড: যোসেফ মেমোরিয়াল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে গত রোববার ভোরে মারা যায়। এ ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে সাড়ে চার লাখ টাকায় আপোষ করা হয় বলে এলাবাসী জানায়।

জানা গেছে, সাগর গত ১৬ জানুয়ারি বিকেল ৩ টায় ড: যোসেফ মেমোরিয়াল হাসপাতালে এ্যাপিন্ডিক্সের ব্যাথা নিয়ে ভর্তি হয়। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নানা পরিক্ষা-নিরীক্ষা শেষে সন্ধ্যা সোয়া ছয়টার দিকে অপারেশন থিয়েটারে ঢোকায় এবং অনকলে ডা: আরিফ ও এ্যানস্থিওলজিষ্ট এম এ মোমিনকে ডাকা হয়। মোমিন রোগীর অপারেশনের আগে এ্যানেস্থিসিয়া প্রয়োগ করেন। ডা: আরিফ অপারেশন করতে গেলে রোগী ব্যাথায় ছটফট করে। পরে আবারও এ্যানেস্থিসিয়া প্রয়োগ করা হয় রোগীকে। এতে রোগীর অবস্থা আরো খারাপ হতে থাকে। এক পর্যায়ে রোগীর অবস্থা বেগতিক দেখে সাভারের সুপার মেডিক্যাল হাসপাতাল প্রা: লি: রেফার্ড করা হয়। কিন্তু বিধিবাম সোয়া সাত ঘন্টা ইনসেনটিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) লাইফ সাপোর্টে রাখার পর তার মৃত্যু ঘটে।

সুপার মেডিক্যাল হাসপাতাল প্রা: লি: এর ব্যবস্থাপক হুমায়ুন কবির জানান, সাগরকে মানিকগঞ্জ থেকে অপারেশন করার পর ভেন্টিলেশন সাপোর্ট দিয়ে মুমূর্ষু অবস্থায় রাত ৮ টায় আমাদের এখানে আনে। তারপর সরাসরি  আইসিইউতে লইফ সাপোর্টে রাখার সোয়াসাত ঘন্টা পর সাগরের মৃত্যু ঘটে। 

মৃত সাগরের পিতা কান্নাজড়িত অবস্থায় গনমাধ্যম কর্মীদের জানান, সাগর ২০২১ সালের অনুষ্ঠিত এসএসসি পরিক্ষায় পাশ করে। আশা ছিল কলেজে পড়বে, লেখাপড়া শেষ করে পরিবারের মুখ উজ্জল করবে। কিন্তু সাগর এ্যাপিনন্ডিক্স রোগে আক্রান্ত হয়ে ড: যোসেফ মেমোরিয়াল হাসপাতালে অপারেশনের জন্য ভর্তি হয়। তারপরে সন্ধ্যার দিকে অপারেশন থিয়েটারে আমার ছেলেকে অজ্ঞানের জন্য এ্যানেস্থিসিয়া দেওয়ার পর ডা: মো: আরিফুর রহমান অপারেশন থিয়েটারে অপারেশন শুরু করে অপারেশন করার সময় আমার ছেলে ব্যাথা পায়। তখন ডা: পুনরায় আমার ছেলেকে এ্যানেস্থিসিয়া প্রয়োগ করে। দ্বিতীয় দফায় এ্যানস্থেসিয়া প্রয়োগের পর আমার ছেলের অবস্থা আরো খারাপ হতে থাকে। ডা: কিছু সময় পরে বলে আপনার ছেলের অক্সিজেন কমে যাচ্ছে আইসিইউ দরকার ঢাকার সাভারে নিতে হবে। পরে ডাক্তারসহ আমরা সভারের সুপার হাসপতাল প্রা: লি: নিয়ে আইসিইউ সাপোর্টে রাখি। অতিরিক্ত এ্যানস্থেসিয়া ও ভুল চিকিৎসায় আমার ছেলে রোববার দিনগত রাত ৩টা পনের মিনিটে মারা যায়। এ ঘটনার সুষ্ঠুতদন্ত সাপেক্ষে আমার ছেলের হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই।

প্রতিবেশী বিমল জানায়, সাগরকে বিকেল ৩ টায় ড: যোসেফ মেমোরিয়াল হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে অপারেশনের পর যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকে। পরে তাকে সাভারের একটি প্রাভেট হাসপাতালে নেয় হয়। ১৬ তারিখ দিবাগত রাত ৩ পনের মিনিটে তার মৃত্যু হয়।

নাম না বলা এক প্রতিবেশী জানায়, সাগরের মৃত্যুর ঘটনা ধামাচাপা দেয়ার জন্য হরিরামপুর উপজেলার হারুকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের নব-নির্বাচিত চেয়ারম্যান শেখ মোশারফ হোসেন মুসাসহ জয়নগর এলাকার কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তির সমন্বয়ে সাড়ে চার লক্ষ টাকায় আপোষ-মীমাংসা করে।

এ বিষয়ে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মুখ না খুললেও চিকিৎসক আরিফুর রহমান জানান, তার শরীরে অক্সিজেনর মাত্রা ক্রমশক কমে যাওয়ায় তার আইসিইউ প্রয়োজন পরে। সেজন্য তাকে সাভারে রেফার্ড করা হয়। 

এ ব্যাপারে মানিকগঞ্জ সিভিল সার্জন ডা: মোয়াজ্জেম আলী খান চৌধুরী বলেন, আমি এখনো ঘটনাটি জানি না। খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিব।

আমারসংবাদ/কেএস