Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪,

নির্বাচনে না গেলে বিএনপি আইসিওতে যাবে: ওবায়দুল কাদের

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

কেরানীগঞ্জ প্রতিনিধি

ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০২৩, ০৯:৩১ পিএম


নির্বাচনে না গেলে বিএনপি আইসিওতে যাবে: ওবায়দুল কাদের

বিএনপি এখন খড়ার কবলে আছে, নির্বাচনে না গেলে আইসিইউতে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের

রোববার (২৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে কেরানীগঞ্জের ঘাটার চরে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের শান্তি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, বিএনপির আর আন্দোলন চলে না, সংবিধান আছে, সংবিধান অনুযায়ী পরবর্তী নির্বাচন হবে। দেশে আগুন সন্ত্রাস করতে চাইলে, যে হাতে আগুন নিয়ে আসবেন তা পুড়িয়ে দেওয়া হবে, ভোট কেন্দ্র পুড়তে আসলে হাত ভেঙে দেওয়া হবে।

ওবায়দুল কাদের বিএনপিকে উদ্যেশ্য করে বলেন, বিএনপিতে ভাঙনের সুর বেজে উঠেছে, আপনাদের দল, আপনাদের জোট তাশের ঘরের মত উড়ে যাবে, আপনাদের আন্দোলনের শক্তি কমছে, নেতা কর্মীও কমছে তবে অভিযোগ বাড়ছে। তাই পাহাড়ে চক্রান্ত, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে চক্রান্ত করে সরকারকে ক্ষমতা থেকে নামাতে চাচ্ছে কিন্তু তা সম্ভব নয়।

মানুষ অন্ধকারে ছিলাম আলোতে আসছে, একদিনে শত সেতু, শত রাস্তা, বিদ্যুৎ, শেখ হাসিনা দিয়েছে, দেশ আলো থেকে আর অন্ধকারে ফিরে যাবেনা।

তত্তাবধায়ক সরকার একটি কলংকিত সরকার, তিন মাসের জন্য এসে ২ বছরের তত্তাবধায়ক সরকার আর এই মাটিতে হবে না।

১০ তারিখ আন্দোলন ডেকে লাল কার্ড দেখাবেন, ২০০১ সাল ও ২০২৩ সাল এক নয়, এখন দেশের মানুষ উন্নয়ন জোয়ারে ভাসছে।

নির্বাচনে আসবেন না সেটা ভিন্ন কথা। নির্বাচন হতে দিবেন না, দেখা যাবে মাঠে, জবাব দিবে জনগণ। আসেন খেলা হবে মাঠে আসুন খেলবো আসেন। যত চিৎকার করেন লাভ নাই, দেশের সাধারণ জনগণ এই সরকারকে চায়। আপনাদের সাথে জনগণ নাই।

অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম বিএনপি নেতা আমান উল্লাহ আমানকে উদ্দেশ্য বলেন, আসেন ঢাকা-২ আসনে সংসদ নির্বাচন আপনার সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করব। আসেন লড়াই হবে আপনার সাথে।

বেনজীর আহমেদ বলেন, বিএনপি ১৬ বছর জনগণ থেকে দূরে আছে, তাই বাংলাদেশে আবার অশান্তি তৈরি করতে বিভিন্ন কর্মসূচি দিচ্ছে।

ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বেনজির আহমেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন,
আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর্জা আজম এমপি, ঢাকা-১৩ আসনের সংসদ সদস্য সাদেক খান, কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা আরাফাতুল ইসলাম, কেরানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদসহ কেন্দ্রীয়, ঢাকা জেলা ও বিভিন্ন উপজেলার নেতৃবৃন্দ।

কেএস 

Link copied!