Amar Sangbad
ঢাকা রবিবার, ১৪ জুলাই, ২০২৪,

প্ল্যাটিনাম জয়ন্তীতে আওয়ামী লীগ

সৈয়দ সাইফুল ইসলাম

সৈয়দ সাইফুল ইসলাম

জুন ২২, ২০২৪, ০৬:৩৩ পিএম


প্ল্যাটিনাম জয়ন্তীতে আওয়ামী লীগ
  • আজ বর্ণাঢ্য র্যালি ও শোভাযাত্রা
  • ২৩ জুন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ

আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু একে অপরের পরিপূরক 
—ড. আবদুল খালেক
উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য, আ.লীগ

জাতিগত বৈষম্য থেকে ভূখণ্ড ও বাঙালিকে বাঁচাতে প্রতিষ্ঠিত হয় আ.লীগ
—ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন
উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য, আ.লীগ

১৯৪৯ সালের ২৩ জুন বিকালে ঢাকার কেএম দাস লেনের রোজ গার্ডেনে গঠিত হওয়া আওয়ামী লীগের ‘প্ল্যাটিনাম জয়ন্তী’ আগামী ২৩ জুন রোববার। প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মওলানা আবদুল হামিদ খান ভাসানী থেকে শুরু করে বর্তমান সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কার্যকাল পর্যন্ত ইতোমধ্যে ৭৫ বছর পার করেছে দলটি। দীর্ঘ এ সময়ে নানা চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করতে হয়েছে দলটিকে। বিভিন্ন সময়ে দলে বিরোধিতারও সৃষ্টি হয়, ধরে ভাঙনও; কিন্তু দলটি হারিয়ে যায়নি। সামনে আসা সব চ্যালেঞ্জ মোকাবিলা করে এগিয়ে চলেছে দুর্বার গতিতে। বর্তমান সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ টানা চারবারসহ মোট পাঁচবার সরকার পরিচালনার সুযোগ পেয়ে সৃষ্টি করেছে নতুন এক ইতিহাস। তৃণমূলে দ্বন্দ্ব বা বিরোধিতা থাকলেও শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটিতে কোনো বিরোধিতা বা ভাঙন ধরেনি। ঘটেনি বিদ্রোহের কোনো ঘটনাও। ভারত ও পাকিস্তান প্রতিষ্ঠার দুই বছরের মাথায় প্রতিষ্ঠিত এই দলটি এখন দেশের সর্ববৃহৎ রাজনৈতিক সংগঠনে রূপ নিয়েছে। দলটির ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীতে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ব্যস্ত থাকবেন দলটির শীর্ষ থেকে শুরু করে তৃণমূল নেতাকর্মীরা। 

টানা চারবার ক্ষমতায় আসা এ দলটি ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বেশকিছু কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে দলের যৌথসভায় এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন তিনি। প্ল্যাটিনাম জয়ন্তী উপলক্ষে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভাসহ ১০ দফা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে দলটি। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আজ শুক্রবার বেলা ৩টায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন থেকে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর র‌্যালি শুরু হবে, যা ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে গিয়ে শেষ হবে। পরদিন ২২ জুন রবীন্দ্র সরোবরে হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। 

এ ছাড়াও ২৩ জুন সকাল ৭টায় ধানমন্ডির ৩২ নম্বরের সড়কে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানাবেন দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনা। এরপর আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাকর্মীরা শ্রদ্ধা জানাবেন। ওইদিনই দুপুরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। দিনটি উপলক্ষে সারা দেশে গাছ লাগানোর জন্য ‘সবুজ ধরিত্রী’ অভিযান পরিচালনা করবে আওয়ামী লীগ। ২৪ জুন সন্ধ্যায় হাতিরঝিলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এরপর ২৮ জুন হবে সাইকেল র?্যালি। কর্মসূচি ঘোষণাকালে ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশের সব মহৎ অর্জন আওয়ামী লীগের মাধ্যমেই অর্জিত হয়েছে। গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস পেরিয়ে এসেছে এ দলটি। 

‘প্ল্যাটিনাম জয়ন্তী’ উপলক্ষে আওয়ামী লীগ গতকাল গণমাধ্যমে পাঠানো এক বার্তা পাঠায়। এতে বলা হয়,  গত সাড়ে সাত দশক ধরে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের পথচলা ছিল গৌরবোজ্জ্বল। দীর্ঘ এই পথচলায় সংগঠনটি বাঙালি জাতির অধিকার ও গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে সব ধরনের প্রতিবন্ধকতা জয় করে সফলতার মুকুটে যুক্ত করেছে একের পর এক পালক। পৃথিবীর খুব কম সংগঠন আছে যারা ক্ষমতাসীন হয়ে ৭৫তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদ্যাপন করার সৌভাগ্য অর্জন করেছে। একইসঙ্গে ক্ষমতাসীন থেকে আওয়ামী লীগ তার প্রতিষ্ঠার রজতজয়ন্তী ও সুবর্ণজয়ন্তী পালনের বিরল সৌভাগ্যের অধিকারী। এ দেশের মানুষের মধ্যে জাতীয়তাবোধের বিকাশ এবং আত্মমর্যাদা প্রতিষ্ঠার সংকল্প সুদৃঢ় হয়েছে আওয়ামী লীগের হাত ধরেই। প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই আওয়ামী লীগ এ দেশের গণমানুষের সংগঠন। এত দীর্ঘ পথচলার পরও আওয়ামী লীগ তার সাংগঠনিক শক্তিতে বলীয়ান। 

আওয়ামী লীগ চিরতারুণ্যদীপ্ত সংগঠন। নেতাকর্মীদের চরম ত্যাগ-তিতিক্ষা ও বিরামহীন লড়াই-সংগ্রামের মধ্য দিয়ে রাজনীতির ময়দানে দলটি এখন ৭৫ বছরের এক মহীরুহ। আওয়ামী লীগ শুধু সামনের দিকে এগিয়ে চলতে জানে। পশ্চাৎমুখী বাংলাদেশের রূপ বদলে দিয়ে আধুনিক বাংলাদেশের রূপকার আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগ ভবিষ্যৎমুখী দৃষ্টিভঙ্গি, যুগোপযোগী কর্মসূচি, স্বল্প-মধ্য ও দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা, বাস্তবায়নযোগ্য পদক্ষেপ এবং সময়োপযোগী রাজনৈতিক দর্শনকে ধারণ করে পথ চলে আসছে। এ দেশের মানুষের ভালোবাসা ও আকাঙ্ক্ষাকে ধারণ করেই আওয়ামী লীগ পথ চলেছে এবং ভবিষ্যতেও চলবে। আওয়ামী লীগ সুনির্দিষ্ট নীতি ও আদর্শকে ধারণ করে জনকল্যাণের রাজনীতিতে আত্মনিবেদিত থেকেছে বলেই সংগঠনটি জনগণের প্রাণের প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। 

সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের গতিশীল নেতৃত্বে বিকশিত হয়েছে আওয়ামী লীগ। বঙ্গবন্ধুর অবিসংবাদিত নেতৃত্বে স্বাধীনতা সংগ্রামের পথ ধরে মহান মুক্তিযুদ্ধের মধ্য দিয়ে স্বাধীন বাংলাদেশ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাসহ এ দেশের মানুষের যা কিছু মহৎ অর্জন, তা আওয়ামী লীগের নেতৃত্বেই অর্জিত হয়েছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পর জননেত্রী শেখ হাসিনা গত চার দশকেরও বেশি সময় ধরে এ দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্ব এ দলের নেতাকর্মীদের প্রেরণার উৎস এবং তা সংগঠনকে করেছে সমৃদ্ধ। 

প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ড. আবদুল খালেক বলেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একে অপরের পরিপূরক। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতো না।

আমার সংবাদের এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ আজ এক শক্তিশালী সংগঠন। বঙ্গবন্ধুর সময় দলে ভাঙন ধরেছিল; কিন্তু তার কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগে কখনো ভাঙন ধরেনি; বরং ধীরে ধীরে শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। 

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের অরেক সদস্য প্রবীণ আইনজীবী অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন মনে করেন, ৭৫ বছরে আওয়ামী লীগের অনেক অর্জন রয়েছে। আমার সংবাদের এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি বলেন, রোজ গার্ডেনে জন্ম নেয়া আওয়ামী লীগ জাতিগত বৈষম্য থেকে এ ভূখণ্ড ও বাঙালিকে বাঁচাতে অগ্রণী ভূমিকায় ছিল।
 

Link copied!