Amar Sangbad
ঢাকা বুধবার, ২৯ নভেম্বর, ২০২৩, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪৩০

জামায়াত আমীরের সম্পূর্ণ বক্তব্য

নিজস্ব প্রতিবেদক

আগস্ট ২৮, ২০২২, ১০:৫৭ পিএম


জামায়াত আমীরের সম্পূর্ণ বক্তব্য

জোট নিয়ে আমীরে জামায়াত ডা.শফিকুর রহমানের ভিডিও বার্তা প্রকাশের পর সকাল থেকেই সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে চলছে আলোচনা সমালোচনা। এনিয়ে ক্ষমতাশীন থেকে শুরু করে রাজনৈতিক দলগুলোকে নানান ভাবে বিষয়টি নিয়ে ব্যাখ্যা করতে দেখা গেছে। 
 

কি ছিলো তার বক্তব্যে? 
ব্যাক্তবে তিনি বলেন, আমরা এতদিন একটা জোটের সাথে ছিলাম, আপনারা ভাবতেছেন কি হয়ে গেল, হ্যা হয়ে গেছে।  ২০০৬ সাল পর্যন্ত এই জোট একটি উপকারী জোট ছিল। ২০০৬ সালের ২৮ অক্টোবরে জোট তার দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছে। এবং সেদিন বাংলাদেশ পথ হারিয়েছে আর ফিরে আসে নাই।

ডা. শফিকুর রহমান বলেন, আমরা বহু চিন্তা করে দেখেছি, এই জোট আর বাংলাদেশের জন্য উপকারে আসবে না। এবং এই জোটের সাথে বিভিন্ন দল যারা আছে বিশেষ করো প্রধান দল এই জোটকে কার্যকর করার কোন চিন্তা নাই। এখন তাদের যদি চিন্তা না থাকে তাহলে জামায়াত একা বললে হবে না। বিষয়টা স্পষ্ট দিবালোকের মত পরিষ্কার এবং বিএনপি তা স্বীকার করেছে ।

তিনি বলেন, এইরকম একটা জোটের সাথে কিয়ামত পর্যন্ত থাকলে দ্বীন কায়েম করা যাবে না। এবং বিএনপি একজন কেন্দ্রীয় নেতা বলেই ফেলেছে যে, শরীয়া আইন সমর্থন করে না। তার সাথে থেকে তো আর শরীয়া আইন চালু করা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, এখন বাস্তবতার দাবি হচ্ছে নিজস্ব অবস্থান থেকে আল্লাহর উপর ভরসা করে পথ চলা। তবে হা জাতীয় স্বার্থে একেই দাবিতে কর্মসূচি বাস্তবায়ন করবো।

জামায়াত আমীর বলেন, এখন যার যার অবস্থান থেকে সর্বোচ্চটা দিয়ে সবাই চেষ্টা করি।  যদি আল্লাহ তায়ালা সেই তৌফিক দান করেন, তাহলে আগামীর দিনগুলো তে আমাদেরকে অনেক বড় প্রস্তুত থাকতে হবে এবং অনেক বেশি ত্যাগ স্বীকার করতে হবে। তাই দোয়া করেন, এই সমস্ত ত্যাগ গুলো যেন আল্লাহর দরবারে কবুল হয়। এই সমস্ত ত্যাগের বিনিময়ে আল্লাহ যেন পবিত্র দেশ দান করেন, যে দেশ কোরআনের আইনেই পরিচিত হবে।

তিনি বলেন, আগামীতে যদি কয়েকটা যুদ্ধের প্রয়োজন হয়, আমার প্রভুর কাছে প্রথম দরখাস্তটা আমার যেহেতু আমার ভাই -  বোনদের দাড়া আমি আছি দায়িত্ব পেয়ে এক নাম্বার নামটা আমার। আল্লাহ পাক যেন আমাকে সেই রক্তাক্ত শহিদের কাতারে তার দ্বীনের প্রয়োজনে আমাকেই যেন সবার আগে শহীদ হিসেবে কবুল করেন।

ইএফ

Link copied!