Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৩ মে, ২০২৪,

গাংনীতে মাটি ব্যবসায়ী লাল্টু‍‍`র রহস্যজনক মৃত্যু

সাইদ হাসান, গাংনী (মেহেরপুর)

সাইদ হাসান, গাংনী (মেহেরপুর)

মে ৩১, ২০২৩, ০৭:৪৩ পিএম


গাংনীতে মাটি ব্যবসায়ী লাল্টু‍‍`র রহস্যজনক মৃত্যু

মেহেরপুরের গাংনীর পোড়াপাড়া গ্রামের লাল্টু মিয়া (২৫) নামের এক মাটি ব্যবসায়ী যুবকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। 

বাঁশবাড়িয়া গ্রামের স্বপন আলী নামের এক ব্যক্তির জমি ভরাটের স্থান থেকে স্হানীয়রা তাকে অসুস্থ অবস্থায় প্রথমে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে জরুরী বিভাগের ডাক্তার প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে রোগী অবস্থা আশঙ্কায় হওয়ায় কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার সময় পথিমধ্যে মিরপুর নামক স্থানে তার মৃত্যু হয়। 

নিহতের শরীরের বিভিন্ন অংশে অস্বাভাবিক দাগ দেখতে পাওয়ায় নিশ্চিত হতে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের উদ্যোগ নিয়েছে পুলিশ। নিহত লাল্টু মিয়া পোড়াপাড়া গ্রামের খেদের মন্ডলের ছেলে।

গাংনী থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি  আব্দুর রাজ্জাক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতের মাতা শুকজান নেছা জানান, তার ছেলে লাল্টু প্রতিদিনের ন্যায় মাটি ভরাটের উদ্দেশ্যে মঙ্গলবার (৩০ মে) বিকেলে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। বুধবার (৩১ মে)  ভোরে অজ্ঞাতনামা এক ব্যক্তি পাখি ভ্যান যোগে এসে তার পরিবারকে লাল্টুর মৃত্যুর বিষয়ে খবর দেন।

উপজেলার ধানখোলা ইউনিয়নের গাঁড়াডোব গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে ট্রলি চালক ইমন জানান, গত তিন দিন ধরে তিনি ও উপজেলার চিতলা গ্রামের আরিফ নামের দুই ট্রলি চালক গাংনী পৌর এলাকার চৌগাছা গ্রামের খ্রিস্টান পাড়া থেকে মাটি ব্যবসায়ী টুটুলের নিকট থেকে মাটি নিয়ে বাঁশবাড়িয়া গ্রামের স্বপন নামের এক ব্যক্তির জমি ভরাটের কাজ করছিলেন।

অন্যান্য দিনের ন্যায় মঙ্গলবার (৩০ মে) তিনি ও আরিফ সন্ধ্যার পর থেকে শুরু করে রাতভর মাটি বহনের কাজ করছিলেন। লাল্টু বাঁশবাড়িয়া গ্রামে মাটি ভরাটের স্থানে অবস্থান করে দুই ট্রলি চালকের মাটি বুঝে নিয়ে হিসাব রাখার জন্য প্রতি টিপের পর  একটি করে ভিজিটিং কার্ড চালকদের হাতে দিচ্ছিলেন।

রাত পৌনে ৫ টার দিকে ট্রলি চালক আরিফ মাটি ভর্তি টলি নিয়ে এসে লাল্টুকে মাটিতে পড়ে অসহ্য যন্ত্রণায় গড়াগড়ি করতে দেখতে পায়। আরিফ ইমনকে মোবাইল ফোনে বিষয়টি জানায়।
সংবাদ পেয়ে ইমন বালু সরবরাহকারী মহাজন চৌগাছা গ্রামের টুটুলকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়।

লাল্টুর অবস্থা খুবই গুরুতর হওয়ায় তাকে উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন।
কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে দ্রুত কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। কুষ্টিয়া যাওয়ার পথে পথিমধ্যে মিরপুর নামক স্থানে লাল্টুর মৃত্যু হয়।

সংবাদ পেয়ে গাংনী থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুর রাজ্জাক ঘটনাস্থলে পৌঁছে লাল্টুর শরীরের বিভিন্ন স্থানে কালো চিহ্ন দেখতে পান। 

তিনি জানান, মৃত্যুর সঠিক কারণ নির্ণয় করতে মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হচ্ছে। নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে পেলে মৃত্যুর আসল কারণ জানা যাবে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

আরএস

Link copied!