Amar Sangbad
ঢাকা রবিবার, ০৩ মার্চ, ২০২৪,

রাতের আঁধারে ঘর তুলে সংখ্যালঘু পরিবারের জমি দখল

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

জাহাঙ্গীর আলম, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

ফেব্রুয়ারি ৯, ২০২৪, ১২:২৬ পিএম


রাতের আঁধারে ঘর তুলে সংখ্যালঘু পরিবারের জমি দখল

কুড়িগ্রামে ফুলবাড়ীতে রাতের আঁধারে ঘর তুলে জমি দখলের অভিযোগ পাওয়া গেছে। সংখ্যালঘু এক হিন্দু পরিবার এ ব্যাপারে গত ০৬ ফেব্রুয়ারি বিভিন্ন প্রেসক্লাব বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ফুলবাড়ী উপজেলার চন্দ্রখানা গ্রামের লক্ষীকান্ত রায় এর ছেলে বীরেন্দ্রনাথ রায় তাহার নিজ নামে ২৮ শতাংশ জমি ক্রয় করে দীর্ঘ দিন ধরেই দখল ভোগ করে আসছে। যার খারিজ খতিয়ান নং ৯৮৯ ও ৯৯০ দাগ নং ৪১৬৬, জেএল নং ১৬, মৌজা  যোতইন্দ্র নারায়ণ। এই তপশীল বর্ণিত সম্পত্তি রাস্তা সংলগ্ন হওয়ায় বাড়ি করার জন্য মাটি ভরাট করে একটি গোডাউন ঘর উত্তোলন করেন বীরেন্দ্রনাথ ।

এই জমি ক্রয়ের পর থেকে ভূমিদস্যু ( ১) মো হাবিবুর রহমার, পিতা মৃত ফরিয়া মামুদ, ( ২) মো গোলজার হোসেন পিতা মৃত ফরিদ মামুদ, (৩) মো মুজিবর রহমার  পিতা মৃত আবুল কাদের সর্ব সাং যোতইন্দ্র নারায়ণ, (৪) ইকবাল হোসেন পিতা মৃত আবুল হোসেন, সাং সোনাই কাজী সকলের থানা ফুলবাড়ী,  জেলা কুড়িগ্রাম। এই ভূমিদস্যুরা জমি জোরপূর্বক দখল করার পাঁয়তারা  করে আসছে।

এ বিষয়ে  ধীরেন্দ্রনাথ রায় বাদী হয়ে ফুলবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন । অভিযোগের প্রেক্ষিতে ফুলবাড়ী থানা পুলিশ  তিনজন ভূমি দস্যুকে আটক করে চালান করেন, জামিনে এসে ওই হিন্দু পরিবারসহ অভিযোগের সাক্ষীগনকে বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি করেই যাচ্ছেন।

গোডাউন ঘর ভাড়া নেয়া রইছ উদ্দিন জানান, অভিযোগের সময় আমি সাক্ষী হয়েছিলাম অভিযোগের  প্রেক্ষিতে তিনজনকে পুলিশ আটক করে চালান দেয়, জামিন হয়ে এসে তারা আমাকে ভাড়াকৃত আমার গোডাউন  ঘর খুলতে নিষেধ করছে এবং আমাকে বিভিন্ন প্রকার হুমকি ধামকি দিয়েই যাচ্ছে।

 জমির মালিক হিন্দু সম্প্রদায়ের বাদী বীরেন্দ্রনাথ রায় জানান, ফুলবাড়ী থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করার পরও এই শক্তিশালী ভূমিদস্যুরা রাতের আধারে জমি দখল করে জমির উপর একটি ঘর নির্মাণ করে। এখন তারা সংখ্যালঘু পরিবারটিকে প্রকাশ্যে বিভিন্ন ভাবে প্রাণনাশের হুমকি প্রদর্শন করে আসছে, তাছাড়াও তারা আমার জমিতে বিভিন্ন প্রকার গাছ রোপণ করে যাচ্ছে। 

জমির মালিক  বীরেন্দ্র নাথ রায় জানান, অনেকদিন থেকে আমার ক্রয়কৃত ২৮ শতক জমি রাতে-আধারে দখলে চেষ্টা অব্যাহত রেখেছে। বিষয়টি জানার পর ফুলবাড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ করেছি। কিন্তু অভিযোগ করার পরও শক্তিশালী ভূমিদস্যু চক্রটি গত ২৭ জানুয়ারি দিবাগত রাতে জমি দখল করে একটি ঘর নির্মাণ করে।

পরে রাতেই বিষয়টি জানার পর ৯৯৯ লাইনে ফোন দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যান। পরিবর্তে পুলিশ বিষয়টি গুরুত্বসহকারে মীমাংসার চেষ্টা করলেও ভূমিদস্যুদের কারণে তা পারেনি। তাই বাধ্য হয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি রাতে আবারও একটি অভিযোগ দায়ের করলে পুলিশ তিন ভূমিদস্যুদের আটক করে কারাগারে পাঠান। পরিবর্তে তারা জামিন পেয়ে আমার ক্রয়কৃত জমিতে বিভিন্ন প্রজাতির গাছ রোপণ করেছে। সেই সাথে প্রকাশ্যে বিভিন্ন ভাবে প্রাণনাশের হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। ফলে বড় ধরনের ক্ষতির আশঙ্কায় পরিবার-পরিজন নিয়ে সংকটময় জীবন-যাপন করছি। তাই প্রভাবশালী ভূমিদস্যুদের হাত থেকে রক্ষা পেতে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।

অভিযুক্ত হবিবর রহমান হবি সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি জানান, জমির মালিক আমার আত্মীয় সেই সুবাদে আমি সেখানে গিয়েছি, আপনাদের জমি হলে আপনারা রাতে অন্ধকারে ঘর তুলে দখলের চেষ্টা করলেন কেন ? এমন প্রশ্ন করা হলে তিনি উত্তর দিয়ে ফোনটি কেটে দেন।

ফুলবাড়ী হিন্দু বৌদ্ধ ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক অনীল চন্দ্র রায় জানান, আমার জানামতে ওই পরিবারটির জমির কাগজ সঠিক রয়েছে, তারপরও রাতের অন্ধকারে হঠাৎ করে  হিন্দু পরিবারটির জমি দখলের বিষয়টি আমি তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি, সেইসঙ্গে বিষয়টি দ্রুত সমাধানের জন্য স্থানীয় প্রশাসন ও ঊর্ধ্বতন প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।

এ বিষয়ে ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ প্রাণকৃষ্ণ দেবনাথ জানান, এই জমা জমির বিষয়ে ফুলবাড়ী থানা একটি মামলা দায়ের হয়েছে, এই মামলার আলোকে তিনজন আসামিকে আটক করে নিয়ে এসে চালান দেওয়া হয়েছে।

জামিনে এসে তারা আবারও  হিন্দু পরিবারটি ও অভিযোগের সাক্ষীকে বিভিন্ন ধরনের হুমকি ধামকি দিচ্ছেন এমন প্রশ্নে তিনি জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ দিলে আমরা পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

বিআরইউ

Link copied!