Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ২৫ মে, ২০২৪,

কানে হাটবেন শানু কন্যা শ্যানন

বিনোদন ডেস্ক

বিনোদন ডেস্ক

মে ২২, ২০২৩, ০৭:৫০ পিএম


কানে হাটবেন শানু কন্যা শ্যানন

টলিউড হোক বা বলিউড, তার সময়ে সাফল্যের শিখরে উঠেছিলেন কুমার শানু। তার কণ্ঠে বহু গান আজও জনপ্রিয়। ক্যারিয়ার তৈরির ক্ষেত্রে শানুর পদাঙ্ক অনুসরণ করছেন গায়ক-কন্যা শ্যানন কে।

চলতি বছর কান চলচ্চিত্র উৎসবে পা রাখতে চলেছেন শ্যানন। এই খবর প্রকাশ্যে আসার পর নেটমাধ্যমে হইচই শুরু হয়ে গেছে। গানবাজনার পাশাপাশি অভিনয় করেও নজর কেড়েছেন তিনি।
২০০১ সালের ১৬ জুন মুম্বাইয়ে জন্ম শানু-কন্যার। তার আসল নাম সানা ভট্টাচার্য। কিন্তু পেশার খাতিরে শ্যানন কে নামটি বেছে নিয়েছেন তিনি।
মুম্বাইয়ে জন্ম হলেও বিদেশে পাড়ি দেন শ্যানন। ছোটবেলা থেকেই গানবাজনার প্রতি আগ্রহ ছিল তার। সঙ্গীত নিয়ে পড়াশোনার জন্য লন্ডনের কলেজে ভর্তি হন শ্যানন।
চার বছর বয়সে মঞ্চে প্রথম গান করতে দেখা যায় শ্যাননকে। ১২ বছর বয়সে ভারত ছেড়ে ব্রিটেনে চলে যান তিনি। ব্রিটেন যাওয়ার পরেই একটি ইংরেজি গান মুক্তি পায় শ্যাননের।
শানুর পদাঙ্ক অনুসরণ করে মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে পা রাখলেও বাংলা বা হিন্দি ছবিতে কখনও গান গাইতে দেখা যায়নি শ্যাননকে। বরং পপ সঙ্গীতশিল্পী হতে চেয়েছিলেন তিনি।
ওয়াশিংটন ডিসি, জামাইকা এবং ট্রেন্টন-সহ বিদেশের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠানে গান করেন শ্যানন। ২০১৮ সালে শ্যাননের প্রথম একক গান প্রকাশ পায়। ইউটিউবে নিজের গানের অ্যালবাম প্রকাশ করেন শ্যানন।
সোনু নিগমের সঙ্গে একটি রোম্যান্টিক ঘরানার গান গেয়েছেন শ্যানন। ‘গিভ মি ইওর হ্যান্ড’ নামে একটি ইংরেজি গান লেখেন তিনি। এই গানের মাধ্যমে নিজের জীবনের কথাই ফুটিয়ে তুলেছেন শ্যানন।
শ্যানন বলেন, “আমাকে সব সময় অন্যের চেয়ে আলাদা ভাবে দেখতেন সকলে। বার বার নিজেকে প্রমাণ করতে হত। শুধু গায়িকা হিসাবে নয়, মানুষ হিসাবেও নিজেকে প্রমাণ করতে হত আমাকে। অল্প বয়সে এত কিছু সামলাতে পারতাম না। রোজ বাড়ি ফিরে মায়ের কাছে কাঁদতাম।
শানু কন্যার দাবি, বারবার বর্ণবৈষম্যের শিকার হতে হতে আত্মবিশ্বাস ভেঙে গিয়েছিল তার। এখন অবশ্য এই পরিস্থিতি সামাল দিতে পারেন শ্যানন। মানসিক অবসাদেরও শিকার হয়েছিলেন শ্যানন।
শ্যানন জানান, ১৪ বছর বয়সে প্রথমবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহার করা শুরু করেন তিনি। কিন্তু নেটব্যবহারকারীদের নেতিবাচক মন্তব্য মেনে নিতে পারতেন না। অন্যের মন্তব্য শুনে মনে আঘাত পেতেন তিনি। ধীরে ধীরে অন্ধকারের মধ্যে ডুবে যেতে থাকেন তিনি।
২০২০ সালে ‘দ্য বিগ ফিড’ নামে একটি ইংরেজি ছবিতে প্রথম অভিনয় করতে দেখা যায় শ্যাননকে। হিন্দি ছবিতেও কাজ করেন তিনি। বিবেক শর্মা পরিচালিত ‘চল জিন্দেগি’ ছবিতে অভিনয় করেন শ্যানন।
বর্তমানে দেশ-বিদেশের বিভিন্ন প্রান্তে অনুষ্ঠানে গান করেন শ্যানন। বাবাকে সম্মান জানাতে তাঁর গাওয়া হিন্দি গান ‘পেহলা পেহলা পেয়্যার’-এর রিমেকও করেন তিনি।

সোহাগ /আরএস
 

Link copied!