Amar Sangbad
ঢাকা সোমবার, ০৪ মার্চ, ২০২৪,

পুলিশ হত্যা মামলা: আরাভ খানের বিরুদ্ধে ম্যাজিস্ট্রেটের সাক্ষ্য

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ১২, ২০২৪, ০২:৪৫ পিএম


পুলিশ হত্যা মামলা: আরাভ খানের বিরুদ্ধে ম্যাজিস্ট্রেটের সাক্ষ্য

পুলিশ পরিদর্শক মামুন হত্যা মামলার আসামি দুবাইয়ের স্বর্ণ ব্যবসায়ী রবিউল ইসলাম ওরফে আরাভ খানসহ আটজনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্য দিয়েছেন ঢাকার সাবেক মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট সত্যব্রত শিকদার। তিনি আসামিদের জবানবন্দি রেকর্ড করেছিলেন। বর্তমানে তিনি ঝিনাইদহের ল্যান্ড সার্ভে ট্রাইব্যুনালে কর্মরত আছেন।

সোমবার ঢাকার প্রথম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ ফয়সল আতিক বিন কাদেরের আদালত সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সূত্র জানায়, রোববার সত্যব্রত শিকদার আদালতে সাক্ষ্য দেন। তবে এদিন তার জেরা সমাপ্ত হয়নি। এজন্য আদালত আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারির জেরার জন্য দিন ধার্য করেছেন।

এ মামলাটিতে মোট ১৭ জনের সাক্ষ্য শেষ হয়েছে। এ মামলায় মোট সাক্ষীর সংখ্যা ৩৮ জন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. আবদুস সাত্তার দুলাল এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা যায়, মামলায় আরাভ খান বাদে মামলার অন্য আসামিরা হলেন- সুরাইয়া আক্তার কেয়া, রহমত উল্লাহ, স্বপন সরকার, মিজান শেখ, আতিক হাসান, সারোয়ার হাসান ও দিদার পাঠান।

এর মধ্যে রবিউল ইসলাম ওরফে আরাভ খান ও সুরাইয়া আক্তার কেয়া পলাতক। কারাগারে থাকা বাকি ছয় আসামি এদিন আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

এই মামলার অপ্রাপ্তবয়স্ক দুই আসামি মেহেরুন্নেছা স্বর্ণা ওরফে আফরিন ওরফে আন্নাফী ও মোছা. ফারিয়া বিনতে মিম। তাদের বিরুদ্ধে ভিন্ন দোষীপত্র দাখিল করা হয়। তাদের বিচার শিশু আদালতে চলমান।

২০১৮ সালের ৯ জুলাই গাজীপুরের জঙ্গল থেকে মামুন ইমরান খানের লাশ উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় মামুনের ভাই জাহাঙ্গীর আলম খান বাদী হয়ে রাজধানীর বনানী থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের পরিদর্শক শেখ মাহবুবুর রহমান ২০১৯ সালের ৮ এপ্রিল আদালতে এ মামলার চার্জশিট দাখিল করেন। ২০২১ সালের ২৫ নভেম্বর আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেন আদালত।

আতিফ/ইএইচ

Link copied!