community-bank-bangladesh
Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪,

সিঙ্গাইরে সাংস্কৃতিক ও লোকজ উৎসব, মুগ্ধ দর্শনার্থীরা

সিঙ্গাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি

সিঙ্গাইর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি

নভেম্বর ১৬, ২০২৩, ০৩:৫৯ পিএম


সিঙ্গাইরে সাংস্কৃতিক ও লোকজ উৎসব, মুগ্ধ দর্শনার্থীরা

বাংলাদেশের ইতিহাস-ঐতিহ্য ও লোকজ সংস্কৃতিকে নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে মানিকগঞ্জের সিঙ্গাইরে সাংস্কৃতিক ও লোকজ সংস্কৃতির পরিচিতি মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বুধবার (১৫ নভেম্বর) উপজেলা পরিষদ চত্বরে এই মেলা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়।

প্রথমবারের মতো ব্যতিক্রমধর্মী এ মেলা বেশ উপভোগ করেন দর্শনার্থীরা। মেলায় সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত দর্শনার্থীদের উপচে পড়া ভিড় ছিল। পরিচিত হন বিলুপ্ত প্রায় বিভিন্ন লোকজ সংস্কৃতির সঙ্গে। এছাড়া উপজেলার ৯৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাহিত্য আনন্দ ক্লাবের সদস্যদের লেখা ও আঁকা ছবি নিয়ে প্রকাশিত ‘সকাল বেলার পাখি’ এবং ‘মনোরঙ ছবি’ শীর্ষক দুটি প্রকাশনার মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

এদিন বেলা ১২ টার দিকে মেলা শুরু হয়, চলে সন্ধ্যা পর্যন্ত। মেলা উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক রেহেনা আকতার। উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) দিপন দেবনাথের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, বাংলা একাডেমির পরিচালক, বিশিষ্ট ফোকলোর বিশেষজ্ঞ ড. আমিনুর রহমান সুলতান ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সেলিনা আখতার।

জেলা প্রশাসক রেহেনা আকতার বলেন, ‘আমাদের ছেলে-মেয়েদের আসলে জানা উচিত যে তাঁদের পূর্বপুরুষ বা তার পূর্বপুরুষের ঐতিহ্য ও বিনোদনের জায়গাগুলো কেমন ছিল। সময়ের পরিক্রমায় হারিয়ে যাওয়া ইতিহাসকে কোনো জাতি ধরে রাখতে না পারলে সেই জাতির পক্ষে নতুন ইতিহাস তৈরি করা সম্ভব নয়। জ্ঞাননির্ভর একটি জাতি হিসেবে গড়ে তুলতে আবহমান বাংলার লোকজ সংস্কৃতির চর্চা করতে হবে।

মেলার স্টলগুলোতে স্থান পায় কুঁড়েঘর, পালকি, বাইস্কোপ, টেপ রেকোর্ডার, রেডিও, কৃষি ও গৃহস্থালি যন্ত্রপাতি এবং মৎস্য শিকারের সরঞ্জামসহ কালের বিবর্তনে বিলুপ্ত প্রায় আবহমান বাংলার সাংস্কৃতিক ও লোকজ সংস্কৃতির বিভিন্ন জিনসপত্র।

দিনভর আবৃত্তি, কবিতা ও নাচ-গানে দর্শনার্থীদের মাতিয়ে রাখে উপজেলার ৯৭টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সাহিত্য-আনন্দ ক্লাবের শিক্ষার্থীরা।

পরে জেলা প্রশাসক রেহেনা আকতার, বাংলা একাডেমির পরিচালক, বিশিষ্ট ফোকলোর বিশেষজ্ঞ ড. আমিনুর রহমান সুলতান ও জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সেলিনা আখতারসহ সকল অতিথিদের সম্মাননা স্মারক প্রদান করা হয়।

এছাড়া এদিন উপজেলা অফিসার্স ক্লাবের পৃষ্ঠপোষকতায় সিঙ্গাইর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে নির্মিত শহিদ মিনার উদ্বোধন করেন জেলা প্রশাসক রেহেনা আকতার।

এসময় উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মো. আব্দুল কাইয়ুম খান, উপজেলা মহিলা ভাইসি-চেয়ারম্যান শারমিন আক্তার, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার সৈয়দা নার্গিস আক্তার ও সহকারি শিক্ষা অফিসার ফারুক হোসেনসহ উপজেলার বিভিন্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।

এআরএস

Link copied!