Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ১৮ এপ্রিল, ২০২৪,

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

আ.লীগের প্রস্তুতি সম্পন্ন

সৈয়দ সাইফুল ইসলাম

এপ্রিল ২৬, ২০২৩, ১১:৩৭ পিএম


আ.লীগের প্রস্তুতি সম্পন্ন

ধাপে ধাপে ব্যাপকভিত্তিতে প্রচারণা বাড়বে 
—বাহাউদ্দিন নাছিম
যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, আওয়ামী লীগ
অনানুষ্ঠানিক কার্যক্রম ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে 

—আহমদ হোসেন
সাংগঠনিক সম্পাদক, আওয়ামী লীগ
নির্বাচনি কার্যক্রমে সংগঠনকে সামগ্রিকভাবে প্রস্তুত করছি 

—শামসুর রহমান (ভিপি লিটন)
সাধারণ সম্পাদক, নেত্রকোনা
ঈদে সম্ভাব্য এমপি প্রার্থীরা গণসংযোগ চালিয়েছেন 

—ফজলুল কাদের মজনু মোল্লা
সভাপতি, ভোলা জেলা আওয়ামী লীগ

দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনের জন্য সব ধরনের দলীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। নির্বাচনি কার্যক্রম ইতোমধ্যে অনানুষ্ঠানিকভাবে শুরুও করে দিয়েছে দলটি। ধাপে ধাপে এই কার্যক্রম আরও জোরালো ভিত্তিতে চালানো হবে। ঈদকে কেন্দ্র করে দলটির সম্ভাব্য প্রার্থীরা নির্বাচনি এলাকায় অবস্থান করেছেন, চালিয়েছেন গণসংযোগও। ইতোপূর্বে দলীয় প্রধানের পক্ষ থেকে জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ের নেতাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। দলীয় প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ত্রিদেশীয় সফর শেষে দেশে ফিরলে জেলা ও বিভাগীয় নেতাদের ডেকে আরও নির্দেশনা দেবেন। আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় একাধিক নেতা ও একাধিক জেলা নেতার সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য জানা গেছে। 

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিমের সঙ্গে কথা হয় দৈনিক আমার সংবাদের এই প্রতিবেদকের। তিনি দলের নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণা নিয়ে কথা বলেন। আওয়ামী লীগ ধাপে ধাপে ব্যাপক ভিত্তিক নির্বাচনি প্রচারণা শুরু করবে জানিয়ে বাহাউদ্দিন নাছিম বলেন, ইতোমধ্যেই আমরা জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন, থানা, মহানগর ও ওয়ার্ড পর্যায়ে ঈদকেন্দ্রিক আমাদের নির্বাচনি কার্যক্রম শুরু করেছি, সামনে আরও ধাপে ধাপে ব্যাপক ভিত্তিক শুরু হবে। ইতোপূর্বে আওয়ামী লীগ প্রধান শেখ হাসিনা দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের নেতাদের নিয়ে বৈঠক করেছেন, নির্বাচনের বিষয়ে দিক-নির্দেশনা দিয়েছেন। এভাবে ধাপে ধাপে নির্বাচনি কার্যক্রম এগিয়ে নেয়া হবে। এক পর্যায়ে ব্যাপক ভিত্তিক নির্বাচনি কার্যক্রম চালাবে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আরও বলেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে ব্যাপক প্রচার-প্রচারণা চালানো হবে। দেশের উন্নয়ন-অগ্রগতির ধারাবাহিকতাকে তুলে ধরে বিগত দিনে সরকার দেশের মানুষের জন্য যেসব কল্যাণকর কাজ করেছে, উন্নয়নমূলক কাজ করেছে তা জনগণের সামনে তুলে ধরা হবে। একইভাবে বিএনপি-জামায়াতের ‘দুঃশাসন’ নিপীড়ন-নির্যাতন, জ্বালাও পোড়াও, আন্দোলন-সংগ্রামের নামে বিরোধী দলের অগ্নিসন্ত্রাস ও সাম্প্রদায়িক শক্তিকে ব্যবহার করে অপরাজনীতির যে অশুভ তৎপরতা শুরু করেছে এ বিষয়গুলোও মানুষের সামনে তুলে ধরা হবে। যাতে ‘জনগণের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন’ বিএনপি পুরোপুরি জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে। আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে এটি আমাদের লক্ষ্য। এই সব লক্ষ্য সামনে রেখে আমরা নির্বাচনি কার্যক্রম শুরু করেছি, পর্যায়ক্রমে এই কার্যক্রম আরও বাড়বে। 

ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ অনানুষ্ঠানিকভাবে নির্বাচনি প্রচারণা শুরু করে দিয়েছে বলে জানিয়েছেন দলটির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন। তিনি বলেন, নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর আনুষ্ঠানিকভাবে প্রচারণা শুরু হবে। দলের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করা হবে, দলীয় ইশতেহার ঘোষণা করা হবে। দৈনিক আমার সংবাদের এ প্রতিবেদকের সঙ্গে আলাপকালে তিনি আরও জানান, নির্বাচনি খেলার মাঠে নামার জন্য আওয়ামী লীগের নির্বাচনি প্রস্তুতি ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। আওয়ামী লীগ অলরেডি প্রস্তুত উল্লেখ করে দলটির এ সাংগঠনিক সম্পাদক বলেন, সিডিউল ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে আমরা আনুষ্ঠানিক প্রচারণায় যাবো। এখন চলছে অনানুষ্ঠানিক কার্যক্রম। আওয়ামী লীগের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, আমরা মানুষের কাছে যাচ্ছি, জনগণকে বুঝানোর চেষ্টা করছি, নৌকা মার্কায় ভোট চাচ্ছি। সবাই এলাকায় যাচ্ছে, আগামী নির্বাচনে নৌকায় ভোট দেয়ার জন্য কথা বলছি। দলীয় নেতাকর্মীদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে, কীভাবে নির্বাচনে প্রচারণা চালানো হবে, ভোটারদের কীভাবে দলীয় বার্তা পৌঁছে দেয়া হবে, এসব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়ে গেছে। আর তফসিল ঘোষণার পর ব্যাপক ভিত্তিতে প্রচারে মাঠে নামা হবে। 

নেত্রকোনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শামসুর রহমান ওরফে ভিপি লিটন দৈনিক আমার সংবাদের এই প্রতিবেদককে বলেন, আমরা তো সাংগঠনিকভাবে নির্বাচনের সময়টা জানি, সে কারণে আমরা নির্বাচনি কার্যক্রমের জন্য সংগঠনকে সামগ্রিকভাবে প্রস্তুত করছি। তিনি জানান, দলীয় প্রধান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে তিনি দেখা করেছেন, শেখ হাসিনা দলের নেতাকর্মীদের নিয়ে নির্বাচনি প্রচারণা চালাতে নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন, সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরে জনগণকে দলের পক্ষে নিয়ে আসার নির্দেশ দেয়া হয়েছে দলীয় প্রধানের পক্ষ থেকে। তিনি জানান, জেলায় বড় ধরনের সমাবেশ হবে, এখানে কেন্দ্রীয় নেতারা আসবেন, তবে এখনো কর্মসূচির দিনক্ষণ ঠিক হয়নি, শিগগিরই কেন্দ্রীয় নেতারা আমাদের ডাকবেন, তখন হয়তো সব কিছু চূড়ান্ত হবে। তিনি আরও জানান, তার জেলার কমিটি নতুন, কমিটি হওয়ার পর তারা শেখ হাসিনার সঙ্গে দেখা করেছেন, তখন তিনি (শেখ হাসিনা) দলীয় কার্যক্রমে প্রবীণ নেতাদের সম্পৃক্ত করার নির্দেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি সরকারের উন্নয়ন কার্যক্রম তুলে ধরার পরামর্শ দিয়েছেন।

ভোলা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল কাদের মজনু মোল্লা দৈনিক আমার সংবাদকে বলেন, এই জেলায় নির্বাচনি আসনগুলোতে যারা সম্ভাব্য এমপি প্রার্থী তারা ঈদকেন্দ্রিক এলাকায় এসেছেন। নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণা ও গণসংযোগ চালিয়েছেন। আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্বাচনকে সামনে রেখে জেলা ও বিভাগী পর্যায়ের শাখা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের গণভবনে ডাকা শুরু করেছেন। আপনাদের ডাক পড়েছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, শেখ হাসিনার বিদেশ সফর শেষে দেশে ফেরার পর ডাক আসতে পারে। প্রসঙ্গত, ১৫ দিনের ত্রিদেশীয় সফরে ২৫ এপ্রিল ঢাকা ছেড়েছেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। 
 

Link copied!