Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০২২, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯

কাঁচা মরিচের দাম সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিপ্রতি ৮০ টাকা বৃদ্ধি

নিজস্ব প্রতিবেদক

আগস্ট ৫, ২০২২, ০২:৩৫ পিএম


কাঁচা মরিচের দাম সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিপ্রতি ৮০ টাকা বৃদ্ধি

উৎপাদন নষ্ট এবং সরবরাহ কমের অজুহাতে দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দরের পাইকারি ও খুচরা বাজারে বেড়েই চলেছে কাঁচা মরিচের দাম। এক সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিপ্রতি ৮০ টাকা বৃদ্ধি পেয়ে বিক্রি হচ্ছে ২৪০ টাকা কেজি দরে। যা গত সপ্তাহের কেজিপ্রতি দেশি কাঁচা মরিচ বিক্রি হয়েছে ১৬০ থেকে ১৭০ টাকায়। সরবরাহ কমের কারণে বেড়েছে দাম, বলছেন ব্যবসায়ীরা। দাম বাড়াতে বিপাকে পড়েছেন সাধারণ ক্রেতারা। ভারত থেকে খুব দ্রুত কাঁচা মরিচ আমদানি হবে সেই সঙ্গে কমবে দাম, বলছেন বন্দরের ব্যবসায়ীরা।

হিলি বাজারে কাঁচা মরিচ কিনতে আসা রফিকুল ইসলাম বলেন, এক সপ্তাহের ব্যবধানে দেশি কাঁচা মরিচের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ। দাম বৃদ্ধি হওয়ার কারণে আমাদের খুব সমস্যায় পড়তে হচ্ছে। সাধ্যমতো বাজার করা যাচ্ছে না। যা টাকা এনেছি কাঁচা বাজার করতেই শেষ। অন্যসব পণ্য কিনব কি করে। ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি হলে দাম অনেকটাই কমে যেত।

হিলি বাজারের কাঁচা মরিচ বিক্রেতা বিপ্লব শেখ বলেন, অতিরিক্ত গরমের কারণে দেশের বিভিন্নস্থানে কাঁচা মরিচের উৎপাদন নষ্ট হয়ে গেছে। যার জন্য মোকামগুলোতে দাম বেশি নিচ্ছেন কৃষকরা। আমরা বেশি দামে কিনে বেশি দামে বিক্রি করছি। যদি ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি হতো তাহলে ১০০ থেকে ১৫০ টাকার মধ্যেই দাম থাকত।

হিলি স্থলবন্দরের আমদানি-রপ্তানি কারক গ্রুপের সভাপতি হারুন-উর রশিদ বলেন, দেশের বাজারে যেকোনো পণ্যের দাম স্বাভাবিক রাখার জন্য হিলি স্থলবন্দরের আমদানিকারকরা সব সময় ভারত থেকে পণ্য আমদানি করে থাকে। তবে বেশি কিছু দিন ধরে ভারত থেকে কাঁচা মরিচ আমদানি বন্ধ রয়েছে। কারণ, বাংলাদেশ সরকার ইমপোর্ট পারিমিট বন্ধ করে রেখেছিল। তবে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ সরকার ইমপোর্ট পারমিট দিয়েছে। সেই সঙ্গে বন্দরের ব্যবসায়ীরা এলসি করেছে, আগামীকাল থেকে ভারত হতে কাঁচা মরিচ আমদানি হতে পারে। সেইসঙ্গে কমবে দাম।

এবি