community-bank-bangladesh
Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪,

স্বেচ্ছায় হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম গ্রহণ

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি

গুরুদাসপুর (নাটোর) প্রতিনিধি

আগস্ট ২১, ২০২২, ০৭:০৩ পিএম


স্বেচ্ছায় হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করে ইসলাম গ্রহণ

গুরুদাসপুরে হিন্দু ধর্মাবলম্বী এক যুবক ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। নও মুসলিম যুবক ইসলাম ধর্মের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে নিজ ইচ্ছায় স্থানীয় হুজুরের কাছে কালিমা পাঠ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। যুবকের আগের নাম শ্রী হৃদয় দাস, বর্তমান তার নাম মো. আব্দুর রহিম। তার পিতা মৃত-শ্রী মন্ডল, মাতা-রিনা দাস, এফিডেভিট ও জন্মসনদ সূত্রে জানা যায় তার বাড়ি নাটোর জেলার গুরুদাসপুর উপজেলার মশিন্দা ইউনিয়নের দরি বামনগাড়া গ্রামে।

খোঁজ নিয়ে জানাযায়, নও মুসলিম মো. আব্দুর রহিম ইসলাম ধর্মে অনুপ্রাণিত হয়ে গত ১০ আগস্ট বিকেলে নাটোরে প্রথম শ্রেণির ম্যাজিস্ট্রেট নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে ও স্থানীয় হুজুরের কাছে কালিমা পাঠ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। নও মুসলিম যুবকের মা রিনা দাস ছেলের সাথে একই বাসায় বসবাস করছেন। ছেলে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার পর তাকে আশীর্বাদ করেছেন তিনি। তবে নও মুসলিম যুবকের স্ত্রী শ্রী বন্যা রাণী স্বামীর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করা মেনে নিতে পারেননি। এ কারণে গত ১০দিন আগে আব্দুর রহিমকে ছেড়ে বাবার বাড়িতে চলে গেছেন।

মো. আব্দুর রহিম জানান, শৈশব থেকেই মুসলমান বন্ধুদের সাথে বড় হয়েছি। ছোটবেলা থেকেই ইসলাম ধর্মের প্রতি আমার দুর্বলতা ছিলো। ইসলামীক গান, গজল, ওয়াজ নিয়মিত শুনতাম। হিন্দু ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার জন্য অনেকের সাথে পরামর্শ করেছি। পরে গত ১০ আগস্ট নাটোরে প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেটের কাছে নোটারি পাবলিকের মাধ্যমে ও আমার এলাকার মসজিদের ইমামের কাছে কালিমা পাঠ করে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করি। আমার পরিবারে মা ও স্ত্রী রয়েছে। ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার বিষয়ে আমার মা মেনে নিয়েছে। কিন্তু আমার স্ত্রী এই বিষয়টি মেনে নিতে পারেনি। সে তার বাবার বাড়ি চলে গিয়েছে। আমার স্ত্রী বিচ্ছেদ চায়। স্ত্রী ও তার পরিবারের সাথে কথা বলে একটি সুষ্ঠু সমাধান করার জন্য প্রক্রিয়া চালাচ্ছি। বাড়িতে আমার মা ছাড়া আর কেউ নেই। তাই মাকে নিয়ে আমি এখন ভাল আছি। অনেক মুসলমান ভাই আমাকে সার্বিক ভাবে সহযোগিতা করছে। তাছড়াও নিয়মিত পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করি।

নও মুসলিম যুবকের মা রিনা দাস জানান, আমার ছেলে হিন্দু ধর্ম থেকে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছে তার নিজ ইচ্ছায়। ছেলে ছাড়া আমার এই পৃথিবীতে তেমন কেউ নেই। ছেলের জন্য সকল সময় আশীর্বাদ করি। সে যেন সব সময় ভাল থাকে। আমার ভরন-পোষণ আমার ছেলেই বহন করে।

মশিন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. অব্দুল বারী হিন্দু যুবকের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আমার ইউনিয়নের অন্তর্গত দরি বামনগাড়া গ্রামের হিন্দু ধর্মাবলম্বী এক যুবক নিজ ইচ্ছায় ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। তার পরিবার এবং প্রতিবেশীরা বিষয়টি ভাল ভাবে মেনে নিয়েছে। তিনি পেশায় একজন নরসুন্দর। আমার কাছে নোটারি পাবলিকের ফটোকপি দিয়েছে।

আমারসংবাদ/এসএম

Link copied!