community-bank-bangladesh
Amar Sangbad
ঢাকা সোমবার, ১৭ জুন, ২০২৪,

নীলফামারীতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা

আল-আমিন, নীলফামারী

আল-আমিন, নীলফামারী

অক্টোবর ২৬, ২০২২, ০৪:৫৪ পিএম


নীলফামারীতে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা

নীলফামারী সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এনামুল হক সরকারের বিরুদ্ধে অবশেষে সরকারি কর্মচারী (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ অনুযায়ী বিভাগীয় মামলা রুজু করা হয়ছে। যাহার স্মারক নম্বর-২য় শ্রেনী বীমা-এইউইও/৪০/২২/২৯৯।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নীলফামারী সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এনামুল হক সরকার  ২০২১-২০২২ অর্থ বছরে রাজস্ব খাতের বরাদ্দকৃত অর্থের মধ্যে শিক্ষকদের ১৩তম গ্রেডের বকেয়া বিল, শ্রান্তি বিনোদন বিল, ভ্রমন বিল, বিদ্যালয়ের বিদ্যুৎ বিল, সহকারি উপজেলা শিক্ষা অফিসার গনের ভ্রমন বিল ও পিইডিপি-৪ এর বরাদ্দ কৃত মডেল বিলসহ প্রায় ১কোটি টাকার ২৫ধরনের বিল নিধারিত তারিখের মধ্যে জেলা একাউন্টস ও ফিন্যান্স অফিসে জমা দিয়ে নবদায়ন করতে ব্যর্থ হয়েছেন।

তার সরকারি দায়িত্ব পালনে চরম অবহেলা, অসৎ উদ্দেশ্যে নিধারিত সময়ে বিল গুলি জমা দেওয়ার ব্যবস্থা না করায় সমুদয় অর্থ তামাদি হওয়ার মত ঘটনা ঘটেছে ও শিক্ষক গন আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছে এতে তাদের মাঝে ক্ষোপের সৃষ্টি হয়।

তিনি বিভিন্ন সময়ে জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার কর্তৃক চাহিত তথ্য যথা সময়ে প্রেরণ করেন না।
তিনি প্রতিদিন রংপুর হতে নীলফামারী যাতায়াত করে সকাল ১১.০০ ঘটিকায় অফিসে আসেন ও বিকাল ৪.০০ ঘটিকায় অফিস হতে চলে যান।

নীলফামারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার ২(দুই) দিন উপজেলা শিক্ষা অফিস পরিদর্শনে গেলে একদিনও তাকে অফিসে উপস্থিত পাননি। তার উল্লেখিত কার্যক্রমের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা বিভাগের মান ক্ষুন্ন হয়েছে। তার উপযুক্ত কার্যকলাপ সরকারি কর্মচারি (শৃঙ্খলা ও আপিল) বিধিমালা ২০১৮ এর ৩(খ)৩(গ) বিধি মোতাবেক যথাক্রমে অসদাচরণ ও দুনীতিপর্যায়ভুক্ত অপরাধ বিধায় তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা রুজু করা হয়েছে।

টুপামারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের  সহকারি শিক্ষক সাইফুল ইসলাম মানিক বলেন, সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়েছে। অভিযোগ গুলো সম্পুন্ন সত্য। স্যার এই অনিয়মের সাথে জড়িত ছিলেন। তিনি দুনীর্তির হাত থেকে বাঁচার জন্য শিক্ষকের কাজ থেকে স্বাক্ষর নিয়ে বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করিতেছেন।

তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, সদর উপজেলা শিক্ষা অফিসে একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট কাজ করেন তাদেরকেও চিহ্নিত করে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান। সেই সাথে সদর উপজেলায় একজন দক্ষ শিক্ষা অফিসারের প্রয়োজন বলে উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন করেন।

জানতে চাইলে সদর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা এনামুল হক সরকার বলেন, আমার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা হয়েছে আমি বিভাগে আমার মতামত প্রকাশ করব। দুনীর্তির বিষয়টি তিনি সাংবাদিকের কাছে কৌশলে এড়িয়ে যান।

কেএস 

Link copied!