community-bank-bangladesh
Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪,

খাগড়াছডি রিজিয়নের উদ্যােগে শিক্ষাবৃত্তি ও সার্টিফিকেট প্রদান

পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি

পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি

মার্চ ৩০, ২০২৩, ০৭:৪৬ পিএম


খাগড়াছডি  রিজিয়নের উদ্যােগে শিক্ষাবৃত্তি ও সার্টিফিকেট প্রদান

বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত মং সার্কেল চিফ মংপ্রু সাইন’র স্মরণে শিক্ষার্থীদের মাঝে  শিক্ষাবৃত্তি ও সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (৩০মার্চ  ২০২৩ইং ) দুপুরের দিকে  খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ অডিটোরিয়ামে বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রয়াত মং সার্কেল চিফ মংপ্রু সাইন’র স্মরণে শিক্ষাবৃত্তি ও সার্টিফিকেট প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ড. গোলাম মহিউদ্দিন আহমেদ মাহি

খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক মো. সাহাবুদ্দিন আহমেদ এর সঞ্চালনায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন খাগড়াছড়ি রিজিয়নের স্টাফ অফিসার(জিটুআই) মেজর মো. জাহিদ হাসান।

এসময় খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মংসুইপ্রু চৌধুরী অপু, বিজিবির সেক্টর কমান্ডার লেঃ কর্নেল মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন,  খাগড়াছড়ি জেলা প্রশাসক মো: সহিদুজ্জামান,  খাগড়াছড়ি  পুলিশ সুপার মো. নাইমুল হক, খাগড়াছড়ি মং সার্কেল চীফ সাচিংপ্রু চৌধুরী, খাগড়াছড়ি সাবেক  সংসদ সদস্য যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন।

অন্যান্যের মাঝে  খাগড়াছড়ি ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ লে. কর্নেল  রুবায়েত আলম, পিএসসি, খাগড়াছড়ি পৌরসভার মেয়র নির্মলেন্দু চৌধুরী, খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. সুধীন কুমার চাকমা ও সহযোগি অধ্যাপক (অবঃ) মধু মঙ্গল চাকমা, খাগড়াছড়ি রিজিয়নের আওতাধীন বিভিন্ন জোনের কমান্ডার, অধিনায়ক, হেডম্যান, কার্বারী, সাংবাদিক ও সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ।

প্রসঙ্গত, মহান মুক্তিযুদ্ধে খাগড়াছড়ির মং সার্কেল চিফ মংপ্রু সাইনের বিরল অবদান রাষ্ট্রীয়ভাবে স্বীকৃত না পেলেও খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন ২০১৮ সালে তার নামে শিক্ষাবৃত্তি চালুর মাধ্যমে স্থানীয়ভাবে স্বীকৃতি দেওয়া হয়। সে থেকে প্রতি বছর খাগড়াছড়ি সেনা রিজিয়ন সে বৃত্তি দিয়ে আসছে। পাহাড়ে সেনাবাহিনীর এমন মহতি উদ্যোগ চির দিন উদাহরণ হয়ে থাকবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে খাগড়াছড়ি রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল ড. গোলাম মহিউদ্দিন আহমেদ মাহি বলেন, প্রয়াত বীরমুক্তিযোদ্ধা মংপ্রু সাইন নিজের রাজভান্ডার মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য উন্মুক্ত করে দিয়েছিলেন। সংক্রিয়ভাবে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণ করে অসামান্য অবদান রেখেছিলেন। মু্ক্তিযুদ্ধে উনার অবদান আমাদের পরবর্তী প্রজন্মের জন্য শুধু শিক্ষনীয় নয়, আমাদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস। আমরা যদি ‘দেশপ্রেম বা সবার উপরে দেশ’ এ মূলমন্ত্রকে ধারণ করতে চাই আমাদের মনে, তাহলে মুক্তিযুদ্ধে এরকম বীর মুক্তিযোদ্ধাদের যে অবদান রয়েছে সেগুলো আমাদের সবসময় স্মরণ করতে হবে  জানিয়ে তিনি আরো বলেন, শিক্ষার্থীদের মাঝে এ শিক্ষাবৃত্তি প্রদানের মূল লক্ষ্য হচ্ছে মংপ্রু সাইনের এ অবদানকে স্বীকৃতি দেওয়া পাশাপাশি মেধাবী শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করা। 

শিক্ষার্থীদের মেধার পরিপূর্ণ বিকাশ ঘটাতে হবে সুশিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে একজন সুশিক্ষিত মানুষ হিসেবে চরিত্র গঠনের মাধ্যমে আলোকিত একজন মানুষ হিসেবে সমাজের আলো ছড়িয়ে  দেওয়ার আহবান জানান।

আরএস

Link copied!