Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ১৩ এপ্রিল, ২০২৪,

ঢাকা চেম্বার সভাপতি

‘তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশ বিপুল পরিমাণ তরুণ জনশক্তি তৈরি করছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিজস্ব প্রতিবেদক

ফেব্রুয়ারি ৮, ২০২৪, ০৫:৪২ পিএম


‘তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশ বিপুল পরিমাণ তরুণ জনশক্তি তৈরি করছে’

ঢাকা চেম্বারের সভাপতি আশরাফ আহমেদ বলেছেন, তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বাংলাদেশ প্রতিবছর বিপুল পরিমাণ তরুণ জনশক্তি তৈরি করছে। আর্মেনিয়ার উদ্যোক্তাদের এ খাতে বাংলাদেশি দক্ষ জনবল নিয়োগের আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ সফররত রিপাবলিক অব আর্মেনিয়ার অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী নারেক তেরিয়ানের নেতৃত্বাধীন একটি প্রতিনিধিদল ডিসিসিআইয়ের পরিচালনা পর্ষদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন।

সভায় আশরাফ বলেন, বাংলাদেশের বিপুল জনগোষ্ঠী থাকায় একটি বৃহৎ ভোক্তাশ্রেণি রয়েছে, বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে আর্মেনিয়ার উদ্যোক্তারা এদেশে সম্ভাবনাময় খাতে বিনিয়োগে এগিয়ে আসতে পারে। এছাড়াও দুদেশের মধ্যকার মুক্তবাণিজ্য চুক্তি স্বাক্ষরের লক্ষ্যে সম্ভাব্যতা যাচাই এবং বাংলাদেশের এলডিসি পরবর্তী সময়ে আর্মেনিয়ার বাজারে শুল্কমুক্ত সুবিধা নিয়ে পণ্য রপ্তানিকরণে আরও মনোযোগী হওয়ার জোরারোপ করেন ডিসিসিআই সভাপতি আশরাফ আহমেদ।

এছাড়াও দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য উন্নয়নে দুদেশের মধ্যকার ব্যাংকিং কার্যক্রম চালুকরণের ওপর তিনি জোর দেন।

আর্মেনিয়ার প্রতিনিধিদলকে স্বাগত জানিয়ে ঢাকা চেম্বারের সভাপতি আশরাফ আহমেদ বলেন, বিশেষ করে মধ্যপ্রাচ্য ও দক্ষিণ এশিয়া অঞ্চলের দেশগুলোতে বাংলাদেশি প্রকৌশলী ও নির্মাণকর্মীরা অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে অবকাঠামো উন্নয়নে কাজ করছে এবং এখাতে আমাদের প্রচুর দক্ষ জনবল রয়েছে, যারা আর্মোনিয়ার অবকাঠামো খাতের উন্নয়নে নিজেদের দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে সক্ষম।

বৈঠককালে আর্মেনিয়ার অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী নারেক তেরিয়ান বলেন, আর্মেনিয়ার সরকার তাদের অবকাঠামো খাতের উন্নয়নের লক্ষ্যে বিশেষকরে প্রকৌশলী, স্থপতি ও দক্ষ নির্মাণকর্মী প্রয়োজন। এছাড়াও তথ্যপ্রযুক্তি খাতেও তার দেশের দক্ষ জনবল প্রয়োজন এবং এখাতে বাংলাদেশের মেধাবী তরুণদের প্রচুর সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি অভিমত ব্যক্ত করেন।

দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণ ও বেসরকারিখাতের মধ্যকার সম্পর্ক সুদৃঢ়করণে দুদেশের বাণিজ্য সংগঠনের যোগাযোগ বৃদ্ধির পাশাপাশি ‘জয়েন্ট চেম্বার’ গঠনের প্রস্তাব দেন তিনি।

আর্মেনিয়ার উপমন্ত্রী আরও জানান, সিআইএস (কমনওয়েলথ ইন্ডিপেনডেন্ট স্টেটস), ভিয়েতনাম, সিঙ্গাপুর ও সার্বিয়ার সঙ্গে তার দেশের এফটিএ রয়েছে এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নের সঙ্গে সেপা চুক্তি রয়েছে, যে সুযোগ গ্রহণ করে বাংলাদেশের উদ্যোক্তারা হাইটেক ও তথ্যপ্রযুক্তি, স্মার্ট এগ্রিলকালচার, খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ, পর্যটন, টেক্সটাইল, পাদুকা এবং ওষুধসহ বিভিন্নখাতে আর্মেনিয়ায় বিনিয়োগে এগিয়ে আসতে পারে।

ডিসিসিআই গুলশান সেন্টারে অনুষ্ঠিত সভায় ঢাকা চেম্বারের ঊর্ধ্বতন সহ-সভাপতি মালিক তালহা ইসমাইল বারি, সহ-সভাপতি মো. জুনায়েদ ইবনে আলীসহ পরিচালনা পর্ষদের সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ইএইচ

Link copied!