Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ০১ অক্টোবর, ২০২২, ১৬ আশ্বিন ১৪২৯

স্বামী-স্ত্রী বা সঙ্গীর সাথে প্রতারণা? জেনে নিন ৬ পরিণতি

আমার সংবাদ ডেস্ক

আগস্ট ২২, ২০২২, ০৪:৩৪ পিএম


স্বামী-স্ত্রী বা সঙ্গীর সাথে প্রতারণা? জেনে নিন ৬ পরিণতি

আপনি কি আপনার প্রেমিক বা প্রেমিকা অথবা জীবনসঙ্গীর সঙ্গে অন্য কাউকে দেখেছেন? আপনি কি নিজের সম্পর্ককে বেপথু ভাবছেন? আপনি বিবাহিত অথবা কারও সঙ্গে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, তবু কারও প্রতি আকৃষ্ট হতে পারেন। আপনি হয়তো ভাবছেন, গোপন সঙ্গীর সঙ্গে বেশ ভালোই তো কাটছে। কিন্তু একবারও কি ভেবেছেন, আপনি আপনার প্রতিশ্রুত সঙ্গী বা স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে প্রতারণা করছেন?

যদি সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা করেন, তবে কিছু লক্ষণ প্রকাশ পাবেই। আপনি গোপনে যা করছেন, তার পরিণাম ভালো নাও হতে পারে।

ভারতের জনপ্রিয় জীবনধারা ও স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের এক প্রতিবেদনে ছয়টি কারণ উল্লেখ করা হয়েছে, যা আপনাকে বুঝতে সাহায্য করবে পরিণতি কী। আসুন, আমরা একবার চোখ বুলিয়ে নিই—

আপনি সঙ্গীর আস্থা হারাবেন

যদি সঙ্গীর সঙ্গে অন্য কারও উপস্থিতি লক্ষ করেন, তবে তার প্রতি আপনি আস্থা হারিয়ে ফেলবেন। যেদিন আপনি সঙ্গীর গোপন প্রেম সম্পর্কে অবগত হবেন, সেদিন থেকে তাকে আর বিশ্বাস করতে পারবেন না। সঙ্গীকে আপনি অসৎ ও অনাস্থাভাজন ব্যক্তি হিসেবে বিবেচনা করবেন। আপনি যতই চেষ্টা করেন না কেন, আর সেই আগের আস্থা ফিরে পাবেন না।

কখনও প্রকৃত ঘটনার মুখোমুখি হতে পারবেন না

সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা কখনওই ন্যায্য হতে পারে না। ভেবে দেখুন, বিবাহ বা প্রেমের সম্পর্ক, কিছু কারণ হয়তো রয়েছে, যে জন্য আপনি সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা করছেন। কিন্তু আপনি উপলব্ধি করতে পারছেন না, যে মুহূর্তে আপনি সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণা করছেন, সে মুহূর্ত থেকেই প্রকৃত ঘটনা থেকে দূরে সরে যাচ্ছেন। সে ঘটনা বা কারণের মুখোমুখি না হয়ে বরং আপনি অন্য কারও সঙ্গে সম্পর্কে জড়িয়েছেন। এটা হয়তো আপনাকে সাময়িক আনন্দ দিতে পারে, কিন্তু ভবিষ্যতে এটিই বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়াবে।

নিজের সন্তানকে আঘাত দেবেন

যদি ভেবে থাকেন, আপনার গোপন সম্পর্ক সন্তানের ওপর প্রভাব ফেলবে না, তবে ভুল ভাবছেন। যখন আপনার এই গোপনীয়তা ফাঁস হবে, তখন তারাই সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হবে। মা-বাবা অন্য কারও সঙ্গে অঙ্গাঙ্গী জড়িত, এমনটা কোনো সন্তান মেনে নিতে পারে না। তারা এটাকে বেইমানির চোখে দেখে। আপনাকে বুঝতে হবে, আপনার সন্তান এর জন্য মানসিক ও সামাজিকভাবে পীড়ায় ভুগতে পারে।

এটা সঙ্গীর প্রতি অসম্মান

সঙ্গীকে অসম্মানের অন্যতম উপায় হলো তার সঙ্গে প্রতারণা করা। আপনার প্রতারণাপর্ব সঙ্গীকে এই অনুভূতি এনে দেবে যে তার প্রতি আপনার ন্যূনতম শ্রদ্ধাবোধ নেই, নেই ভালোবাসার মূল্যও। এটি আপনার সম্পর্কের দৃঢ়তাকে ভঙ্গুর করবে এবং আপনার সঙ্গীও নিশ্চয়ই এমন বন্ধন ছিন্ন করে দেবে।

অন্য সম্পর্কেও প্রভাব পড়বে

এমন নয় যে আপনি শুধু সঙ্গীর আস্থা হারালেন। যখন সঙ্গীর কাছে প্রতারণা ধরা পড়বে, অন্য সম্পর্কেও এর বাজে প্রভাব পড়বে। আপনার কাছের মানুষই আপনাকে আর সম্মান করবে না, আপনার মতকে অগ্রাহ্য করবে। তারা ভাববে, আপনি তাদের ঘনিষ্ঠজন হতে পারেন না। মোদ্দা কথা, আপনি চারপাশে থাকা নিকটজনও হারাবেন।

আপনারা আর এক হতে পারবেন না

সঙ্গীর সঙ্গে প্রতারণার অন্যতম বাজে ফল হলো, আপনারা আর কখনও এক হতে পারবেন না। যেদিন থেকে প্রতারণা শুরু করবেন, সেদিন থেকেই সঙ্গীর সঙ্গে একপ্রকার দূরত্ব তৈরি হবে। দুজনের সম্পর্কে তৃতীয় পক্ষের আগমন অবধারিতভাবেই আপনাদের বন্ধনকে ছিন্ন করে দেবে। পরে যতই চেষ্টা করুন, সেই ভাঙা সম্পর্ক আর জোড়া লাগাতে পারবেন না।

প্রতারণা করুন আর যা-ই করুন, মনে রাখবেন, একবার সম্পর্ক ভেঙে গেলে তা জোড়া লাগানো কষ্টকর। হতে পারে, আপনি আপনার জীবন থেকে একজন গুরুত্বপূর্ণ সঙ্গী হারালেন। এর চেয়ে ভালো দুজনের মধ্যে কোনোপ্রকার বিরোধ দেখা দিলে তা সমাধানের চেষ্টা করা। এতে শুধু আপনার সম্পর্ক টিকেই থাকবে না, বরং সুখী ও শান্তিপূর্ণ যুগলজীবন যাপন করতে পারবেন।

আমারসংবাদ/আরইউ

Link copied!