Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই, ২০২৪,

কুড়িগ্রামে তিস্তা নদীতে নৌকা ডুবিতে ১ শিশুর মৃত্যু, ৬জন নিখোঁজ

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

জুন ২০, ২০২৪, ০৮:৩২ পিএম


কুড়িগ্রামে তিস্তা নদীতে নৌকা ডুবিতে ১ শিশুর মৃত্যু, ৬জন নিখোঁজ

কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার বজরা ইউনিয়নে তিস্তা নদীতে নৌকা ডুবিতে শিশুর মরদেহ উদ্ধার। এখনো ৬জন নিখোঁজ রয়েছে বলে স্বজনরা জানিয়েছে।

বুধবার (১৯জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় ২৫জন যাত্রী নিয়ে রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার সাপটানা এলাকায় বিয়ে খেতে গিয়ে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজের ঘটনাটি ঘটে।

নৌকার যাত্রী বজরা মিয়াজিপাড়ার আমজাদ হোসেনের ছেলে আরিফুল ইসলাম জানান, আমরা বিয়ে খাওয়ার উদ্দেশ্যে সাপাটানা যাচ্ছিলাম পথিমধ্যে বৃষ্টি আর ঝড়ো বাতাসের ফলে বজরার সাতালস্কর এলাকায় হঠাৎ করে নৌকাটা ডুবে যায়। আমি কোন রকমে সাঁতরে তীরে গিয়ে পৌঁছাই। এসময় ধরাধরি করে মোট ১৮জন পাড়ে উঠতে পারি। কিন্তু ২৫জনের মধ্যে ৭জনকে পাওয়া যায়নি। পরে আজিজুর রহমানের মেয়ে আয়শা খাতুনকে মৃত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। এখন পর্যন্ত আমার ভাগ্নে আনিছুর রহমান (৩০), তার স্ত্রী রুপালি বেগম (২৫), মেয়ে আইরিন (৯), ভাস্তি কয়জন আলীর মেয়ে কুলসুম (৩) ও আজিজুর রহমানের চেলে শামিম (৫) পাওয়া যায়নি। তারা নদীতে নিখোঁজ অবস্থায় রয়েছে।

নৌকার যাত্রী আমিনা বেগম জানান, আমার মা ও ভাতিজাসহ ৪জন দাওয়াত খেতে যাওয়ার সময় নৌকাটি তিস্তার স্রোতে ডুবে যায়। তারা কোন রকমে সাঁতরিয়ে তীরে উঠলেও ভাতিজা শামিম ডুবে যায়। তাকে এখনো পাওয়া যায়নি।

অপর যাত্রী শরিফা বেগম জানান, নৌকা ডুবির সময় আমার তিন বছরের শিশু কুলসুম নদীতে ডুবে যায়। আমি প্রচুর পানি খেয়ে অসুস্থ হয়ে পরেছিলাম। দুপুর পর্যন্ত উলিপুর হাসপাতালে চিকিৎসা নেয়ার পর আজ বাড়ি ফিরেছি।

বিষয়টি নিয়ে কুড়িগ্রাম ফায়ার সার্ভিসের সিনিয়র স্টেশন অফিসার শরিফুল ইসলাম জানান, বৈরী আবহাওয়ায় ডিঙি নৌকায় করে ২৫জন যাত্রী নিয়ে রংপুরের কাউনিয়া উপজেলার সাপাটানা এলাকায় যাওয়ার সময় নৌকা ডুিবর ঘটনা ঘটে বলে এলাকাবাসী জানিয়েছে। ইতিমধ্যে একজন শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ১৮জন তীরে উঠতে পেরেছে। এখনো ৬জন নিখোঁজ রয়েছে বলে তারা দাবি করছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে রংপুর থেকে ৬জন ডুবুরি এবং কুড়িগ্রাম থেকে ৫জন সাহায্যকারীসহ মোট ১১জন উদ্ধার কাজ পরিচালনা করছে। এখনো পর্যন্ত কাউকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে উলিপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আতাউর রহমান জানান, নৌকার যাত্রীদের কথামতো নৌকায় থাকা আরো ৬জন যাত্রী নিখোঁজ রয়েছে বলে জানতে পেরেছি। তাদের উদ্ধারে রংপুর থেকে ডুবুরির দল তিস্তা নদীতে তল্লাশি চালাচ্ছে। এখন পর্যন্ত কাউকে পাওয়া যায়নি।

আরএস

Link copied!