Amar Sangbad
ঢাকা সোমবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২২, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯

অস্তিত্ব সংকটে ঝিনাই নদীতে

ধনবাড়ী (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

ধনবাড়ী (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

নভেম্বর ২৪, ২০২২, ০৬:০৯ পিএম


অস্তিত্ব সংকটে ঝিনাই নদীতে

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার বলিভদ্র ইউনিয়নের কেরামজানি পশ্চিমপাড়ার ঝিনাই নদীতে আবারও শুরু হয়েছে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। প্রতিবার বাংলা ড্রেজার মেশিনের বসিয়ে বালু উত্তোলনের ফলে নদী দুই পাড় ভেঙে এখন অস্তিত্ব সংকটে পড়েছে। এতে নদীর পাড়ের ফসলি জমি বিলীন হয়ে যাচ্ছে। সীমান্তবর্তী নদী হওয়ায় বালু উত্তোলন শুরু করেছন পার্শ্ববর্তী উপজেলার আব্দুল মালেক ড্রাইভার। সে সরিষাবাড়ী উপজেলার কাবারিয়াবাড়ী (চাঁইন্দার মোড়) গ্রামের বাসিন্দা।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে নদী পাড়ে গিয়ে দেখা যায়, বাংলা ড্রেজার মেশিন বসিয়ে নদী থেকে  আ. জামাল ও ওমর আলী নামের দুইজন শ্রমিক বালু উত্তোলন করছে। বালু পাইন লাইনে নেয়া হচ্ছে কাবারিয়াবাড়ী বাজারে।

তারা আরও জানান, এখান থেকে ৩০ থেকে ৪০ হাজার মাটি কাটা হবে। ধনবাড়ীর সয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক স্বপন মিয়ার জমি নদীতে চলে যাওয়ায় তার সুবাধে বালু উত্তোলন হচ্ছে।

কেরামজানী গ্রামের ডিশ ব্যবসায়ী কবির হোসেন ওরফে কাঙ্গাল বলেন, ‘প্রতিবার বিভিন্ন চক্র এভাবে বালু উত্তোলন করে। প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করি।’ 
অপরবাসিন্দা মোজাম্মেলন হোসেন ও ফজিলা বেগম বলেন, ‘এভাবে বালু উত্তোলনের ফলে ফসলি জমি নদীতে চলে যাওয়ায় সবাই ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।’

বালু উত্তোলনের বিষয়ে জানতে চাইলে আব্দুল মালেক ড্রাইভার বলেন, ‘স্বপন মিয়ার জমি থেকে মাটি কাটি কাটা হচ্ছে। কিছু মাটি প্রয়োজন।’

বালিভদ্র ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য মেহেদী হাসান ফারুক বলেন, ‘নদী থেকে প্রতিবার এভাবে একটি চক্র বালু উত্তোলন করে। এতে স্থানীয়রা ক্ষতির মুখে পড়েছে। প্রশাসনের দৃষ্টি কামনা করি।’

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ফারাহ ফাতিহা তাকমিলা বলেন, ‘বিষয়টি খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এসএম

Link copied!