Amar Sangbad
ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট, ২০২২, ৩১ শ্রাবণ ১৪২৯

শেকৃবি ছাত্রলীগের বিতর্কিত হল কমিটি, ক্ষুব্ধ পদবঞ্চিতরা

শেকৃবি প্রতিনিধি

শেকৃবি প্রতিনিধি

আগস্ট ৪, ২০২২, ০৪:৫৭ পিএম


শেকৃবি ছাত্রলীগের বিতর্কিত হল কমিটি, ক্ষুব্ধ পদবঞ্চিতরা

শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ হল কমিটি নিয়ে তীব্র সমালোচনা শুরু হয়েছে। কবি কাজী নজরুল ইসলাম হল কমিটিতে ত্যাগী কর্মীদের অবমূল্যায়ন, বিতর্কিতরা পদ পেয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।  দীর্ঘদিন রাজনীতি করেও ছাত্রলীগের কোন পরিচয় না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে পদবঞ্চিতরা।

একাধিক পদবঞ্চিত ছাত্রলীগ কর্মীর অভিযোগ, দীর্ঘদিন রাজনীতি করেও কোন পদ পাইনি। অথচ যারা রাজনীতিতে সক্রিয় ছিল না, তারাই ভালো পদ পেয়েছে। অঞ্চলপ্রীতিকে প্রাধান্য দিয়ে নিজেদের ইচ্ছেমতো পদ দেওয়া হয়েছে। কবি কাজী নজরুল ইসলাম হলের আইন সম্পাদক পদ পেয়েছে বিতর্কিত খোকন মিয়া। সে ভিন্ন মতাদর্শী এটা তো ওপেন- সিক্রেট। রাজনীতিতে সক্রিয় থেকে পদ না পেয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে শেখ হাসিনা হলের পদ বঞ্চিতরা।

শেখ হাসিনা হলের পদবঞ্চিত এক ছাত্রলীগ কর্মী জানান, ২০১৬ সাল থেকে ছাত্রলীগের সাথে যুক্ত। আমাকে হল সভাপতি বানানোর কথা থাকলেও করা হয়নি। হলের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতেও রাখা হয়নি। ৬ বছর রাজনীতি করেও কোন পরিচয় পেলাম না, অথচ জুনিয়র সহ-সভাপতি পদ পেয়েছে। আমার কিছু বলার নেই।

এ বিষয়ে শেখ হাসিনা হল ছাত্রলীগের সভাপতি সাবেরী আনোয়ার বলেন, তার নামে বিভিন্ন অভিযোগ আছে বলে তাকে রাখা হয়নি। সে আমার সাথে রাজনীতি করেনি, বিতর্কিত কাউকে তো পদ দেওয়া যায় না।

এদিকে সিনিয়র কর্মীদের অবমূল্যায়ন করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জুনিয়র কর্মীদের  প্রাধান্য দিয়ে যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, সাংগঠনিক সম্পাদক পদ দেওয়া হয়েছে, বেশ কিছু সিনিয়র কর্মীকে বিভিন্ন উপ পদে রাখা হয়েছে। একসাথে রাজনীতি করেও অঞ্চলপ্রীতির কারণে যোগ্যতা অনুযায়ী পদ দেওয়া হয়নি। এতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ঐসকল নেতারা ।

এক ছাত্রলীগ নেতা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমার জুনিয়ররা আমার উপরের পোস্টে আর আমি অনেক নিচের পোস্টে। কমিটিতে সিনিয়র জুনিয়র মানা হয়নি, আমাকে হাসির পাত্র বানানো হয়েছে। সাধারণ সম্পাদক আরিফ ভাইকে এ কথা বলেছিলাম বলে, ভাই বলেছেন মান সম্মানে লাগলে পদ থেকে অব্যাহতি নিতে।

কবি কাজী নজরুল ইসলাম হল ছাত্রলীগের সভাপতি সজিব হোসাইন বলেন, যারা নিয়মিত প্রোগ্রাম করেছে, বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করেছে, তাদের যাচাই-বাছাই করেই পদ দেওয়া হয়েছে।

শেকৃবি শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান বলেন, আমরা বিষয়টা দেখব। এ ধরনের ঘটনা ঘটলে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নিব।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১২ ডিসেম্বর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদ দিয়ে ৫ টি হলের আংশিক কমিটি ঘোষণা করা হয়েছিল। গত ৩১ জুলাই মধ্যরাতে শেকৃবি শাখা ছাত্রলীগের ৫ টি হলের পূর্ণাঙ্গ হল কমিটি ঘোষণা করা হয়।

আমারসংবাদ/এসএম