Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪,

বিএনপি

গুম-বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড নিয়ে সোচ্চার থাকায় আদিলুরকে দণ্ড

মো. মাসুম বিল্লাহ

সেপ্টেম্বর ১৫, ২০২৩, ০৫:০১ পিএম


গুম-বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড নিয়ে সোচ্চার থাকায় আদিলুরকে দণ্ড

গুম ও বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড নিয়ে সোচ্চার থাকায় মানবাধিকার সংস্থা অধিকারের সম্পাদক আদিলুর রহমান খানকে কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করেছে বিএনপি।

শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এই দাবি করেন।

ফখরুল বলেন, ‘বাংলাদেশে গুম করে দেওয়া ও বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড- এই ব্যাপারে তিনি (আদিলুর রহমান খান) ছিলেন সবচেয়ে সোচ্চার এবং এই বিষয়গুলো তিনি আন্তজাতিক অঙ্গনে, হিউম্যান রাইট কমিশন, মানবাধিকার সংস্থাগুলোতে তুলে ধরেছেন। যে কারণে তাকে এই কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।’ তিনি এহেন সাজার তীব্র নিন্দা জানিয়ে আদিলুর রহমান ও অধিকারের পরিচালক এ এস এস নাসির উদ্দিনের অবিলম্বে মুক্তি দাবি করেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, আদিলুর রহমান খান এক সাধারণ হিউম্যান রাইটস এক্সিভিস্ট নয়, তিনি আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন হিউম্যান রাইটস অ্যাক্টিভিস্ট এবং সারা পৃথিবীতে তিনি হিউম্যান রাইট অ্যাক্টিভিস্ট হিসেবে অত্যন্ত পরিচিত ও সমাদৃত। আপনারা নিশ্চয়ই লক্ষ করেছেন, ইউরোপীয় ইউনিয়নের পার্লামেন্টে তারা একটা রেজুলেশন নিয়েছে। সেই রেজুলেশনে তারা কনডেম করেছে এই সাজা দেওয়াকে এবং একই সঙ্গে তারা এই মামলা ও সাজা প্রত্যাহার করে তাকে মুক্তি দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ইউরোপীয় ইউনিউয়নের পার্লামেন্টে রেজুলেশনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে একেবারেই মানবাধিকার নেই এটা (সাজা) তারও একটা প্রমাণ। তারা বলেছেন, বাংলাদেশে ডেমোক্রেসি, মানবাধিকার এগুলো অত্যন্ত খারাপ, ক্রমেই নিচের দিকে নেমেছে। 

আমরা আজকে আদিলুর রহমান খান ও এ এস এম নাসির উদ্দিনকে অবিলম্বে সাজা প্রত্যাহার করে মুক্তি দেওয়ার দাবি জানাচ্ছি।’

তিনি বলেন, এতে প্রমাণিত হয়, বাংলাদেশের বিচার বিভাগ এখন পুরোপুরিভাবে সরকারের নিয়ন্ত্রণে চলে গেছে, দলীয়করণ হয়ে গেছে। আজকে কোনো মানুষই ন্যায়বিচার পাচ্ছে না, সেখান থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

উল্লেখ্য, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি আইনের ৫৭ ধারার মামলায় সাইবার ট্রাইব্যুনাল গতকাল আদিলুল রহমান ও এ এস এম নাসির উদ্দিনকে দুই বছরের কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকার অর্থদণ্ড প্রদান করে।

আরএস

Link copied!