community-bank-bangladesh
Amar Sangbad
ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২০ জুন, ২০২৪,

রিজার্ভ ও ব্যাংক পরিদর্শনের দায়িত্ব হারালেন কাজী ছাইদুর রহমান

অর্থনৈতিক প্রতিবেদক

জানুয়ারি ৩১, ২০২৩, ১০:০১ পিএম


রিজার্ভ ও ব্যাংক পরিদর্শনের দায়িত্ব হারালেন কাজী ছাইদুর রহমান

দীর্ঘদিন পর বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ব্যবস্থাপনা বিভাগের দায়িত্বে রদবদল আনা হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ এই বিভাগের তদারকির দায়িত্বে থাকা ডেপুটি গভর্নর কাজী ছাইদুর রহমানকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে।

একই সাথে দুটো ব্যাংক পরিদর্শন বিভাগের দায়িত্ব থেকেও তাকে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। সবকটি বিভাগের দায়িত্ব পেয়েছেন ডেপুটি গভর্নর আবু ফরাহ মো. নাছের। এক অভ্যন্তরীণ আদেশে গত ৩০ জানুয়ারী কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার এ রদবদল এনেছেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র মেজবাউল হক জানিয়েছেন, নিয়মিত প্রশাসনিক কাজের অংশ হিসেবে দায়িত্বে রদবদল আনা হয়েছে।

বৈদেশিক রিজার্ভ ব্যবস্থাপনা বিভাগ বৈদেশিক মুদ্রার মজুত, বিনিয়োগ ও বিক্রির বিষয়টি দেখাশোনা করে। এ বিভাগের সঙ্গে কাজী ছাইদুর রহমানের দীর্ঘদিনের সংশ্লিষ্টতা ছিল। তিনি ২৫ বছর ধরে বিভিন্ন পদে রিজার্ভ ব্যবস্থাপনা বিভাগেই ছিলেন।

ফলে ডলারের দাম নির্ধারণ, রিজার্ভ ব্যবস্থাপনা, ডলার বিক্রিসহ নানা ক্ষেত্রে তাঁর কর্তৃত্ব তৈরি হয়েছিল। এখন কি কারণে তাকে এ দায়িত্ব থেকে সড়ানো হয়েছে এ সম্পর্কে কোনো ব্যাখ্যা দেওয়া হয়নি। বাংলাদেশ ব্যাংকের কোনো দায়িত্বশীল কর্মকর্তা এ বিষয়ে মন্তব্য করতে রাজি হননি। সম্প্রতি ডলার –সংকটে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বিভিন্ন সিদ্ধান্ত নিয়ে নানা প্রশ্ন উঠেছে। এমন প্রেক্ষাপটে এ পদক্ষেপ নিয়েছেন গভর্নর।

একই সঙ্গে ব্যাংক পরিদর্শন-৪ ও ব্যাংক পরিদর্শন-৭ বিভাগের তদারকির দায়িত্ব হারিয়েছেন ডেপুটি গভর্নর কাজী ছাইদুর রহমান। এ দায়িত্বও পেয়েছেন ডেপুটি গভর্নর আবু ফরাহ মো. নাছের। ব্যাংক পরিদর্শন-৭ বিভাগের অধীনে আছে সোশ্যাল ইসলামী, আল-আরাফাহ্, এক্সিম, ইউনিয়নসহ কয়েকটি ব্যাংক। এসব ব্যাংকের মধ্যে সোশ্যাল ইসলামী ও ইউনিয়ন ব্যাংকে সম্প্রতি বড় ধরনের অনিয়ম চিহ্নিত হয়েছে, যা নিয়ে এখন ব্যাংক খাতে আলোচনা চলছে।

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ৫০টি বিভাগের তদারকির দায়িত্বে আছেন চারজন ডেপুটি গভর্নর। নতুন আদেশের ফলে ডেপুটি গভর্নর কাজী ছাইদুর রহমানের অধীনে থাকছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মানবসম্পদ বিভাগ, ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টিগ্রেটি অ্যান্ড কাস্টমার সার্ভিসেস, ডেট ম্যানেজমেন্ট, আইনসহ ১৪টি বিভাগ। রদবদলের মাধ্যমে তাঁকে মূলত বৈদেশিক মুদ্রা ব্যবস্থাপনা, ব্যাংক তদারকি ও নীতি প্রণয়নের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো।

আর আবু ফরাহ মো. নাছেরকে আরও বেশি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ, এসএমই বিভাগের পাশাপাশি বৈদেশিক রিজার্ভ ব্যবস্থাপনা ও ব্যাংক পরিদর্শনে তাঁকে যুক্ত করা হয়েছে। আর অপর দুই ডেপুটি গভর্নর আহমেদ জামাল ও এ কে এম সাজেদুর রহমান খানের দায়িত্বে কোনো পরিবর্তন আনা হয়নি।

এমআরএইচ/এবি

Link copied!