Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ০২ মার্চ, ২০২৪,

শিক্ষা ও গবেষণার উন্নয়নে স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় গড়ার আহ্বান ইউজিসি’র

মো. মাসুম বিল্লাহ

নভেম্বর ২৮, ২০২৩, ০৩:৫৪ পিএম


শিক্ষা ও গবেষণার উন্নয়নে স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় গড়ার আহ্বান ইউজিসি’র

স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে দেশের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক ও গবেষকদের নেতৃত্ব দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের (ইউজিসি) সদস্য ও ইনোভেশন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মো. সাজ্জাদ হোসেন।

বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের গবেষণা, উদ্ভাবন ও প্রযুক্তি আবিষ্কারের মাধ্যমে দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে ভূমিকা রাখার পরামর্শ দেন।  

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে তথ্য বাতায়ন নিয়মিত হালনাগাদ নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে মঙ্গলবার (২৮ নভেম্বর) অনুষ্ঠিত কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ইউজিসি’র অডিটোরিয়ামে দিনব্যাপী এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

অধ্যাপক সাজ্জাদ হোসেন বলেন, দেশের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরতে সব বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট নিয়মিত হালনাগাদে বিশেষ নজর দিতে হবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে শিক্ষকদের প্রোফাইল, গবেষণা ও উদ্ভাবন সংক্রান্ত তথ্য সংযুক্ত করা প্রয়োজন। এছাড়া, গবেষণার প্রকৃত চিত্র তুলে ধরতে একটি রিসার্চ ডাটা বেইজ গঠন করা উচিৎ বলে তিনি মনে করেন।

অধ্যাপক সাজ্জাদ হোসেন আরও বলেন, শিক্ষার  নিরাপদ পরিবেশ যেন বিনষ্ট না হয় সেদিকে নজর দিতে হবে। এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের সচেতন হতে হবে। শিক্ষার্থী ও গবেষকরা যাতে  নিজ নিজ কাজে মনোযোগী হতে পারে সেজন্য বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে উপযুক্ত পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে।

ইউজিসির গবেষণা সহায়তা ও প্রকাশনা বিভাগের পরিচালক ড. মো. ফখরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে কমিশনের সচিব ড. ফেরদৌস জামান বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন। কর্মশালায় সমাপনী বক্তব্য দেন গবেষণা সহায়তা ও প্রকাশনা বিভাগের অতিরিক্ত পরিচালক এবং ইনোভেশন কমিটির সদস্য মো. শাহীন সিরাজ।

ড. ফেরদৌস জামান বলেন, ওয়েবসাইট নিয়মিত হালনাগাদ করা না হলে বিশ্ব র্যাং কিংয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের অবস্থান পিছিয়ে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে।

ড. ফখরুল ইসলাম বলেন, স্মার্ট বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠা ও বিশ্ব র্যাং কিংয়ের জন্য শিক্ষা-গবেষণার তথ্য যথাযথভাবে ওয়েবসাইটে প্রকাশ করতে হবে।

ইউজিসির আইএমসিটি বিভাগের সিস্টেম ইঞ্জিনিয়ার ও ইনোভেশন ফোকাল পয়েন্ট দ্বিজেন্দ্র চন্দ্র দাসের উপস্থাপনায় কর্মশালায় ৪৬টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনোভেশন ফোকাল পয়েন্ট ও ওয়েবসাইট হালনাগাদকারী কর্মকর্তাগণ অংশগ্রহণ করেন।

আরএস

Link copied!