Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ২০ জুলাই, ২০২৪,

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন

২৯৮ আসনে আ.লীগ প্রার্থী ঘোষণা

সৈয়দ সাইফুল ইসলাম

নভেম্বর ২৭, ২০২৩, ১২:০০ এএম


২৯৮ আসনে আ.লীগ প্রার্থী ঘোষণা
  • ১০৪ আসনেই নতুন মুখ, বাদ পড়লেন ৭১ সংসদ সদস্য
  • ইনু ও সেলিম ওসমানের আসন ফাঁকা, মেননের আসনে নাছিম
  • ক্রীড়াঙ্গনের নতুন মুখ সাকিব আল হাসান চলচ্চিত্রের ফেরদৌস
  • পছন্দের ব্যক্তি নৌকা প্রতীক পাওয়ায় সমর্থকদের আনন্দ-উল্লাস

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনের বিপরীতে ২৯৮ আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে দলটি। গতকাল রোববার বিকেল ৪টায় ঢাকার বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের দলের মনোনীত প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেন। ৩০০ আসনের মধ্যে কুষ্টিয়া-২ ও নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে প্রার্থিতা ঘোষণা করেনি ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। নতুন ও পুরোনো মিলিয়ে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে বলেও জানান ওবায়দুল কাদের। বর্তমান মন্ত্রিসভার তিন সদস্য দ্বাদশ নির্বাচনে দলের মনোনয়ন পাননি। এ তিনজনই প্রতিমন্ত্রী। এছাড়াও একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়াদের মধ্যে এবার নতুন মুখ ১০৪ জন। মৃত্যুজনিত কারণে একাদশের অনেক আসনে আগেই নতুন মুখ এসেছে। এছাড়াও জনপ্রিয়তা ও নতুন নেতৃত্ব বিকাশের কথা মাথায় রেখে তরুণদের মনোনয়ন দেয়া হয়েছে। দলীয় মনোনয়নে এবার ক্রীড়াঙ্গনের নতুন মুখ শাকিব আল হাসান ও চিত্রজগতের ফেরদৌস আহমেদ যুক্ত হয়েছেন। ঢাকায় মনোনয়ন পেয়েছেন আলোচিত চার নেতা। এরা হচ্ছেন— আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, কেন্দ্রীয় যুগ্মসাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, সাবেক মেয়র সাঈদ খোকন এবং অ্যাডভোকেট সানজিদা খানম। এবার হেভিওয়েট কোনো মন্ত্রী বা আলোচিত নেতা দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হননি। তবে ঢাকায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন গতবারের মতো এবারও দলীয় মনোনয়ন বিবেচনায় আসেননি।  

মনোনয়ন পেলেন যারা :

(১) পঞ্চগড়-১ মো. নাইমুজ্জামান ভুইয়া (২) পঞ্চগড়-২ নুরুল ইসলাম সুজন (৩) ঠাকুরগাঁও-১ রমেশ চন্দ্র সেন (৪) ঠাকুরগাঁও-২ মাজহারুল ইসলাম (৫) ঠাকুরগাঁও-৩ ইমদাদুল হক (৬) দিনাজপুর-১ মনোরঞ্জন শীল গোপাল (৭) দিনাজপুর-২ খালিদ মাহমুদ চৌধুরী (৮) দিনাজপুর-৩ ইকবালুর রহিম (৯) দিনাজপুর-৪ আবুল হাসান মাহমুদ আলী (১০) দিনাজপুর-৫ মোস্তাফিজুর রহমান ফিজার (১১) দিনাজপুর-৬ শিবলী সাদিক (১২)  নীলফামারী-১ আফতাব উদ্দিন সরকার (১৩) নীলফামারী-২ আসাদুজ্জামান নূর (১৪) নীলফামারী-৩ গোলাম মোস্তাফা (১৫) নীলফামারী-৪ জাকির হোসেন বাবুল (১৬) লালমনিরহাট-১ মোতাহার হোসেন (১৭) লালমনিরহাট-২ নুরুজ্জামান আহমেদ (১৮) লালমনিরহাট-৩ মোহাম্মাদ মতিয়ার (১৯) রংপুর-১ রেজাউল করিম (২০) রংপুর-২ আবুল কালাম (২১) রংপুর-৩ তুষার কান্তি মণ্ডল (২২) রংপুর-৪ টিপু মুনশি (২৩) রংপুর-৫ রাশেক রহমান (২৪) রংপুর-৬ শিরীন শারমিন চৌধুরী (২৫) কুড়িগ্রাম-১ আছলাম হোসেন সওদাগর (২৬) কুড়িগ্রাম-২ জাফর আলী (২৭) কুড়িগ্রাম-৩ সৌমেন্দ্র প্রসাদ (২৮) কুড়িগ্রাম-৪ বিপ্লব হাসান (২৯) গাইবান্ধা-১ আফরোজা বারী (৩০) গাইবান্ধা-২ মাহাবুব আরা বেগম গিনি (৩১)।

গাইবান্ধা-৩ উম্মে কুলসুম স্মৃতি (৩২) গাইবান্ধা-৪ আবুল কালাম আজদ (৩৩) গাইবান্ধা-৫ মাহমুদ হাসান (৩৪) জয়পুরহাট-১ সামছুল আলম দুদু (৩৫) জয়পুরহাট-২ আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন (৩৬) বগুড়া-১ শাহাদারা মান্নান শিল্পী (৩৭) বগুড়া-২ তৌহিদুর রহমান মানিক (৩৮) বগুড়া-৩ সিরাজুল আলম রাজ (৩৯) বগুড়া-৪ হেলাল উদ্দিন কবিরাজ (৪০) বগুড়া-৫ মজিবুর রহমান (৪১) বগুড়া-৬ রাগেবুল আহসান রিপু (৪২) বগুড়া-৭ মোস্তাফা আলম (৪৩) চাঁপাইনবাবগঞ্জ-১ সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল (৪৪) চাঁপাইনবাবগঞ্জ-২ মু. জিয়াউর রহমান (৪৫) চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ মো. আব্দুল ওদুদ (৪৬) নওগাঁ-১ সাধন চন্দ্র মজুমদার (৪৭) নওগাঁ-২ শহিদুজ্জামান সরকার (৪৮) নওগাঁ-৩ সৌরেন্দ্র নাথ চক্রবর্তী (৪৯) নওগাঁ-৪ মো. নাহিদ মোর্শেদ (৫০) নওগাঁ-৫ নিজাম উদ্দিন জলিল (৫১) নওগাঁ-৬ আনোয়ার হোসেন হেলাল (৫২) রাজশাহী-১ ওমর ফারুক চৌধুরী (৫৩) রাজশাহী-২ মোহাম্মদ আলী (৫৪) রাজশাহী-৩ আসাদুজ্জামান আসাদ (৫৫) রাজশাহী-৪ আবুল কালাম আজাদ (৫৬) রাজশাহী-৫ মোহাম্মাদ আব্দুল ওয়াদুদ (৫৭) রাজশাহী-৬ শাহরিয়ার আলম (৫৮) নাটোর-১ শহিদুল ইসলাম বকুল (৫৯) নাটোর-২ শফিকুল ইসলাম শিমুল (৬০) নাটোর-৩ জুনাইদ আহ্?মেদ পলক (৬১) নাটোর-৪ সিদ্দিকুর রহমান পাটোয়ারী (৬২)।

সিরাজগঞ্জ-১ তানভীর শাকিল জয় (৬৩) সিরাজগঞ্জ-২ জান্নাত আরা হেনরি (৬৪) সিরাজগঞ্জ-৩ আব্দুল আজিজ (৬৫) সিরাজগঞ্জ-৪ শফিকুল ইসলাম (৬৬) সিরাজগঞ্জ-৫ আব্দুল মমিন মণ্ডল (৬৭) সিরাজগঞ্জ-৬ চয়ন ইসলাম (৬৮) পাবনা-১ শামসুল হক টুকু (৬৯) পাবনা-২ আহমেদ ফিরোজ কবীর (৭০) পাবনা-৩ মকবুল হোসেন (৭১) পাবনা-৪ গালিবুল রহমান শরীফ (৭২) পাবনা-৫ গোলাম ফারুক খন্দকার প্রিন্স (৭৩) মেহেরপুর-১ ফরহাদ হোসেন (৭৪) মেহেরপুর-২ নাজুমুল হক (৭৫) কুষ্টিয়া-১ সরওয়ার জাহান বাদশা (৭৬) কুষ্টিয়া-২ (অপ্রকাশিত) (৭৭) কুষ্টিয়া-৩ মাহবুবুল আলম হানিফ (৭৮) কুষ্টিয়া-৪ সেলিম আলতাফ জর্জ (৭৯) চুয়াডাঙ্গা-১ সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার (৮০) চুয়াডাঙ্গা-২ আলী আজগার টগর (৮১) ।

ঝিনাইদহ-১ আব্দুল হাই (৮২) ঝিনাইদহ-২ তাহজীব আলম সিদ্দিকী (৮৩) ঝিনাইদহ-৩ সালাহ উদ্দিন মিয়াজী (৮৪) ঝিনাইদহ-৪ আনোয়ারুল আজীম (৮৫) যশোর-১ শেখ আফিল উদ্দিন (৮৬) যশোর-২ তৌহিদুজ্জামান (৮৭) যশোর-৩ কাজী নাবিল আহমেদ (৮৮) যশোর-৪ এনামুল হক বাবুল (৮৯) যশোর-৫ স্বপন ভট্টাচার্য্য (৯০) যশোর-৬ শাহীন চাকলাদার (৯১) মাগুরা-১ সাকিব আল হাসান (৯২) মাগুরা-২ বীরেন শিকদার (৯৩) নড়াইল-১ কবিরুল হক (৯৪) নড়াইল-২ মাশরাফি বিন মর্তুজা (৯৫) বাগেরহাট-১ শেখ হেলাল উদ্দীন (৯৬) বাগেরহাট-২ শেখ তন্ময় (৯৭) বাগেরহাট-৩ হাবিবুন নাহার (৯৮) বাগেরহাট-৪ এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ (৯৯) খুলনা-১ ননী গোপাল মণ্ডল (১০০) খুলনা-২ শেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল (১০১) খুলনা-৩ এস এম কামাল (১০২) খুলনা-৪ আব্দুস সালাম মুর্শেদী (১০৩) খুলনা-৫ নারায়ণ চন্দ্র চন্দ (১০৪) খুলনা-৬ রশীদুজ্জামান (১০৫)। 

সাতক্ষীরা-১ ফিরোজ আহমেদ স্বপন (১০৬) সাতক্ষীরা-২ মো. আসাদুজ্জামান বাবু (১০৭) সাতক্ষীরা-৩ আ ফ ম রুহুল হক (১০৮) সাতক্ষীরা-৪ এস এম আতাউল হক (১০৯) বরগুনা-১ ধীরেন্দ্র দেবনাথ শমভু (১১০) বরগুনা-২ সুলতানা নাদিরা (১১১) পটুয়াখালী-১ আফজাল হোসেন (১১২) পটুয়াখালী-২ আ স ম ফিরোজ (১১৩) পটুয়াখালী-৩ এস এম শাহাজাদা (১১৪) পটুয়াখালী-৪ মহিববুর রহমান (১১৫) ভোলা-১ তোফায়েল আহমেদ (১১৬) ভোলা-২ আলী আজম (১১৭) ভোলা-৩ নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন (১১৮) ভোলা-৪ আব্দুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব (১১৯) বরিশাল-১ আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ (১২০) বরিশাল-২ তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুস (১২১) বরিশাল-৩ মো. খালেদ হোসেন (১২২) বরিশাল-৪  শাম্মী আহমেদ (১২৩) বরিশাল-৫ জাহিদ ফারুক শামীম (১২৪) বরিশাল-৬  আবদুল হাফিজ মল্লিক (১২৫) ঝালকাঠি-১ বজলুল হক হারুন (১২৬) ঝালকাঠি-২ আমির হোসেন আমু (১২৭) পিরোজপুর-১ শ ম রেজাউল করিম (১২৮) পিরোজপুর-২ কানাই লাল বিশ্বাস (১২৯) পিরোজপুর-৩ আশরাফুর রহমান (১৩০)। 

টাঙ্গাইল-১ আব্দুর রাজ্জাক (১৩১) টাঙ্গাইল-২ তানভীর হাসান ছোট মনির (১৩২) টাঙ্গাইল-৩ কামরুল হাসান খান (১৩৩) টাঙ্গাইল-৪ মোজহারুল ইসলাম তালুকদার (১৩৪) টাঙ্গাইল-৫ মামুন অর রশিদ (১৩৫) টাঙ্গাইল-৬ আহসানুল ইসলাম টিটু (১৩৬) টাঙ্গাইল-৭ খান আহমেদ শুভ (১৩৭) টাঙ্গাইল-৮ অনুপম শাজহান জয় (১৩৮) জামালপুর-১ নূর মোহাম্মদ (১৩৯) জামালপুর-২ ফরিদুল হক খান (১৪০) জামালপুর-৩ মির্জা আজম (১৪১) জামালপুর-৪ মাহবুবুর রহমান (১৪২) জামালপুর-৫ আবুল কালাম আজাদ (১৪৩) শেরপুর-১ আতিউর রহমান আতিক (১৪৪) শেরপুর-২ মতিয়া চৌধুরী (১৪৫) শেরপুর-৩ এ ডি এম শহিদুল ইসলাম (১৪৬) ময়মনসিংহ-১ জুয়েল আরেং (১৪৭) ময়মনসিংহ-২ শরীফ আহমেদ (১৪৮) ময়মনসিংহ-৩ নিলুফার আনজুম (১৪৯) ময়মনসিংহ-৪ মোহিত উর রহমান (১৫০) ময়মনসিংহ-৫ আবদুল হাই আকন্দ (১৫১) ময়মনসিংহ-৬ মোসলেম উদ্দিন (১৫২) ময়মনসিংহ-৭ হাফেজ রুহুল আমিন মাদানী (১৫৩) ময়মনসিংহ-৮ আব্দুছ সাত্তার (১৫৪) ময়মনসিংহ-৯ আবদুস সালাম (১৫৫) ময়মনসিংহ-১০ ফাহমী গোলন্দাজ বাবেল (১৫৬) ময়মনসিংহ-১১ কাজিম উদ্দিন আহম্মেদ (১৫৭) ।

নেত্রকোনা-১ মোশতাক আহমেদ রুহী (১৫৮) নেত্রকোনা-২ আশরাফ আলী খান খসরু (১৫৯) নেত্রকোনা-৩ অসীম কুমার উকিল (১৬০) নেত্রকোনা-৪ সাজ্জাদুল হাসান (১৬১) নেত্রকোনা-৫ আহমদ হোসেন (১৬২) কিশোরগঞ্জ-১ জাকিয়া নূর লিপি (১৬৩) কিশোরগঞ্জ-২ আবদুল কাহার আকন্দ (১৬৪) কিশোরগঞ্জ-৩ নাসিরুল ইসলাম খান (১৬৫) কিশোরগঞ্জ-৪ রেজওয়ান আহাম্মদ তৌফিক (১৬৬) কিশোরগঞ্জ-৫ আফজাল হোসেন (১৬৭) কিশোরগঞ্জ-৬ নাজমুল হাসান পাপন (১৬৮) মানিকগঞ্জ-১ আবদুস সালাম (১৬৯) মানিকগঞ্জ-২ মমতাজ বেগম (১৭০) মানিকগঞ্জ-৩ জাহিদ মালেক (১৭১) মুন্সীগঞ্জ-১ মহিউদ্দিন আহমেদ (১৭২) মুন্সীগঞ্জ-২ সাগুফতা ইয়াসমিন এমিলি (১৭৩) মুন্সীগঞ্জ-৩ মৃনাল কান্তি দাস (১৭৪)।

ঢাকা-১ সালমান এফ রহমান (১৭৫) ঢাকা-২ কামরুল ইসলাম (১৭৬) ঢাকা-৩ নসরুল হামিদ (১৭৭) ঢাকা-৪ সানজিদা খানম (১৭৮) ঢাকা-৫ হারুনুর রশিদ মুন্না (১৭৯) ঢাকা-৬ সাঈদ খোকন (১৮০) ঢাকা-৭ সোলায়মান সেলিম (১৮১) ঢাকা-৮ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম (১৮২) ঢাকা-৯ সাবের হোসেন চৌধুরী (১৮৩) ঢাকা-১০ ফেরদৌস আহমেদ (১৮৪) ঢাকা-১১ মো. ওয়াকিল উদ্দিন (১৮৫) ঢাকা-১২ আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল (১৮৬) ঢাকা-১৩ জাহাঙ্গীর কবির  নানক (১৮৭) ঢাকা-১৪ মাইনুল হোসেন খান (১৮৮) ঢাকা-১৫ কামাল আহমেদ মজুমদার (১৮৯) ঢাকা-১৬ ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহ (১৯০) ঢাকা-১৭ মোহাম্মদ এ আরাফাত (১৯১) ঢাকা-১৮ হাবিব হাসান (১৯২) ঢাকা-১৯ এনামুর রহমান (১৯৩) ঢাকা-২০ বেনজীর আহমদ (১৯৪) ।

গাজীপুর-১ আ ক ম মোজাম্মেল হক (১৯৫) গাজীপুর-২ জাহিদ আহসান রাসেল (১৯৬) গাজীপুর-৩ রুমানা আলী (১৯৭) গাজীপুর-৪ সিমিন হোসেন রিমি (১৯৮) গাজীপুর-৫ মেহের আফরোজ চুমকি (১৯৯) নরসিংদী-১ মোহাম্মদ নজরুল ইসলাম (২০০) নরসিংদী-২ আনোয়ারুল আশরাফ খান (২০১) নরসিংদী-৩ ফজলে রাব্বি খান (২০২) নরসিংদী-৪ নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন (২০৩) নরসিংদী-৫ রাজিউদ্দিন আহমেদ রাজু (২০৪) নারায়ণগঞ্জ-১ গোলাম দস্তগীর গাজী (২০৫) নারায়ণগঞ্জ-২ নজরুল ইসলাম বাবু (২০৬) নারায়ণগঞ্জ-৩ আবদুল্লাহ আল কাইসার (২০৭) নারায়ণগঞ্জ-৪ শামীম ওসমান (২০৮)নারায়ণগঞ্জ-৫ ঘোষণা হয়নি (২০৯) রাজবাড়ী-১ কাজী কেরামত আলী (২১০) রাজবাড়ী-২ জিল্লুল হাকিম (২১১) ফরিদপুর-১ আবদুর রহমান (২১২) ফরিদপুর-২ শাহদাব আকবর চৌধুরী লাবু (২১৩) ফরিদপুর-৩ শামীম হক (২১৪) ফরিদপুর-৪ কাজী জাফর উল্লাহ (২১৫) গোপালগঞ্জ-১ ফারুক খান (২১৬) গোপালগঞ্জ-২ শেখ ফজলুল করিম সেলিম (২১৭) গোপালগঞ্জ-৩ শেখ হাসিনা (২১৮) মাদারীপুর-১ নূর-ই-আলম চৌধুরী (২১৯) মাদারীপুর-২ শাজাহান খান (২২০) মাদারীপুর-৩ আবদুস সোবহান গোলাপ (২২১) শরীয়তপুর-১ ইকবাল হোসেন অপু (২২২) শরীয়তপুর-২ এ কে এম এনামুল হক শামীম (২২৩)শরীয়তপুর-৩ নাহিম রাজ্জাক (২২৪) ।

সুনামগঞ্জ-১ রনজিত চন্দ্র সরকার (২২৫) সুনামগঞ্জ-২ চৌধুরি আবদুল্লাহ আল মাহমুদ (২২৬) সুনামগঞ্জ-৩ এম এ মান্নান  (২২৭) সুনামগঞ্জ-৪ মোহাম্মদ সাদিক (২২৮) সুনামগঞ্জ-৫ মুহিবুর রহমান মানিক (২২৯) সিলেট-১ আবুল কালাম আব্দুল মোমেন (২৩০) সিলেট-২ শফিকুর রহমান চৌধুরী (২৩১) সিলেট-৩ হাবিবুর রহমান (২৩২) সিলেট-৪ ইমরান আহমদ (২৩৩) সিলেট-৫ মাশুক উদ্দিন আহমেদ (২৩৪) সিলেট-৬ নুরুল ইসলাম নাহিদ (২৩৫) মৌলভীবাজার-১ শাহাব উদ্দিন (২৩৬) মৌলভীবাজার-২ শফিউল আলম (২৩৭) মৌলভীবাজার-৩ জিল্লুর রহমান (২৩৮) মৌলভীবাজার-৪ আব্দুস শহীদ (২৩৯) হবিগঞ্জ-১ মুশফিক হোসেন (২৪০) হবিগঞ্জ-২ ময়েজউদ্দিন শরিফ (২৪১) হবিগঞ্জ-৩ আবু জাহির (২৪২) হবিগঞ্জ-৪ মাহবুব আলী (২৪৩) ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ বদরুদ্দোজা মো. ফরহাদ হোসেন (২৪৪) ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ শাহজাহান আলম (২৪৫) ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৩ উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী  (২৪৬) ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪ আনিসুল হক (২৪৭) ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ ফয়জুর রহমান (২৪৮) ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৬ এ বি তাজুল ইসলাম (২৪৯) ।

কুমিল্লা-১ মোহাম্মদ আবদুস সবুর (২৫০) কুমিল্লা-২ সেলিমা আহমাদ (২৫১) কুমিল্লা-৩ ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন (২৫২) কুমিল্লা-৪ রাজী মোহাম্মদ ফখরুল (২৫৩) কুমিল্লা-৫ আবুল হাসেম খান (২৫৪) কুমিল্লা-৬ আ ক ম বাহাউদ্দিন (২৫৫) কুমিল্লা-৭  প্রাণ গোপাল দত্ত (২৫৬) কুমিল্লা-৮ আবু জাফর (২৫৭) কুমিল্লা-৯ তাজুল ইসলাম (২৫৮) কুমিল্লা-১০ আ হ ম মোস্তফা কামাল (২৫৯) কুমিল্লা-১১ মুজিবুল হক মুজিব (২৬০) চাঁদপুর-১ সেলিম মাহমুদ (২৬১) চাঁদপুর-২ মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী (২৬২) চাঁদপুর-৩ দীপু মনি (২৬৩) চাঁদপুর-৪ মুহম্মদ শফিকুর রহমান (২৬৪) চাঁদপুর-৫ রফিকুল ইসলাম (২৬৫) ফেনী-১ আলাউদ্দীন আহমদ চৌধুরী (২৬৬) ফেনী-২ নিজাম উদ্দিন হাজারী (২৬৭) ফেনী-৩ আবুল বাশার (২৬৮) নোয়াখালী-১ এইচ এম ইব্রাহিম (২৬৯) নোয়াখালী-২ মোরশেদ আলম (২৭০) নোয়াখালী-৩ মামুনুর রশীদ কিরন (২৭১) নোয়াখালী-৪ মোহাম্মদ একরামুল করিম চৌধুরী (২৭২) নোয়াখালী-৫ ওবায়দুল কাদের (২৭৩) নোয়াখালী-৬ মোহাম্মদ আলী (২৭৪) লক্ষ্মীপুর-১ আনোয়ার হোসেন খান (২৭৫) লক্ষ্মীপুর-২ নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন (২৭৬) লক্ষ্মীপুর-৩ গোলাম ফারুক পিংকু (২৭৭) লক্ষ্মীপুর-৪ ফরিদুন্নাহার লাইলি (২৭৮) ।

চট্টগ্রাম-১ মাহবুবুর রহমান (২৭৯) চট্টগ্রাম-২ খাদিজাতুল আনোয়ার (২৮০) চট্টগ্রাম-৩ মাহফুজুর রহমান (২৮১) চট্টগ্রাম-৪ এস এম আল মামুন (২৮২) চট্টগ্রাম-৫ আবদুস সালাম (২৮৩) চট্টগ্রাম-৬ এ বি এম ফজলে করিম চৌধুরী (২৮৪) চট্টগ্রাম-৭ মোহাম্মদ হাছান মাহমুদ (২৮৫) চট্টগ্রাম-৮ নোমান আল মাহমুদ (২৮৬) চট্টগ্রাম-৯ মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল (২৮৭) চট্টগ্রাম-১০ মো. মহিউদ্দিন বাচ্চু (২৮৮) চট্টগ্রাম-১১ এম আবদুল লতিফ (২৮৯) চট্টগ্রাম-১২ মোতাহেরুল ইসলাম চৌধুরী (২৯০) চট্টগ্রাম-১৩ সাইফুজ্জামান চৌধুরী (২৯১) চট্টগ্রাম-১৪ নজরুল ইসলাম চৌধুরী (২৯২) চট্টগ্রাম-১৫ আবু রেজা মুহাম্মদ নেজামউদ্দিন নদভী (২৯৩) চট্টগ্রাম-১৬ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী (২৯৪) কক্সবাজার-১ সালাউদ্দিন আহমেদ (২৯৫) কক্সবাজার-২ আশেক উল্লাহ রফিক (২৯৬) কক্সবাজার-৩ সাইমুম সরওয়ার কমল (২৯৭) কক্সবাজার-৪ শাহিনা আক্তার চৌধুরী (২৯৮) পার্বত্য খাগড়াছড়ি কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা (২৯৯) পার্বত্য রাঙ্গামাটি দীপংকর তালুকদার (৩০০) পার্বত্য বান্দরবান বীর বাহাদুর উশৈ সিং। 

ইনু ও সেলিম ওসমানের আসন ফাঁকা রইল, মেননের আসনে বাহাউদ্দিন নাছিম : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দুটি আসন ফাঁকা রেখে ২৯৮টি আসনে দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে আওয়ামী লীগ। ফাঁকা রাখা দুই আসন হলো কুষ্টিয়া-২ (ভেড়ামারা ও মিরপুর) এবং নারায়ণগঞ্জ-৫ (বন্দর উপজেলা ও নারায়ণগঞ্জ সদরের অংশ)। এর মধ্যে কুষ্টিয়া-২ আসনে বর্তমান সংসদ সদস্য জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু। জাসদ সভাপতির আসনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ঘোষণা না করলেও ১৪ দলীয় জোটের আরেক শরিক দল বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেননের আসনে এবার আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বাহাউদ্দিন নাছিমের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ ফাঁকা রাখা আরেক আসন নারায়ণগঞ্জ-৫ এ বর্তমান সংসদ সদস্য হিসেবে আছেন জাতীয় পার্টির এ কে এম সেলিম ওসমান। তিনি আওয়ামী লীগের আলোচিত সংসদ সদস্য শামীম ওসমানের ভাই। শামীম ওসমান নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য। তিনি এবারও ওই আসনে দলের মনোনয়ন পেয়েছেন। 

বাদ পড়েছেন ৭১ এমপি, নতুন মুখ ১০৪ : আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৩০০ আসনের মধ্যে এবার আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থীদের মধ্যে ১০৪ জনই নতুন মুখ। বর্তমান এমপিদের থেকে বাদ পড়েছেন ৭১ জন এমপি; যারা দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ছিলেন বলে জানা গেছে। এদের মধ্যে তিনজন প্রতিমন্ত্রীও রয়েছেন। আবার একাদশে মনোনয়ন পাননি এমন অনেকে এবার মনোনয়ন পেয়েছেন। সব মিলিয়ে নৌকার মনোনয়ন পাওয়া নতুন মুখ ১০৪ জন। এরা হলেন— পঞ্চগড়-১ নাইমুজ্জামান ভুইয়া, ঠাকুরগাঁও-২ মো. মাজহারুল ইসলাম, ঠাকুরগাঁও-৩ মো. ইমদাদুল হক, নীলফামারী-৩ মো. গোলাম মোস্তফা, নীলফামারী-৪ জাকির হোসেন বাবুল, লালমনিরহাট-৩ মো. মতিয়ার রহমান, রংপুর-১ রেজাউল করিম রাজু, রংপুর-৩ তুষার কান্তি মণ্ডল, রংপুর-৫ রাশেক রহমান, কুড়িগ্রাম-২ জাফর আলী, কুড়িগ্রাম-৩  সৌমেন্দ্র প্রসাদ পাণ্ডে, কুড়িগ্রাম-৪ বিপ্লব হাসান, গাইবান্ধা-১ আফরোজা বারী, গাইবান্ধা-৪ আবুল কালাম আজাদ।

বগুড়া-২ তৌহিদুর রহমান মানিক, বগুড়া-৩ সিরাজুল ইসলাম খান, বগুড়া-৪ হেলাল উদ্দিন কবিরাজ, বগুড়া-৫ মজিবর রহমান মজনু, বগুড়া-৭ মো. মোস্তফা আলম, নওগাঁ-৩ সৌরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী, নওগাঁ-৪  নাহিদ মোরশেদ, রাজশাহী-২ মোহাম্মদ আলী, রাজশাহী-৩ আসাদুজ্জামান আসাদ, রাজশাহী-৪ আবুল কালাম আজাদ, রাজশাহী-৫ মো. আব্দুল ওয়াদুদ, সিরাজগঞ্জ-২ জান্নাত আরা হেনরী, সিরাজগঞ্জ-৪ শফিকুল ইসলাম, সিরাজগঞ্জ-৬ চয়ন ইসলাম, পাবনা-৪ গালিবুর রহমান শরীফ, মেহেরপুর-২ আবু সালেহ মোহাম্মদ নাজমুল হক, ঝিনাইদহ-৩ সালাউদ্দিন মিরাজী।

যশোর-২ তৌহিদুজ্জামান, যশোর-৪ এনামুল হক বাবু, মাগুরা-১ সাকিব আল হাসান, বাগেরহাট-৪ বদিউজ্জামাল সোহাগ, খুলনা-১ ননি গোপাল মণ্ডল, খুলনা-৩ এসএম কামাল হোসেন, খুলনা-৬ মো. রশীদুজ্জামান, সাতক্ষীরা-১ ফিরোজ আহমেদ স্বপন, সাতক্ষীরা-২ মো. আসাদুজ্জামান বাবু, সাতক্ষীরা-৪ এসএম আতাউল হক, বরগুনা-২ সুলতানা নাদিরা, বরিশাল-২ তালুকার মোহাম্মদ ইউনুস, বরিশাল-৩ খালেদ হোসাইন, বরিশাল-৪ ড. শাম্মী আহমদ, বরিশাল-৬ আব্দুল হাফিজ মল্লিক, পিরোজপুর-২ কানাই লাল বিশ্বাস, পিরোজপুর-৩ মো. আশরাফুর রহমান।

টাঙ্গাইল-৩ কামরুল হাসান খান, টাঙ্গাইল-৪ মো. মাজহারুল ইসলাম তালুকদার, টাঙ্গাইল-৫ মো. মামুনুর রশিদ, টাঙ্গাইল-৮ অনুপম শাহজাহান জয়, জামালপুর-১ নুর মোহাম্মদ, জামালপুর-৪ মাহবুবুর রহমান, জামালপুর-৫ আবুল কালাম আজাদ, শেরপুর-৩ শহিদুল ইসলাম, ময়মনসিংহ-৩ নিলুফা আনজুম, ময়মনসিংহ-৪ মোহাম্মদ মোহিত উর রহমান, ময়মনসিংহ-৫ আব্দুল হাই আকন্দ, ময়মনসিংহ-৮ আব্দুস সাত্তার, ময়মনসিংহ-৯ আব্দুস সালাম, নেত্রকোণা-১ মোস্তাক আহমেদ রুহী, নেত্রকোণা-৫ আহমদ হোসেন, কিশোরগঞ্জ-২ আব্দুর কাহার আকন্দ, কিশোরগঞ্জ-৩ মো. নাসিরুল ইসলাম খান, মানিকগঞ্জ-১ মো. আব্দুস সালাম, মুন্সীগঞ্জ-১ মহিউদ্দিন আহমেদ।

ঢাকা-৪ সানজিদা খানম, ঢাকা-৫ হারুনুর রশিদ মুন্না, ঢাকা-৬ সাঈদ খোকন, ঢাকা-৭ সোলাইমান সেলিম, ঢাকা-৮ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, ঢাকা-১০ ফেরদৌস আহমেদ, ঢাকা-১১ মো. ওয়াকিল উদ্দিন, ঢাকা-১৩ জাহাঙ্গীর কবির নানক, ঢাকা-১৪ মাইনুল হোসেন খান নিখিল, গাজীপুর-৩ রুমানা আলী, নরসিংদী-৩ ফজলে রাব্বী খান, নারায়ণগঞ্জ-৩ আব্দুল্লাহ আল কায়দার, ফরিদপুর-১ আব্দুর রহমান, ফরিদপুর-৩ শামীম হক, সুনামগঞ্জ-১ রনজিত চন্দ্র সরকার, সুনামগঞ্জ-২ চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, সুনামগঞ্জ-৪ মো. সাদিক, সিলেট-২ শফিকুর রহমান চৌধুরী, সিলেট-৫ মাসুক উদ্দিন আহমেদ।
মৌলভীবাজার-২ শফিউল আলম চৌধুরী, মৌলভীবাজার-৩ মোহাম্মদ জিল্লুর রহমান, হবিগঞ্জ-১ ডা. মো. মুশফিক হোসেন চৌধুরী, হবিগঞ্জ-২ ময়েজ উদ্দিন শরিফ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৫ ফয়জুর রহমান, কুমিল্লা-১ ইঞ্জি. আব্দুস সবুর, কুমিল্লা-৮ আবু জাফর মো. শফিউদ্দিন, চাঁদপুর-১ ড. সেলিম মাহমুদ, চাঁদপুর-২ মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, ফেনী-১ আলাউদ্দিন আহমেদ চৌধুরী, ফেনী-৩ আবুল বাশার, নোয়াখালী-৬ মোহাম্মদ আলী, লক্ষ্মীপুর-৪ ফরিদুন্নাহার লাইলী, চট্টগ্রাম-১ মাহবুব উর রহমান, চট্টগ্রাম-২ খাদিজাতুল আনোয়ার, চট্টগ্রাম-৪ এসএম আল মামুন, চট্টগ্রাম-৫ মো. আব্দুস সালাম, চট্টগ্রাম-১২ মোতাহেরুল ইসলাম, কক্সবাজার-১ সালাউদ্দিন আহমেদ।

পছন্দের ব্যক্তি নৌকা প্রতীক পাওয়ায় সমর্থকদের আনন্দ-উল্লাস : গতকাল ওবায়দুল কাদের দলের প্রার্থী তালিকা ঘোষণার পর উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন মনোনয়ন পাওয়াদের সমর্থকরা। দলীয় কার্যালয়ের সামনে তাদের আনন্দ-উল্লাস করতে দেখা যায়। এদিন প্রার্থী ঘোষণাকে কেন্দ্র করে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নেতাকর্মীদের উপচেপড়া ভিড় দেখা যায়। আশপাশের সড়কেও অবস্থান নেন নেতাকর্মীরা। দুপুর থেকে স্লোগানে স্লোগানে মুখর হয়ে ওঠে দলীয় কার্যালয় এলাকা। মনোনয়ন পাওয়া নেতাকর্মীরাও ভিড় করেন দলীয় কার্যালয়ে। মনোনয়ন ঘোষণার পর নেতাকর্মীদের স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউ চত্বর। প্রার্থীদের নামে স্লোগান দিতে থাকেন অনুসারীরা। এ সময় মনোনয়ন না পাওয়া প্রার্থীর অনুসারীদের ক্ষোভ প্রকাশ করতেও দেখা যায়। এছাড়াও সারা দেশে মনোনয়ন পাওয়ায় প্রার্থীদের সমর্থকরা মিষ্টি বিতরণ করেন এবং মিছিল করে উল্লাস প্রকাশ করেন।  

দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নেয়ার নির্দেশ শেখ হাসিনার : এদিকে গতকাল সকালে ৩০০ আসনের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সঙ্গে গণভবনে মতবিনিময় সভায় আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কেউ যেন নির্বাচিত হতে না পারে, সেদিকে নজর দিতে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের নির্দেশনা দিয়েছেন। এ সময় শেখ হাসিনা মনোনয়নে দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নিতে নেতাদের নির্দেশ দেন। তিনি বলেন, বিরোধীদল না আসা সাপেক্ষে প্রতিযোগিতামূলক নির্বাচন করতে প্রয়োজনে আসন উন্মুক্ত করা হবে। বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় কেউ যেন নির্বাচিত হতে না পারে। সেক্ষেত্রে একাধিক ডামি প্রার্থী রাখতে মত দেন দলীয় প্রধান।

প্রসঙ্গত, গতকাল সকাল ১০টায় নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করা নেতাকর্মীদের সঙ্গে গণভবনে মতবিনিময় করেন দলটির সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গত ১৮ থেকে ২১ নভেম্বর পর্যন্ত আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের কাছে দলীয় ফরম বিক্রি করা হয়। চারদিনে ঢাকা বিভাগে ৭৩০টি, চট্টগ্রাম বিভাগে ৬৫৯টি, সিলেট বিভাগ ১৭২টি, ময়মনসিংহ বিভাগ ২৯৫টি, বরিশাল বিভাগে ২৫৮টি, খুলনা বিভাগে ৪১৬টি, রংপুর বিভাগে ৩০২টি ও রাজশাহী বিভাগে ৪০৯টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি হয়। ৩০০ আসনে মোট তিন হাজার ৩৬২টি মনোনয়ন ফরম বিক্রি করে দলটি। এর মধ্যে অনলাইনে জমা দেন ১২১ জন। ফরম বিক্রি করে চার দিনে আওয়ামী লীগের আয় ১৬ কোটি ৮১ লাখ টাকা। এরপর রাজধানীর তেজগাঁওয়ে ঢাকা জেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়ে দলের সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মনোনয়ন বোর্ডের সভায় ৩০০ আসনেই দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করেছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ। কৌশলগত কারণে দুটি আসনে মনোনীত প্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হয়নি। 

এর আগে, বুধবার (১৫ নভেম্বর) প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেন। সিইসি জানান, দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হবে ২০২৪ সালের ৭ জানুয়ারি। মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ সময় ৩০ নভেম্বর, মনোনয়নপত্র বাছাই ১ থেকে ৪ ডিসেম্বর। রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিল দায়ের ৬ থেকে ১৫ ডিসেম্বর। প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ সময় ১৭ ডিসেম্বর আর প্রতীক বরাদ্দ ১৮ ডিসেম্বর। প্রচারণা শুরু হবে ১৮ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি সকাল ৮টা পর্যন্ত।

 

Link copied!