Amar Sangbad
ঢাকা শনিবার, ০২ মার্চ, ২০২৪,

পরীক্ষাকেন্দ্রেই চলছে মেলা

নুর মোহাম্মদ মিঠু

সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২৩, ১২:০০ এএম


পরীক্ষাকেন্দ্রেই চলছে মেলা

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গণে মেলা, যাত্রা, সার্কাস কিংবা বাণিজ্যিক বিনোদনমূলক কোনো অনুষ্ঠান আয়োজন করা যাবে না মর্মে ২০০৯ সালে প্রজ্ঞাপন জারি করে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। একই ইস্যুতে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়েরও। অথচ দেশের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গণে প্রতি বছরই এসব মেলা, যাত্রা, সার্কাস কিংবা বাণিজ্যিক বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন হচ্ছে হরহামেশাই। এতে যেমন উপেক্ষিত হচ্ছে মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা, তেমনি ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পাঠদান কার্যক্রমও। 

জানা গেছে, এসব অনুষ্ঠান আয়োজনের অনুমতিও দিচ্ছেন খোদ জেলা প্রশাসকরা। সম্প্রতি সরকারি দোহার-নবাবগঞ্জ কলেজ মাঠেও মাসব্যাপী শিল্প-বাণিজ্যমেলার অনুমতি দিয়েছেন ঢাকার জেলা প্রশাসক। গত ৮ সেপ্টেম্বর থেকে চালু হয় এই মেলা। অথচ প্রতিষ্ঠানটিতে রয়েছে চলমান এইচএসসি পরীক্ষার কেন্দ্রও। মেলা আয়োজনের কারণে কেন্দ্রের স্বাভাবিক পরিবেশও নষ্ট হচ্ছে বলে জানা গেছে। 

জানতে চাইলে মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা নবাবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মতিউর রহমান আমার সংবাদকে বলেন, এসব মেলা আয়োজনে অনুমতি দেয়ার এখতিয়ার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নেই। জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে অনুমতি দেয়া হয়। এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে কথা বলার পরামর্শ দেন তিনি। ঢাকার জেলা প্রশাসক আনিসুর রহমানের সঙ্গে গত দুদিন ধরে মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তিনি ফোন রিসিভ করেননি। তার মুঠোফোনে ক্ষুদেবার্তা পাঠানো হলেও তিনি কোনোরকম সাড়া দেননি। তবে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মমতাজ বেগমের কাছে জানতে চাইলে তিনিও জেলা প্রশাসকের সঙ্গে কথা বলার পরামর্শ দেন।  

এদিকে চলমান এইচএসসি পরীক্ষার এই কেন্দ্রটিতে আয়োজিত মাসব্যাপী এই মেলাকে ঘিরে প্রতিদিনই দর্শনার্থী ও ক্রেতারা ভিড় করছেন। যে কারণে কলেজটিতে বিদ্যমান কেন্দ্রের স্বাভাবিক পরিস্থিতি নষ্ট হচ্ছে বলে জানা গেছে। এছাড়াও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিয়েও বিভিন্ন মহলে রয়েছে সমালোচনা। 

জানতে চাইলে নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম শেখ আমার সংবাদকে বলেন, মেলা আয়োজনে সরকারি অর্ডার আছে। তবে শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তা বা অন্যকোনো ধরনের অভিযোগ এখনো তিনি পাননি। তিনি বলেন, পরীক্ষার্থীরাও মেলায় প্রবেশ করছে। কেন্দ্রের পরিবেশ নষ্টের বিষয়ে তিনি বলেন, এমন অভিযোগও পাননি তিনি। 

একই বিষয়ে জানতে চেয়ে ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার মো. সাবিরুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তাকেও পাওয়া যায়নি। মুঠোফোনে ক্ষুদেবার্তা পাঠালে তিনি ফিরতি বার্তায় সুনির্দিষ্ট তথ্য জানতে চান। কোন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে কত দিনের জন্য কোন সময় মেলার জন্য অনুমতি কে দিয়েছে এসব জানতে চান। সরকারি দোহার-নবাবগঞ্জ কলেজ মাঠে শিল্প ও বাণিজ্যমেলার অনুমতি দিয়েছেন ঢাকার জেলা প্রশাসক, যেখানে চলমান এইচএসসি পরীক্ষার কেন্দ্রও রয়েছে। গত ৮ সেপ্টেম্বর থেকে মেলা চলছে, এতে কেন্দ্রের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে জানিয়ে ফের মুঠোফোনে বার্তা পাঠালেও তিনি আর কোনো সাড়া দেননি। 

একই বিষয়ে জানতে চেয়ে ঢাকার পুলিশ সুপার মো. আসাদুজ্জামান ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষের সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তারাও কোনো সাড়া দেননি।
 

Link copied!