Amar Sangbad
ঢাকা মঙ্গলবার, ১৭ মে, ২০২২, ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

‘আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টি করলে দাত ভাঙা জবাব দেয়া হবে’

নিজস্ব প্রতিবেদক

মে ১২, ২০২২, ০৭:৪২ পিএম


‘আন্দোলনের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টি করলে দাত ভাঙা জবাব দেয়া হবে’

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান বলেছেন, আজকে ওরা (বিএনপি) কথায় কথায় আন্দোলনের ভয় দেখায়। আন্দোলনের নামে সরকার পতনের হুমকি দেয়। আমরা পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, আন্দোলনের নামে কেউ যদি বাংলাদেশের মাটিতে নৈরাজ্য তৈরি করতে চায়। রাজনৈতিক ভাবেই তাদের দাত ভাঙা জবাব দেয়া হবে। 

বৃহস্পতিবার (১২ মে) ফরিদপুর শহরের সরকারি রাজেন্দ্র কলেজ মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন। 
 
আব্দুর রহমান আরও বলেন, করোনার সময় অনেকে বলেছিল বাংলাদেশে অনেক মানুষ মারা যাবে। সরকার করোনা মোকাবিলায় ব্যর্থ হবে। কিন্তু আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কঠোর পরিশ্রম, সঠিক সিদ্ধান্ত গ্রহণ ও বাস্তবায়নে বাংলাদেশের মানুষ ভালো আছে। করোনায় কেউ না খেয়ে মারা যায়নি। করোনা কালেও শেখ হাসিনার নেতৃত্ব প্রসংশিত হয়েছে। 

তিনি আরও বলেন, একটা দল (বিএনপি) শ্রীলঙ্কা শ্রীলঙ্কা করে মুখে ফেনা তুলছে। ওরা (বিএনপি) মনে করে শ্রীলঙ্কার মতো অবস্থা বাংলাদেশের হবে। শ্রীলঙ্কার মতো অবস্থা বাংলাদেশের দেশের হলেই পেছনের দরজা দিয়ে ক্ষমতা ভাগাভাগি করবে। কিন্তু তাদের সেই দিবাস্বপ্ন কোনো দিন পূরণ হবে না। এই বাংলাদেশ কখনোই শ্রীলঙ্কার মতো হবে না। এই বাংলাদেশের রিজার্ভ আজকে ৫০ বিলিয়ন ডলার। আজকে বাংলাদেশ খাদ্য স্বয়ংসম্পূর্ণ। বাংলাদেশ করোনার মধ্যেও একটি যৌবনী অর্থনীতি গড়ে তুলেছে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে। এই দেশ কখনো শ্রীলঙ্কা হবে না। 

প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান আরও বলেন, ৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার মধ্যে দিয়ে স্বাধীনতা বিরোধীরা বাংলাদেশ পাকিস্তানের ভাবধারায় নিয়ে যেতে চেয়েছিল। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মধ্যে দিয়ে তারা সদ্য স্বাধীন দেশকে অন্ধকারে ঠেলে দিয়েছিল। জয় বাংলা স্লোগানকে বন্ধ করে দিয়েছিল। তারা ভেবেছিল, এই বাংলাদেশে কেউ আর বঙ্গবন্ধুর নাম উচ্চারণ করবে না। কিন্তু আজ সারাদেশেই জয় বাংলা স্লোগান হচ্ছে। বঙ্গবন্ধুর নামে স্লোগানে স্লোগানে মুখরিত হচ্ছে।   

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র অব্যহত আছে। এই চক্রান্ত ষড়যন্ত্রের যুদ্ধে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের রুখে দাঁড়াতে হবে।

আব্দুর রহমান বলেন, শুধু নেতৃত্ব পরিবর্তনের জন্য সম্মেলন নয়। এই সম্মেলনের মধ্যে দিয়ে আওয়ামী লীগের গুণগত মান উন্নয়ন করতে হবে। এই সম্মেলনে নতুন করে শপথ নিতে হবে। 

ফরিদপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট সুবল চন্দ্র সাহার সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফর উল্লাহ। সম্মেলনে উদ্বোধকের বক্তব্যে রাখেন- আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, লে. কর্নেল (অব.) মুহাম্মদ ফারুক, জাহাঙ্গীর কবির নানক, শাহজাহান খান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দীন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক,  মির্জা আজম, এস এম কামাল হোসেন, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ও পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম এমপি, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ প্রমুখ।