community-bank-bangladesh
Amar Sangbad
ঢাকা শুক্রবার, ২১ জুন, ২০২৪,

সাধারণ সম্পাদক পদ ফেরত পেলেন ডিপজল

নিজস্ব প্রতিবেদক

নিজস্ব প্রতিবেদক

মে ২৭, ২০২৪, ০৪:০৫ পিএম


সাধারণ সম্পাদক পদ ফেরত পেলেন ডিপজল

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদি নির্বাচনে সম্পাদক পদ ফেরত পেলেন অভিনেতা মনোয়ার হোসেন ডিপজল।

সোমবার (২৭ মে) চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন। আর এই আদেশের ফলে সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালনে বাধা নেই ডিপজলের।

এর আগে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদের নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগে গত ১৫ মে পরাজিত সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী নিপুন আক্তার হাইকোর্টে রিট করেন।

তার রিটের প্রেক্ষিতে, গত ২০ মে সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে স্থগিতাদেশ দেন আদালত। এই স্থগিতাদেশের বিপরীতে গতকাল রোববার (২৬ মে) নির্বাচিত প্রার্থী মনোয়ার হোসেনে ডিপজল তার আইনজীবীর মাধ্যমে চেম্বার আদালতে আপিল করেন।

গতকাল রোববার এবং আজ সোমবার আপিল শুনানি শেষে চেম্বার আদালত সাধারণ সম্পাদক পদে স্থগিতাদেশ তুলে নেন। এতে সাধারণ সম্পাদক পদে মনোয়ার হোসেন ডিপজলের দায়িত্ব পালনে আর কোনো বাধা নেই। ডিপজলের আইনজীবীর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এদিকে আদালতের রায় পেয়ে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন অভিনেতা ডিপজল। তিনি বলেন, আমি বরাবরই আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল। এ মামলার শুরুতেই বলেছিলাম, আমি আইনি প্রক্রিয়াই তা মোকাবিলা করব। আমি মাননীয় আদালতের কাছ থেকে সুবিচার পেয়েছি। আলহামদুলিল্লাহ, সত্য প্রতিষ্ঠায় আল্লাহর সাহায্য চিরন্তন।

নিপুন আক্তার পুনরায় আপিল করতে পারে, এমন প্রশ্নের প্রেক্ষিতে ডিপজল বলেন, করতেই পারে। সমস্যা নেই। আইনিভাবেই তা মোকাবিলা করব। আমি এবং আমার প্যানেলের প্রার্থীরা স্বচ্ছ নির্বাচনের মাধ্যমে সদস্যদের ভোটে নির্বাচিত হয়েছি। এ নির্বাচন ইন্ডাস্ট্রির সবার কাছেই গ্রহণযোগ্য হয়েছে। কাজেই আমরা আত্মবিশ্বাসী, সত্যের জয় হবেই। আইনি প্রক্রিয়াও এ সত্য প্রতিষ্ঠিত হয়েছে এবং হবে।

গত ১৯ এপ্রিল বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে নতুন সভাপতি নির্বাচিত হন অভিনেতা মিশা সওদাগর এবং সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী হন মনোয়ার হোসেন ডিপজল।

নির্বাচনে সভাপতি মিশা সওদাগর মোট ভোট পান ২৬৫টি। অন্যদিকে মাহমুদ কলি ১৭০ ভোট পেয়ে পরাজিত হন। সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত ডিপজল পান ২২৫ ভোট। ১৬ ভোট কম পেয়ে পরাজিত হন নিপুন আক্তার (২০৯)।

সহ-সভাপতি পদে ২৩১ ও ২৩৪ ভোট পেয়ে জয়ী হয় মাসুম পারভেজ রুবেল ও ডি এ তায়েব। এছাড়াও সহ-সাধারণ সম্পাদক আরমান ২৩৭, সাংগঠনিক সম্পাদক জয় চৌধুরী ২৫৫, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক আলেকজান্ডার বো ২৯৬, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক জ্যাকি আলমগীর ২৪৫, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক মামনুন হাসান ইমন ২৩৫ এবং কোষাধ্যক্ষ পদপ্রার্থী কমল ২৩১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়।

কার্যনির্বাহী সদস্য পদে মিশা-ডিপজল পরিষদ থেকে নির্বাচিত হয় ৯ জন। তারা হলেন সুচরিতা (২২৮), রোজিনা (২৪৩), আলীরাজ (২৩৯), সুব্রত, দিলারা ইয়াসমিন (২১৮), শাহনূর (২৪৫), নানা শাহ (২১০), রত্না কবির (২৬৩) ও চুন্নু (২৪৮)। কলি-নিপুন পরিষদ থেকে রিয়ানা পারভিন পলি (২২০) ও সনি রহমান (২৩০)।

আরএস

Link copied!