Amar Sangbad
ঢাকা মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই, ২০২২, ২১ আষাঢ় ১৪২৯

ধুলি ঝড়ে ঢেকে গেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি রাজধানী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মে ১৯, ২০২২, ০৫:৪৮ পিএম


ধুলি ঝড়ে ঢেকে গেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি রাজধানী

আকস্মিক ধুলি ঝড়ে ঢেকে গেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবের রাজধানী রিয়াদ। এছাড়া দেশটির অন্যান্য শহর ঘন ধূসর কুয়াশায় আচ্ছন্ন হওয়ায় দৃষ্টিসীমা কমে গেছে এবং রাস্তায় যানবাহন চলাচল ধীরগতি হয়েছে। মঙ্গলবার ফরাসি বার্তাসংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

ঘন ধূসর কুয়াশায় কিংডম সেন্টারের মতো রিয়াদের দৃষ্টিনন্দন বিভিন্ন ভবন মাত্র কয়েকশ’ গজ দূর থেকেও প্রায় দেখা যাচ্ছে না। তবে বৈরী এই পরিস্থিতিতে এখন পর্যন্ত কোনও ফ্লাইট বিলম্ব অথবা বাতিলের ঘোষণা দেওয়া হয়নি।

রাষ্ট্রায়ত্ত সংবাদ সংস্থা সৌদি প্রেস এজেন্সি (এসপিএ) বলছে, দেশের পূর্বাঞ্চল এবং রাজধানী রিয়াদে ধুলি ঝড়ের কারণে দৃষ্টিশক্তি হ্রাস পেতে পারে বলে সৌদির আবহাওয়া কেন্দ্র পূর্বাভাস দিয়েছে।

পূর্বাভাস অনুযায়ী, পবিত্র নগরী মক্কা ও মদিনার আরও পশ্চিমেও ধুলিময় পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। দৃষ্টিসীমা কমে যাওয়ায় রিয়াদের মহাসড়কে ইলেক্ট্রনিক সংকেত মেনে গাড়ির গতিসীমা কমানোর জন্য চালকদের সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

রিয়াদের মধ্যাঞ্চলের বাসাবাড়ি, বিভিন্ন ভবন এবং যানবাহন ধুলোয় ঢেকে গেছে। এসব পরিষ্কার করতে বাসিন্দাদের রীতিমতো লড়াই করতে হচ্ছে। টাইলস বসানোর সময় কলিমুল্লাহ নামের একজন পাকিস্তানি নির্মাণ শ্রমিক এএফপিকে বলেন, ধুলির কারণে বাইরে কাজ করা অত্যন্ত কঠিন হয়ে পড়েছে।

৩০ বছর বয়সী এই পাকিস্তানি বলেন, ‘আমি মাঝে মাঝে মুখ ধোয়ার চেষ্টা করছি। ধুলি ঠেকানোর জন্য কাপড়ে নিজের মুখে মুড়িয়ে ফেলেছেন তিনি।

সৌদি আরবের অফিসের কর্মী আবদুল্লাহ আল-ওতাইবি বলেছেন, তিনি সৌভাগ্যবান। কারণ তিনি অফিসের ভেতরে কাজ করেন। দ্রুতগতিতে অফিস ভবনে প্রবেশের সময় ৩৯ বছর বয়সী আল-ওতাইবি বলেন, ধুলি ঝড় আমাদের সংস্কৃতির অংশ এবং আমরা এতে অভ্যস্ত। তবে মাঝে মাঝে কিছু ঝড় ভয়াবহ হয়ে ওঠে।

সাধারণত সৌদি আরবের কিছু অংশে মার্চ থেকে মে মাসের মধ্যে ধুলি ঝড় দেখা যায়, যার তীব্রতা ভিন্ন হয়। তবে সাম্প্রতিক মাসগুলোতে এই অঞ্চলে ঝড়ের তীব্রতা বেড়েছে। প্রতিবেশি ইরাক গত এপ্রিলের মাঝামাঝি সময় থেকে এখন পর্যন্ত ৮টি ধুলি ঝড়ের মুখোমুখি হয়েছে। জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে মাটির ক্ষয়, তীব্র খরা এবং বৃষ্টিপাত কমে যাওয়া এই ঝড়ের অন্যতম কারণ।

মঙ্গলবার ‘অস্বাস্থ্যকর আবহাওয়া’ এবং ধুলি ঝড়ের কারণে ইরানের অনেক প্রদেশে সরকারি অফিস এবং স্কুল ও বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমের খবরে জানানো হয়েছে।

আমারসংবাদ/আরএইচ